Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৬ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

Fever: গত ২৪ ঘণ্টায় জ্বরে মুর্শিদাবাদে আক্রান্ত প্রায় ১০০ শিশু, প্রকোপ জলপাইগুড়িতেও

অজানা ভাইরাল জ্বরে মুর্শিদাবাদেও আক্রান্ত বহু শিশু। বিগত দু’দিন ধরেই মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভাইরাল জ্বরে আক্রান্ত শিশুদের সংখ্

নিজস্ব সংবাদদাতা
মুর্শিদাবাদ ও জলপাইগুড়ি ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০২:২০
Save
Something isn't right! Please refresh.


—ফাইল চিত্র।

Popup Close

জ্বরে মুর্শিদাবাদে আক্রান্ত বহু শিশু। গত দু’দিন ধরেই মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজে জ্বরে আক্রান্ত শিশুদের সংখ্যা বাড়ছে। গত ২৪ ঘণ্টাতেই ভর্তি করা হয়েছে ৮০ জনকে। তাদের নমুনা সংগ্রহ করেই পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। কান্দি মহকুমা হাসপাতালেও ভর্তি করা হয়েছে জ্বরে আক্রান্ত ৩০ শিশুকে।
জেলার মেডিক্যাল কলেজের এমএসভিপি অমিয়কুমার বেরা বলেন, ‘‘এই জ্বরে করোনার কোনও রকম প্রভাব নেই। প্রতি বছর পুজোর আগে ভাইরাল জ্বরে শিশুরা আক্রান্ত হয়। গত এক সপ্তাহে আক্রান্ত শিশুর সংখ্যা ১০০ ছাড়িয়েছে। তাদের মধ্যে ছ’জনের অবস্থা শুরুতে আশঙ্কাজনক হলেও আপাতত তারা সুস্থ।’’ চিকিৎসা পাওয়ার পর শিশুরা সুস্থ হয়ে উঠছে বলে জানানো হয়েছে।

মুর্শিদাবাদ-সহ গোটা রাজ্যে ভাইরাল জ্বরের প্রকোপে কড়া নজর রাখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য দফতরও। শুক্রবারই স্বাস্থ্য ভবন থেকে জলপাইগুড়ি সদর হাসপাতালের শিশু-বিভাগ পরিদর্শনে এসেছে পাঁচ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল। সেখানেও জ্বরে আক্রান্ত শিশুদের সংখ্যা প্রায় ১০০-র কাছাকাছি। আক্রান্তদের মধ্যে দু’জনের শরীরে ইনফ্লুয়েঞ্জা বি এবং আরএসভি পাওয়া গিয়েছে। কলকাতা থেকে আসা বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক রাজা রায় বলেন, ‘‘উদ্বেগের কোনও কারণ নেই। এটা মরসুমি জ্বর। প্রতি বছর এই সময় ভাইরাল জ্বরের প্রকোপ দেখা দেয়। জলপাইগুড়ি জেলা হাসপাতালের চিকিৎসা পরিষেবাও সন্তোষজনক।’’

Advertisement

ভর্তি হওয়া শিশুদের কেউই করোনায় আক্রান্ত নন বলে জানিয়েছেন ওই হাসপাতালের চিকিৎসক সুশান্ত কুমার রায়। তিনি বলেন, ‘‘প্রতি বছর ঋতু পরিবর্তনের এই সময়ে শিশুদের মধ্যে জ্বরের প্রকোপ বেশি দেখা দেয়। এই বছরও ব্যতিক্রম নয়। সদ্যোজাত থেকে তিন বছর বয়সের শিশুরাই বেশি আক্রান্ত হয়। পরিস্থিতি আগের চেয়ে অনেকটাই ভাল।’’



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement