Advertisement
০৩ মার্চ ২০২৪
Arrest

বিপুল পরিমাণে গাঁজা, নিষিদ্ধ কাশির সিরাপ-সহ প্রায় দু’কোটির সোনা উদ্ধার, পাঁচ মহিলা-সহ ধৃত আট

বিএসএফ সূত্রে জানা গিয়েছে, বিজয়পুরে ৩২ নম্বর বর্ডার পোস্টের ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) জওয়ানেরা এক গ্রামবাসীর বাড়িতে অবৈধ ভাবে সোনা লুকিয়ে রাখার খবর পান।

—প্রতীকী ছবি।

আনন্দবাজার অনলাইন সংবাদদাতা
কৃষ্ণগঞ্জ শেষ আপডেট: ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩ ১৮:৪০
Share: Save:

টানা দু’দিন সীমান্তরক্ষী বাহিনী, রাজস্ব গোয়েন্দা দফতর ও রাজ্য পুলিশের যৌথ অভিযানে নদিয়ার সীমান্ত গ্রাম বিজয়পুরে তল্লাশি চালিয়ে মোট ২৬টি সোনার বিস্কুট, আটটি সোনার চুড়ি, দেশি-বিদেশি মিলিয়ে দু’টি আগ্নেয়াস্ত্র, একটি ম্যাগাজিন, পাঁচটি কার্তুজ খোল, দু’কেজি গাঁজা ও ৬৯ বোতল নিষিদ্ধ কাশির সিরাপ ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়েছে। পাচারে যুক্ত থাকার অভিযোগে বিভিন্ন এলাকা থেকে পাঁচ মহিলা-সহ চার জনকে গ্রেফতার করেছে জেলা পুলিশ।

বিএসএফ সূত্রে জানা গিয়েছে, বিজয়পুরে ৩২ নম্বর বর্ডার পোস্টের ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) জওয়ানেরা এক গ্রামবাসীর বাড়িতে অবৈধ ভাবে সোনা লুকিয়ে রাখার খবর পান। কৃষ্ণগঞ্জ পুলিশের সহায়তায় ওই সন্দেহজনক বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে মোট ২৪টি সোনার বিস্কুট, আটটি সোনার চুড়ি উদ্ধার করা হয়। গ্রেফতা করা হয় দুই মহিলা-সহ মোট তিন জনকে। তল্লাশি অভিযান চালানোর সময় পাশের বাড়ির আরও এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়। তাঁর কাছ থেকে উদ্ধার হয় দু’টি সোনার বিস্কুট। সব মিলিয়ে এই অভিযানে ২৬টি সোনার বিস্কুট, আটটি সোনার চুড়ি বাজেয়াপ্ত করা হয়। যার ওজন ৩.৫২৫ কেজি এবং বাজারমূল্য প্রায় তিন কোটি টাকার কাছাকাছি।

ধৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করে শুরু হয় পরবর্তী দফায় তল্লাশি অভিযানের কাজ। বিএসএফ ও কৃষ্ণগঞ্জ পুলিশের সঙ্গে তদন্ত অভিযানে যুক্ত হয় রাজস্ব গোয়েন্দা দফতরের আধিকারিকেরা। জয়শ্রী প্রামাণিক নামে এক মহিলার বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে দু’কেজি গাজা উদ্ধার হয়। তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে রিতা প্রামানিক ও তাঁর স্বামী অমিত প্রামাণিককে আটক করে পুলিশ। অমিতকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে পাশের একটি চাষের জমিতে তল্লাশি চালিয়ে বিপুল পরিমাণ আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার হয়। ধৃত ব্যক্তিদের দফায় দফায় তল্লাশি চালিয়ে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে ফের তল্লাশিতে উদ্ধার হয় ২১ বোতল ফেনসিডিল ও ২৮ বোতল বিশেষ ধরনের নিষিদ্ধ কাশির সিরাপ। গ্রেফতার করা হয় আরও দু’জনকে। সব মিলিয়ে টানা তিন দিনের তল্লাশি অভিযানে পাঁচ মহিলা-সহ আট জনকে গ্রেফতার করে যৌথ বাহিনী। ধৃতেরা প্রত্যেকেই নদিয়ার সীমান্ত গ্রাম বিজয়পুরের বাসিন্দা বলে জানা গিয়েছে। ধৃতদের বিরুদ্ধে দীর্ঘ দিন অবৈধ ভাবে বাংলাদেশের সীমান্ত পেরিয়ে পাচারের অভিযোগ ছিল।

বিএসএফ দক্ষিণবঙ্গ ফ্রন্টিয়ারের ডিআইজি একে আর্য বলেন, ‘‘যে কোনও প্রকার পাচার আটকাতে বিএসএফ সদা তৎপর। রাজ্য পুলিশের রাজস্ব দফতরের সঙ্গে যৌথ অভিযানে বিএসএফের একটি অন্যতম সাফল্য।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE