Advertisement
২৫ জুন ২০২৪
Kolkata Metro Service

শিয়ালদহ উত্তর শাখা থেকে মেট্রো স্টেশন যেতে তৈরি ভূগর্ভ পথ, কবে খুলে দেওয়া হবে?

শিয়ালদহ উত্তর শাখার যাত্রীদের সহজে শিয়ালদহ আদালত এবং কোলে মার্কেটে পৌঁছনোর জন্য দু’দশক আগে সাড়ে ১০ মিটার চওড়া এবং ১৪৪ মিটার লম্বা একটি ভূগর্ভ পথ ছিল।

An image of Sealdah Metro Subway

শিয়ালদহ উত্তর শাখার রেলযাত্রীদের মেট্রো স্টেশনে যেতে তৈরি হয়েছে এই সাবওয়ে। নিজস্ব চিত্র।

ফিরোজ ইসলাম
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৮ জুন ২০২৩ ০৭:১৪
Share: Save:

শিয়ালদহ দক্ষিণ শাখা থেকে আসা পূর্ব রেলের যাত্রীরা এখন যতটা সহজে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর শিয়ালদহ স্টেশনে পৌঁছতে পারেন, সেই তুলনায় উত্তর শাখার যাত্রীদের মেট্রো স্টেশনে পৌঁছনোর স্বাচ্ছন্দ্য খানিকটা কম। মেট্রো স্টেশনের পূর্ব প্রান্তের পথ সরাসরি শিয়ালদহ দক্ষিণ শাখার প্ল্যাটফর্মের সঙ্গে যুক্ত থাকায় সেখানকার যাত্রীদের কাছে স্টেশনে পৌঁছনো অনেক স্বস্তির। এ বার উত্তরের যাত্রীদের ক্ষেত্রেও সেই সুবিধার দরজা অচিরে খুলতে চলেছে। সৌজন্যে, নতুন ভাবে তৈরি হওয়া একটি ভূগর্ভ পথ।

উল্লেখ্য, শিয়ালদহ উত্তর শাখার যাত্রীদের সহজে শিয়ালদহ আদালত এবং কোলে মার্কেটে পৌঁছনোর জন্য দু’দশক আগে সাড়ে ১০ মিটার চওড়া এবং ১৪৪ মিটার লম্বা একটি ভূগর্ভ পথ ছিল। শিয়ালদহ মেট্রো স্টেশনের পশ্চিম দিকের অংশ নির্মাণ করার সময়ে ওই পথের একাংশ (৬৪ মিটার) ভেঙে ফেলতে হয়। তার পরে বছর দুয়েক আগে উত্তর শাখার রেলযাত্রীদের কথা ভেবে ভূগর্ভ পথটিকে মেট্রো স্টেশনের সঙ্গে যুক্ত করার প্রক্রিয়া শুরু হয়। সেই কাজ সপ্তাহ দুয়েক আগে সম্পূর্ণ হয়েছে। নতুন ভাবে তৈরি এই ভূগর্ভ পথের দৈর্ঘ্য এখন দাঁড়িয়েছে ৮০ মিটার। এটি হওয়ার ফলে উত্তর শাখার যাত্রীদের সরাসরি মেট্রো স্টেশনে পৌঁছতে যেমন সুবিধা হবে, তেমনই যাঁরা মেট্রো থেকে নেমে উত্তর শহরতলির লোকাল ট্রেন ধরবেন, তাঁরাও ওই পথ ধরে এসে পৌঁছে যাবেন উত্তর শাখায়।

তবে, মেট্রো স্টেশনের সঙ্গে ভূগর্ভ পথের সংযুক্তিকরণের কাজ সম্পূর্ণ হলেও কবে সেটি সর্বসাধারণের জন্য খুলে দেওয়া হবে, তা নির্দিষ্ট ভাবে জানাতে পারেননি মেট্রোর আধিকারিকেরা। সূত্রের খবর, যাত্রী বাড়লে ওই ভূগর্ভ পথ ব্যবহারের জন্য খুলে দেওয়া হবে।

বাস্তবে মেট্রো স্টেশনের সঙ্গে সংযুক্তির অংশে এই ভূগর্ভ পথটি এক মিটারেরও বেশি নিচু। ফলে, ওই অংশে দু’টিকে মেলানোর জন্য কিছুটা ঢালু র‍্যাম্প তৈরি করতে হয়েছে। পাশাপাশি, ভূগর্ভ পথে যাতে পর্যাপ্ত পরিমাণে আলো এবং হাওয়া খেলতে পারে, তার জন্য রাখা হয়েছে বিশেষ ব্যবস্থা। একই সঙ্গে ওই অংশে একাধিক দোকান ভাড়া দিয়ে মেট্রোর আয় বৃদ্ধির পথও খোলা রাখা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোয় এখন দৈনিক যাতায়াত করেন ৫০ হাজারের কাছাকাছি যাত্রী। তাঁদের মধ্যে শিয়ালদহ স্টেশন থেকেই দৈনিক ২০ থেকে ২২ হাজার যাত্রী সফর করেন। যদিও তাঁদের বড় অংশই শিয়ালদহ দক্ষিণ শাখার। তবে, ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর শিয়ালদহ থেকে এসপ্লানেড পর্যন্ত অংশের কাজের ক্ষেত্রে বাধা ইতিমধ্যেই কাটার পথে। ফলে ভবিষ্যতে হাওড়া ময়দান থেকে সেক্টর ফাইভ পর্যন্ত পরিষেবা চালু হয়ে গেলে শিয়ালদহ স্টেশনে যাত্রীর সংখ্যা অনেকটাই বাড়বে। মেট্রোর আধিকারিকেরা মনে করছেন, সেই সময়ে উত্তরের এই ভূগর্ভ পথ গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠতে পারে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE