Advertisement
৩০ নভেম্বর ২০২২

ট্রেন থেকে পড়ে পা হারালেন প্রৌঢ়

অভিযোগ, ভিড় ট্রেনের মধ্যে কামরার হাতল ঠিক মতো ধরতে না পারায় অরুণবাবুর পা পিছলে যায়। রেলপুলিশ সূত্রের খবর, প্ল্যাটফর্ম এবং ট্রেনের মাঝের ফাঁকে কিছুটা দূরত্ব ঘষটে যাওয়ার পরে তিনি লাইনে পড়ে যান।

—ফাইল চিত্র।

—ফাইল চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৫ জানুয়ারি ২০১৯ ০১:০১
Share: Save:

অফিসের ব্যস্ত সময়। যাদবপুর স্টেশনে যাত্রীদের থিকথিকে ভিড়। স্টেশনে তখন ঢুকছে শিয়ালদহগামী লোকাল। সেই ভিড়ের মধ্যেই ঘটে গেল মর্মান্তিক দুর্ঘটনা। ট্রেনে উঠতে গিয়ে পড়ে হাঁটুর নীচ থেকে একটি পা হারালেন বছর ষাটের এক প্রৌঢ়। শুক্রবার সকালের ঘটনা। আহতের নাম অরুণ দেবনাথ। তাঁর বাড়ি বনগাঁয়।

Advertisement

অভিযোগ, ভিড় ট্রেনের মধ্যে কামরার হাতল ঠিক মতো ধরতে না পারায় অরুণবাবুর পা পিছলে যায়। রেলপুলিশ সূত্রের খবর, প্ল্যাটফর্ম এবং ট্রেনের মাঝের ফাঁকে কিছুটা দূরত্ব ঘষটে যাওয়ার পরে তিনি লাইনে পড়ে যান। এত দ্রুত ঘটনাটি ঘটে যে সহযাত্রীরা ওই প্রৌঢ়কে ধরে ফেলারও সুযোগ পাননি। ট্রেন চলে যাওয়ার পরে দেখা যায়, গোড়ালির নীচ থেকে ডান পায়ের পাতা কাটা গিয়েছে অরুণবাবুর।

রেলপুলিশ ও অন্য যাত্রীরাই সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে উদ্ধার করেন। রেলপুলিশেরই উদ্যোগে ওই প্রৌঢ়কে এম আর বাঙুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পায়ের কাটা অংশটিও নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালে। কিন্তু চিকিৎসকেরা জানিয়ে দেন, সেটি আর জোড়া লাগানো যাবে না। হাসপাতাল সূত্রের খবর, ডান পা ছাড়াও মাথা, বুক এবং পিঠে আঘাত রয়েছে ওই ব্যক্তির। তাঁর অবস্থা আশঙ্কাজনক।

রেলপুলিশ সূত্রের খবর, অরুণবাবুর বাড়ি বনগাঁর রামকৃষ্ণ পল্লিতে। যাদবপুরে তাঁর এক আত্মীয় থাকেন। এ দিন সেখান থেকেই বাড়ি ফিরছিলেন তিনি। ঘটনা সম্পর্কে শিয়ালদহ ডিভিশনের এক কর্তা বলেন, ‘‘রেলপুলিশের উদ্যোগে ওই ব্যক্তিকে হাসপাতালে পাঠানো হয়। কী ভাবে এমন ঘটল, তা পুলিশের রিপোর্ট না দেখলে বলা সম্ভব নয়। আমরাও খোঁজ নিচ্ছি।’’

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.