Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

কান্দি জলপ্রকল্প

রাজ্যের বিরুদ্ধে অসহযোগিতার নালিশ অধীরের

পানীয়জল ও বন্যা নিয়ন্ত্রণের মাস্টার প্ল্যানের কাজ এখনও শুরু না হওয়ার জন্য রাজ্য সরকারকেই দুষলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী। শনিবার কা

নিজস্ব সংবাদদাতা
কান্দি ১২ এপ্রিল ২০১৫ ০১:৫১

পানীয়জল ও বন্যা নিয়ন্ত্রণের মাস্টার প্ল্যানের কাজ এখনও শুরু না হওয়ার জন্য রাজ্য সরকারকেই দুষলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী। শনিবার কান্দিতে পুরভোটের প্রচারে অধীরবাবু বলেন, “কান্দিতে গঙ্গা থেকে জল তুলে বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার কাজ শুরু হয়েছে। রাজ্য তো টাকা দিচ্ছে না, উল্টে ইঞ্জিনিয়ার দিয়েও সাহায্য করছে না। একই কারণে ২০১২ সালে কান্দিতে বন্যা নিয়ন্ত্রণের জন্য কেন্দ্র সরকার মাস্টার প্ল্যান করেছে সেই কাজও এখনও শুরু করতে পারেনি। এ সবের জন্য রাজ্য সরকারই দায়ী।”

পুরভোটের প্রচারে এ দিনই প্রথম কান্দিতে সভা করেন অধীর চৌধুরী। মোট ছয়টি জায়গায় সভা করেন তিনি। প্রত্যেক সভাতেই তিনি রাজ্য সরকারের বঞ্চনার প্রসঙ্গ তুলে ধরেন। তিনি বলেন, “১৮৬৭ সালে পুরসভা হিসাবে স্বীকৃতি পেলেও এখনও কান্দি চতুর্থ শ্রেণির পুরসভা হিসেবে থেকে গিয়েছে। তাকে উন্নিত করার কোনও চেষ্টা করেনি রাজ্য সরকার।’’ তাঁর আক্ষেপ, ‘‘আমাদের সাধ আছে কিন্তু সাধ্য নেই। কারণ, চতুর্থ শ্রেণির পুরসভা হিসেবে যে সরকারি বরাদ্দ মেলে তাতে তেমন উন্নয়ন করা যায় না।” তিনি আরও বলেন, ‘‘কান্দি বরাবর কংগ্রেস ক্ষমতায় আছে। সে কারণে বাম জমানাতে লালাবাড়িতে বসে বাম সরকার যে ভাবে কান্দি পুরসভাকে বঞ্চিত করেছে ঠিক একই কায়দায় বর্তমান সরকারও কান্দিকে বঞ্চিত করছে।” তবে তাঁর দাবি, একটি চতুর্থ শ্রেণির পুরসভা হয়েও কান্দিতে যে ভাবে উন্নয়ন হয়েছে তা সমগোত্রীয় অন্য কোনও পুরসভায় হয়নি। যদি হয়ে থাকে তবে সেটি একবার ঘুরে দেখার ইচ্ছা প্রকাশ করেন তিনি।

২০০৯ সালে কান্দিতে জওহরলাল নেহরু আর্বান রিঅ্যানুয়্যাল মিশনের মাধ্যমে বাসিন্দাদের গঙ্গা থেকে জল তুলে তা বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার কাজ শুরু হয়েছে। সেই কাজ এখনও শেষ হয়নি। ওই জল প্রকল্প প্রসঙ্গে অধীরবাবুর ব্যখ্যা, ‘‘কান্দি শহর থেকে প্রায় ৩০ কিলোমিটার দূরে প্রায় ৬৫ ফুট নীচে গঙ্গা নদী রয়েছে। সেখানে থেকে জল তুলতে যে পরিকল্পনা ও পরিকাঠামোর প্রয়োজন, সেটা একটা পুরসভার অধীনে থাকার কথা নয়। অধীরবাবু বলেন, “রাজ্য সরকারকে ওই প্রকল্পের জন্য কোনও আর্থিক সাহায্য করতে হবে না। সেটা আমরা কেন্দ্রের কাছ থেকে এনেছি। শুধু বলছি আপনারা ইঞ্জিনিয়ার দিয়ে সঠিক সময়ে কাজটা করুন। কিন্তু সেই সাহায্যটুকুও রাজ্য সরকার করছে না।” একই ভাবে কান্দিতে বন্যা নিয়ন্ত্রণের জন্য কেন্দ্র সরকার মাস্টার প্ল্যানের জন্য ৪২৯ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে। এলাকার মানুষের স্বার্থে রাজ্য সরকার ওই মাস্টার প্ল্যানের কাজ শুরু করতে টালবাহানা করছে শাসক দল বলে তাঁর দাবি। তিনি বলেন, “আমাদের বিধায়করা ছুটোছুটি করে এবার ওই প্রকল্পের কাজের টেন্ডার করাতে পেরেছে।”

Advertisement

সব শেষে অধীর চৌধুরী বলেন, “আমরা যেটা পারিনি সেটা বললাম। আর কেন পারিনি সেটাও বললাম। এর পরে যদি আপনারা মনে করেন এটা আমাদের ব্যার্থতা তা হলে আমাদের ভোট দেবেন না। তবে আপনারা আমাকে ও আমাদের দলকে অনেক দিয়েছেন। বারবার ভোট ভিক্ষা দিয়ে আমাদের জনপ্রতিনিধি করেছেন।”

আরও পড়ুন

Advertisement