Advertisement
০৮ ডিসেম্বর ২০২২
বাড়ি ভাঙচুর, থানায় অভিযোগ

হেনস্থার মুখে শব্দ-প্রতিবাদী শিল্পী গৌরাঙ্গ

শিল্পীর অভিযোগ, প্রতিবাদের পুরস্কার হিসাবে কপালে জুটেছে গালিগালাজ, হেনস্থা ও হুমকি। অবশ্য তাতেও ক্ষান্ত হয়নি শব্দ-দৈত্যর অনুরাগীরা। অভিযোগ বাড়িতে ভাঙচুরও করা হয়েছে।

গৌরাঙ্গ কুইল্যা।

গৌরাঙ্গ কুইল্যা।

নিজস্ব সংবাদদাতা
নন্দকুমার শেষ আপডেট: ২৫ ডিসেম্বর ২০১৮ ০০:২১
Share: Save:

শব্দ-দূষণের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে রবিবারই এলাকার বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সদস্য, স্কুল-কলেজের পড়ুয়াদের নিয়ে পদযাত্রা করেছিলেন। কিন্তু সেই সচেতনতা যে অনেকেরই নেই, সেদিনই রাতে ভালই টের পেলেন তিনি, রাষ্ট্রপতি পুরস্কারপ্রাপ্ত শিল্পী গৌরাঙ্গ কুইল্যা। ভেবেছিলেন একটা সময় হয়তো বন্ধ হয়ে যাবে। কিন্তু তা না হওয়ায় তারস্বরে মাইকের তাণ্ডবে অতিষ্ঠ হয়ে প্রতিবাদ করেছিলেন। শিল্পীর অভিযোগ, প্রতিবাদের পুরস্কার হিসাবে কপালে জুটেছে গালিগালাজ, হেনস্থা ও হুমকি। অবশ্য তাতেও ক্ষান্ত হয়নি শব্দ-দৈত্যর অনুরাগীরা। অভিযোগ বাড়িতে ভাঙচুরও করা হয়েছে।

Advertisement

রবিবার রাতে ওই হামলার ঘটনায় নন্দকুমার থানায় তিনি লিখিত অভিযোগ করেছেন বলে জানিয়েছেন গৌরাঙ্গবাবু। অভিযোগে এক মহিলা-সহ ৬ জনের নাম রয়েছে বলে জানান তিনি। তবে রাত পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি বলে পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে খবর, তমলুক শহর থেকে কয়েক কিলোমিটার দূরে নন্দকুমার থানার বিরিঞ্চিবসান গ্রামে ওই দিন রাতে শীতলা মন্দির প্রাঙ্গণে জলসা চলছিল। অনুষ্ঠানে স্থানীয় শশাঙ্ক ভৌমিক নামে এক ব্যক্তির নাচের দল যোগ দিয়েছিল। উল্লেখ্য, থানায় করা অভিযোগে শশাঙ্করও নাম রয়েছে। গৌরাঙ্গবাবুর অভিযোগ, ‘‘বাড়ির লাগোয়া এলাকায় অনুষ্ঠানে তারস্বরে মাইক বাজছিল। রাতে আমি অনুষ্ঠানের উদ্যোক্তাদের ফোন করে মাইকের শব্দ কমানোর জন্য অনুরোধ করেছিলাম। কিন্তু তাতে গুরুত্ব না দেওয়ায় পুলিশের কাছে ফোনে অভিযোগ জানাই। পরে নন্দকুমার থানার পুলিশ এসে অনুষ্ঠান বন্ধ করে দেয়। পরে রাত ১২টা নাগাদ অনুষ্ঠানের আয়োজক-সহ ৩০-৪০ জনের একটি দল আমার বাড়িতে এসে হামলা চালায়।’’ তাঁর অভিযোগ, ‘‘হামলাকারীরা আমাকে গালিগালাজ করতে থাকে। আমার বাড়ির দরজা-জানলায় লাথি মারে। বাড়ির সামনে ফুল গাছের টব ভাঙচুর করে। বাড়িতে আমার বৃদ্ধ বাবা এবং মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী অসুস্থ মেয়ে ভয় পেয়ে যায়। আধ ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে তাণ্ডব চলে।’’

ঘটনায় একই সঙ্গে আতঙ্কিত এবং হতাশ শিল্পী বলেন, ‘‘শুধু আমার জন্য নয়, রাতে সকলের অসুবিধার কথা ভেবে জোরে মাইক বাজাতে নিষেধ করেছিলাম। তার জন্য যে এ ভাবে বাড়িতে হামলা হবে ভাবিনি। পরিবারের লোকদের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগে রয়েছি।’’

Advertisement

অনুষ্ঠানের আয়োজক অভিযুক্ত শশাঙ্ক ভৌমিকের একটি নাচের দল রয়েছে। তাঁর দাবি, ‘‘রবিবার রাতে অনুষ্ঠানের জন্য আমরা মাইক বাজিয়েছিলাম ঠিকই। তবে জোরে বাজানো হয়নি। আমাদের বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে মিথ্যা অভিযোগ করা হয়েছে। বাড়িতে হামলার অভিযোগও ঠিক নয়।’’

নন্দকুমার থানার পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.