Advertisement
০২ ডিসেম্বর ২০২৩
Belpahari

মাওবাদী সেজে লাখ লাখ টাকা চেয়ে হুমকি দিতেন বাবা-ছেলে! মূলচক্রী-সহ বেলপাহাড়িতে ধৃত ৩

হুমকি পেয়ে প্রথম বার ওই হোমস্টে মালিক ৫২ হাজার টাকা পাঠান অনলাইনে। কিন্তু তার পরেও হুমকি ফোন আসতে থাকে। বাড়তে থাকে টাকার দাবিও।

3 arrested in Belpahari for posing as Maoists and claiming money

মাওবাদীর নাম শুনে ওই হোমস্টে মালিক এক বার ৫২ হাজার টাকা পাঠান অনলাইনে। —প্রতীকী চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
বেলপাহাড়ি শেষ আপডেট: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ২০:০৬
Share: Save:

মাওবাদীর নাম করে বার বার টাকা চেয়ে হুমকি দেওয়া হত বেলপাহাড়ির একটি হোমস্টের মালিককে। অবশেষে তার তার মূল পাণ্ডাকে গ্রেফতার করল পুলিশ। বেলপাহাড়ির ঘটনা। পুলিশ সূত্রে খবর, ধৃতের নাম অরূপ পাল। তাঁকে হুগলির আরামবাগ থেকে পাকড়াও করে বেলপাহাড়ি নিয়ে আসে পুলিশ। শুক্রবার অরূপকে ঝাড়গ্রাম আদালতে তোলা হলে টিআই প্যারেডের নির্দেশ দেন বিচারক।

পুলিশ সূত্রে খবর, কয়েক দিন আগে চিঠি দিয়ে এক হোমস্টে মালিকের কাছে টাকা চাওয়া হয়। জানানো হয়, মাওবাদী সংগঠনের তরফে এই টাকা চাওয়া হচ্ছে। চিঠিতে কাজ না হওয়ায় ফোনও করা হয়। তাতে টাকা না পেয়ে হোমস্টে মালিকের প্রাণনাশের হুমকি দেন এক জন। জানান, অতি সত্বর ১০ লক্ষ টাকা দিতে হবে। এর পর পুলিশের দ্বারস্থা হন ওই হোমস্টে মালিক। তদন্তে নেমে বাবা ও ছেলেকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

দেবীপ্রসাদ সরকার এবং তাঁর ছেলে অনুপমকে পূর্ব বর্ধমান জেলার ফতেপুর থেকে গ্রেফতার করার পর টানা জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ। তাঁদের সূত্র ধরে মূল পাণ্ডা অরূপের খোঁজ পায় পুলিশ। পুলিশ জানায়, অভিযুক্ত বাবা-ছেলের ফতেপুরে একটি মিষ্টির দোকান রয়েছে। তাঁরা পুলিশকে জানান, বেলপাহাড়ি থানার বাঁশপাহাড়ির বাসিন্দা একটি হোমস্টের মালিককে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে ১০ লক্ষ টাকা চেয়ে চিঠি পাঠানো হয়। এই হুমকি দিয়ে টাকা চাওয়ায় একটি চক্র কাজ করত। তার মাথা ওই অরূপ।

হুমকি পেয়ে প্রথম বার ওই হোমস্টে মালিক ৫২ হাজার টাকা পাঠান অনলাইনে। কিন্তু তার পরেও হুমকি ফোন আসতে থাকে। বাড়তে থাকে টাকার দাবিও। গত ৯ ফেব্রুয়ারি ওই হোমস্টে মালিক বেলপাহাড়ি থানায় অভিযোগ করেন। তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তে নেমে মোবাইলের টাওয়ার লোকেশন ‘ট্র্যাক’ করা শুরু করেন তদন্তকারীরা। তাতেই প্রথমে ধরা পড়েন বাবা-ছেলে।

পুলিশ জানিয়েছে, ওই চক্রটি বিভিন্ন প্রতারণামূলক কাজ করেছে। বেলপাহাড়ি যেহেতু মাওবাদী প্রভাবিত এলাকা বলে পরিচিত, তাই তাদের নাম নিয়ে হুমকিচিঠি এবং ফোন করা হত। এ নিয়ে বেলপাহাড়ির এসডিপিও উত্তম গড়াই বলেন, ‘‘অভিযোগের ভিত্তিতে মূলচক্রীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ধৃতকে হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। আমরা সবার উদ্দেশে বলব, প্রতারকদের ফাঁদে পা দেবেন না। পুলিশের কাছে আসুন। পুলিশ সব সময় মানুষের সঙ্গে আছে।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE