Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৬ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

ভয় দেখাচ্ছে তৃণমূল! মোদীর সভায় যাবেন ক’জন, গোপন রাখছে বিজেপি

বিজেপির পাল্টা অভিযোগ, মোদীর সভার জন্য প্রস্তুতি শুরু করতেই জেলার বিভিন্ন জায়গায় বাস মালিকদের হুমকি দিতে শুরু করেছে তৃণমূল।

পার্থ চক্রবর্তী
আলিপুরদুয়ার ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ ০২:৩৪
Save
Something isn't right! Please refresh.
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

Popup Close

ময়নাগুড়িতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর জনসভায় কত লোক যাবেন, আচমকাই সেই তথ্য গোপন রাখার সিদ্ধান্ত নিলেন বিজেপির আলিপুরদুয়ার জেলা নেতারা।

বিজেপির জেলা নেতাদের একাংশের অভিযোগ, ইতিমধ্যেই বিভিন্ন এলাকায় বাস মালিকদের হুমকি দিতে শুরু করেছে তৃণমূলের লোকেরা। এই পরিস্থিতিতে কোন মণ্ডল থেকে কত লোক যাবেন, তা আগাম জেনে গেলে সেই হুমকি আরও বাড়বে। তাই মুখে কুলুপ আঁটার সিদ্ধান্ত। যদিও জেলার তৃণমূল নেতাদের অবশ্য কটাক্ষ, প্রধানমন্ত্রীর জনসভায় নিয়ে যাওয়ার মতো লোক খুঁজে না পেয়েই এমন সব গল্প প্রচার করছেন বিজেপির জেলা নেতারা।

মাঝে আর একদিন। তার পরই জলপাইগুড়ি জেলার ময়নাগুড়িতে জনসভা করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেই সভায় বিশেষ ভাবে গুরুত্ব পাবে আলিপুরদুয়ার। স্থানীয় বিজেপি নেতাদের কেউ কেউ ঘরোয়া আলোচনায় বলছেন, এই আসনই তো জেতাতে পারে বিজেপিকে। তাই আদর তো বেশি হবেই!

Advertisement

কিন্তু সেই জেলা থেকেই যদি লোকজন বেশি না হয়? বিজেপির একটি সূত্রের দাবি, তৃণমূলের হুমকি, হুঁশিয়ারিতে এমনটা ঘটতেই পারে। তার থেকে বরং একটু ঢাকঢাক গুরগুর থাকা ভাল। তা হলে যাওয়ার দিন পর্যন্ত কেউ জানতে পারবে না, আদতে কারা যাচ্ছে।

তাই আলিপুরদুয়ার জেলার কোন মন্ডল থেকে কত জন ময়নাগুড়িতে যাবেন, তা নিয়ে মঙ্গলবার রাত পর্যন্ত চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে পৌঁছতে পারেননি দলের জেলা নেতারা। বুধবার বিভিন্ন মণ্ডল থেকে সেই হিসেব জেলা পার্টি অফিসে আসতে শুরু করে। তার পরই মুখে কুলুপ আঁটেন বিজেপি নেতারা।

স্বাভাবিকভাবেই যা নিয়ে বিজেপি নেতাদের দিকে কটাক্ষ ছুড়ে দিতে শুরু করেছেন তৃণমূলের জেলা নেতারা। শাসকদলের এক নেতার কথায়, গোটা আলিপুরদুয়ার জেলায় বিজেপির পায়ের নীচ থেকে মাটি সরে গিয়েছে। তাঁরা লোক খুঁজে পাচ্ছেন না ময়নাগুড়ি পাঠানোর জন্য। তাই মুখে কুলুপ এঁটেছেন।

যদিও বিজেপির পাল্টা অভিযোগ, মোদীর সভার জন্য প্রস্তুতি শুরু করতেই জেলার বিভিন্ন জায়গায় বাস মালিকদের হুমকি দিতে শুরু করেছে তৃণমূল। ফলে অনেক বাসমালিকই কথা দিয়েও বাস ভাড়া দিতে পিছিয়ে যাচ্ছেন। অনেক জায়গায় নেতা-কর্মীদের হুমকির মুখেও পড়তে হচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে কোন মণ্ডল থেকে কত লোক ময়নাগুড়িতে যাবেন, তা তাঁরা গোপন রাখতে চাইছেন। বিজেপির জেলা সাধারণ সম্পাদক জয়ন্ত রায় বলেন, ‘‘রাজনৈতিক কারণেই আলিপুরদুয়ার থেকে কত লোক ময়নাগুড়ি যাবেন, তা আমরা এই মুহূর্তে জানাতে চাইছি না।”

গত মঙ্গলবারই বিজেপির জেলা সভাপতি গঙ্গাপ্রসাদ শর্মা বলেছিলেন, আলিপুরদুয়ার থেকে এক লক্ষ মানুষ ময়নাগুড়িতে প্রধানমন্ত্রীর সভায় যাবেন৷ এদিনও জেলার বিজেপি নেতারা দাবি করেন, ময়নাগুড়িতে জেলা থেকে লোক ভালি যাবে৷ মাদারিহাটের বিজেপি বিধায়ক মনোজ টিজ্ঞা বলেন, “জেলা থেকে মোট কত লোক ময়নাগুড়িতে যাবেন তা এক্ষুনি বলতে না পারলেও, এটুকু বলতে পারি জেলার সব বুথ থেকেই মানুষ প্রধানমন্ত্রীর জনসভায় যোগ দেবেন৷”

তৃণমূলের জেলা সভাপতি মোহন শর্মা বলেন, ‘‘নিজের জেলায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর মতো একজন ওজনদার নেতার সভায় যেখানে বিজেপি নেতারা চার হাজারের বেশি মানুষ জড়ো করতে পারেন না, সেখানে অন্য জেলার তাঁরা কত লোক নিতে পারবেন, তা সবাই বোঝেন।”

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement