×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৮ জুন ২০২১ ই-পেপার

সেতু নিয়ে অভিযোগ? জানান পুরমন্ত্রীকে

নিজস্ব সংবাদদাতা
২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ০২:৩৮
খোঁজখবর: বাঘা যতীন সেতু ঘুরে দেখছেন পুর-নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। বৃহস্পতিবার। ছবি: সুমন বল্লভ

খোঁজখবর: বাঘা যতীন সেতু ঘুরে দেখছেন পুর-নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। বৃহস্পতিবার। ছবি: সুমন বল্লভ

পূর্ত দফতরের পথে এ বার হাঁটতে চলেছে কেএমডিএ। সেতু সম্পর্কে অভিযোগ থাকলে হোয়াটসঅ্যাপ নম্বরের মাধ্যমে মানুষ সরাসরি তা জানাতে পারবেন পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমকে। ব্যবস্থা নেবে কেএমডিএ। পুর ও নগরোন্নয়ন সংক্রান্ত অভিযোগও করা যাবে।

মাঝেরহাটে সেতুভঙ্গের পরেই কলকাতা-সহ রাজ্যের সব সেতু ও উড়ালপুলের স্বাস্থ্য পরীক্ষায় নেমেছে পূর্ত দফতর ও কেএমডিএ। বৃহস্পতিবার কলকাতায় কেএমডিএ-র অধীনে থাকা সেতু বা উ়়ড়ালপুল পরিদর্শন করেন ফিরহাদ। সচিব সুব্রত গুপ্ত, চিফ এগ্‌জিকিউটিভ অফিসার সঞ্জয় বনশল ও পরামর্শদাতা কমিটির বিশেষজ্ঞ সমীরণ সেন-সহ দফতরের ইঞ্জিনিয়ারদের নিয়ে কালীঘাট সেতু থেকে পরিদর্শন শুরু করেন তিনি। পরে ফিরহাদ জানান, কেএমডিএ-র সেতুগুলির দায়িত্বভার এক-এক জনের হাতে দেওয়া হবে। সেতুগুলির গায়ে ফলক বসিয়ে সেই পরিদর্শকের নাম ও ফোন নম্বর লেখা থাকবে। এর জন্য ছয় সদস্যের কমিটি গড়া হচ্ছে।

ফিরহাদ জানান, সেতুগুলি যে কেএমডিএ তৈরি করেছে, তা নয়। পরে তার রক্ষণাবেক্ষণের ভার দেওয়া হয়েছে কেএমডিএ-কে। সেই জন্যই তাঁর এই পরিদর্শন। মন্ত্রী ঘুরে দেখেন কালীঘাট সেতু, বিজন সেতু, ঢাকুরিয়া সেতু, বাঘা যতীন সেতু এবং ডক্টর বি আর অম্বেডকর সেতু। পরিদর্শন শেষ হয় হাওড়ার বঙ্কিম সেতুতে। কালীঘাট সেতুর ক্ষেত্রে দফতরের আধিকারিক এবং ইঞ্জিনিয়ারেরা নৌকা থেকে পরিদর্শন করেন। পুরমন্ত্রী জানান, এই সেতুর হাল বেশ খারাপ। দীর্ঘদিন দেখভাল না-হওয়ায় এই অবস্থা। তাই তিন দিনের মধ্যে এটির কাজ শুরু হবে। অন্য সেতুগুলির মেরামতির জন্য দরপত্র ডাকা হবে পরে।

Advertisement
Advertisement