Advertisement
২২ জুলাই ২০২৪
WB Health Department

স্বাস্থ্য দফতরের নামে প্রতারণা! ৩৭ কোটি টাকার দুর্নীতির অভিযোগে ইডি গ্রেফতার করল যুবককে

২০১৯ সাল থেকেই বুধাদিত্য এ ভাবে একের পর এক সংস্থাকে বোকা বানিয়ে টাকা তুলেছিলেন বলে অভিযোগ। তবে তাঁর বিরুদ্ধে প্রথম এফআইআর দায়ের হয় ২০২২ সালে।

গ্রাফিক— সনৎ সিংহ।

আনন্দবাজার অনলাইন সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ১০ জুলাই ২০২৪ ১২:৩৬
Share: Save:

রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতরের দরপত্র (টেন্ডার) পাইয়ে দেওয়ার নামে ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে বেআইনি ভাবে টাকা তুলেছিলেন এক যুবক। প্রায় পাঁচ বছর ধরে চলা সেই প্রতারণার তদন্তে নেমে ইডি জানতে পারল, ইতিমধ্যেই ২৬ কোটি টাকার জালিয়াতি করে ফেলেছেন তিনি! নিজেকে হাভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক এবং নেতা-মন্ত্রীদের ‘ঘনিষ্ঠ’ বলে পরিচয় দিয়ে বোকা বানিয়েছেন ওষুধ এবং স্বাস্থ্যপরীক্ষার সরঞ্জাম সরবরাহকারী বহু সংস্থাকে। ওই মামলার তদন্তে শহর জুড়ে তল্লাশি চালিয়েছিলেন ইডির গোয়েন্দারা। বুধবার ওই যুবককে গ্রেফতার করেছে ইডি।

ইডি সূত্রে খবর, ওই যুবকের নাম বুধাদিত্য চট্টোপাধ্যায়। বয়স ৩৯ বছর। বাড়ি কসবায়। এর আগেও কলকাতা পুলিশের কাছে তাঁর নামে অভিযোগ দায়ের হয়েছিল। কলকাতা-সহ রাজ্যের বিভিন্ন এলাকায়, এমনকি, বেঙ্গালুরুর একটি সংস্থাকেও প্রতারণার অভিযোগ করা হয়েছিল তাঁর বিরুদ্ধে। কারও কাছ থেকে ‘অডিটরশিপের লাইসেন্স’ পাইয়ে দেওয়ার নামে ২৫ হাজার টাকা নিয়েছেন বুধাদিত্য। কাউকে পশ্চিমবঙ্গের স্বাস্থ্য এবং পরিবারকল্যাণ দফতরে ‘কনসাল্টিং অডিটর’ বানানোর প্রতিশ্রুতি দিয়ে নিয়েছেন ২৫ লক্ষ টাকা। পরে গড়িয়ার একটি বেসরকারি স্বাস্থ্যপরীক্ষার সরঞ্জাম সরবরাহ সংস্থার থেকে ৮৫ লক্ষ টাকা নেন। স্বাস্থ্য দফতরের টেন্ডারের কাগজ জালিয়াতি করে কলকাতার আরও একটি সংস্থার থেকে নেন প্রায় সা়ড়ে ৯ কোটি টাকা। এ ছাড়া বেঙ্গালুরুর একটি সংস্থাকেও স্বাস্থ্য দফতরের দরপত্র পাইয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে নেন ২৬ কোটি ১৫ লক্ষ টাকা।

২০১৯ সাল থেকেই বুধাদিত্য এ ভাবে একের পর এক সংস্থাকে বোকা বানিয়ে টাকা তুলেছিলেন বলে অভিযোগ। তবে তাঁর বিরুদ্ধে প্রথম এফআইআর দায়ের হয় ২০২২ সালে। পুলিশে অভিযোগ দায়ের হওয়ার পরে গত বছর মামলাটি হাতে নেয় ইডি। তল্লাশিও চালায় কলকাতা এবং কলকাতার বাইরে। তদন্তে তারা জানতে পারে, বুধাদিত্য তাঁর ‘শিকার’দের বোকা বানানোর আগে নিজের প্রভাবশালী ভাবমূর্তি তৈরি করতেন। নিজেকে হাভার্ড বিশ্ববিদ্যলয়ের গবেষক বলে পরিচয় দিয়ে তিনি বলতেন, রাজ্য সরকারের নেতা এবং মন্ত্রীদের কাছের লোক তিনি। তাঁদের সঙ্গে সুসম্পর্ক আছে তাঁর। জানাশোনা রয়েছে স্বাস্থ্য দফতরেও। ওই পরিচয়ের জোরেই স্বাস্থ্য দফতরের বিভিন্ন পদে কাজ এবং বিভিন্ন হাসপাতালে স্বাস্থ্যপরীক্ষার সরঞ্জাম পাইয়ে দেওয়ার বরাত পাইয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিতেন তিনি। কিন্তু শেষপর্যন্ত সেই প্রতারণা ধরা পড়ে যায়।

কসবার বিবি চ্যাটার্জি স্ট্রিটের একটি আবাসনের বাসিন্দা বুধাদিত্য। মঙ্গলবার ওই মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাঁকে সিজিও কমপ্লেক্সে ডেকে পাঠিয়েছিল ইডি। বুধবার তাঁকে গ্রেফতার করা হয়। বুধবারই আদালতে তোলা হতে পারে বুধাদিত্যকে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

WB Health Department
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE