×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৮ জুন ২০২১ ই-পেপার

অভিযোগ জানাতে অ্যাপ পুরসভার

নিজস্ব সংবাদদাতা
কান্দি ১৯ জুলাই ২০১৮ ০০:৩৪

এ বার পরিষেবাতেও পরিবর্তন ঘটাতে উদ্যোগী কান্দি পুরসভা। বাড়ির পাশে নর্দমার নোংরা জল উপচে বয়ে যাচ্ছে—এ জন্য আর সাদা কাগজে পুরপ্রধানের কাছে আবেদনপত্র লিখে জমা দিতে হবে না। পুরসভার নিজস্ব হোয়াটসঅ্যাপ চালু করতে উদ্যোগী হয়েছেন কান্দি পুরসভা কর্তৃপক্ষ।

শহরের উন্নয়নকে পুরবাসীদের মধ্যে তুলে ধরতে ও পুরবাসীরা ওই গ্রুপের মধ্যে পরিষেবা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে দাবি জানাতে পারবেন। শহরে বর্ষায় কোথাও রাস্তায় জল জমে যাতায়াত করতে অসুবিধা হচ্ছে। সেটা কাউন্সিলরদের গোচরে আসার আগেই পুর-নাগরিক যদি ওই গ্রুপে তা পোস্ট করে সে ক্ষেত্রে পুরসভা দ্রুত জল নিকাশির ব্যবস্থা করতে তৎপর হবে। একই ভাবে এলাকায় পথবাতি দীর্ঘদিন ধরে জ্বলছে না, নলকূপ বিকল হয়ে পড়ে, পাইপ লাইনের পাইপ ফুটো হয়ে পানীয় জল পৌঁছচ্ছে না—ওই গ্রুপে বাসিন্দারা সরাসরি আবেদন জানাতে পারবে। বাড়িতে কেউ অসুস্থ হয়ে পড়লে অ্যাম্বুল্যান্সের প্রয়োজন, গ্রুপে জানালে বাড়ির সামনে অ্যাম্বুল্যান্স হাজির হয়ে যাবে।

কান্দি পুরসভার পরিষেবা মূলক নানা অভিযোগ জানানো ছাড়াও ওই গ্রুপে এলাকায় কেউ পুর-প্রশাসন বা পুলিশের নজর এড়িয়ে গোপনে অসামাজিক কাজ করছে বা শহরের শান্তি-শৃঙ্খলা বিঘ্নিত করার চেষ্টা করছে— সে সমস্ত কিছুই ওই গ্রুপে পোস্ট করলে ব্যবস্থা নেবে পুরসভা। শহরের বহু পুরনো ভগ্নপ্রায় বাড়িতে সন্ধ্যার পর অসামাজিক কাজ হয়। রাতে মাদক দ্রব্যের কারবার চলে। সব সময় বিষয় গলি পুলিশের নজরে আসে না। আবার স্থানীয় বাসিন্দারা নিজেদের অশান্তি থেকে সরিয়ে রাখতে পুলিশে অভিযোগ জানান না। পুরসভায় ওই গ্রুপে সাধারণ মানুষরা নির্ভয়ে সে সব জানাতে পারবেন। সে ক্ষেত্রে অভিযোগকারীর নাম গোপন রাখা হবে বলে পুরসভা সূত্রে খবর।

Advertisement

ওই নতুন হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপটির জন্য সব ধরনের প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গিয়েছে। পুরসভার তিন কর্মী গ্রুপটি সামলাবেন। ওই তিন কর্মী পুরসভার নানা দফতরে খবর দিয়ে সমন্বয়ের কাজ করে পরিষেবা ঘাটতি দূর করবেন। ওই গ্রুপটি রাত দু’টো পর্যন্ত কার্যকর হবে। পরে সময়সীমা বাড়ানো হবে বলে জানান পুরকর্তৃপক্ষ। কান্দি পুরসভার পুরপ্রধান তৃণমূলের অপূর্ব সরকার বলেছেন, “সাধারণ মানুষ আগের থেকে বেশি ব্যস্ত। সোশ্যাল মিডিয়ার উপর নির্ভরশীল। ফলে পুরসভাকেও পরিষেবা বাড়াতে হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ চালু করতে হচ্ছে। পুরসভার ফেসবুক পেজেরও ভাবনাচিন্তা রয়েছে। এতে শহরের সাধারণ মানুষ নানা দরকারে বাড়িতে বসেই পুরসভার সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারবেন। এবং তাঁদের নানা সমস্যার কথাও জানাতে পারবেন।”

Advertisement