Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৪ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

হামলায় বিরোধীদের হাতই দেখছেন নির্মল

তৃণমূল প্রভাবিত চিকিত্সক সংগঠন প্রোগ্রেসিভ ডক্টর অ্যাসোসিয়েশনের (পিডিএ) রাজ্য সভাপতির দায়িত্বেও রয়েছেন তিনি। ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসেসিয়েশন

নিজস্ব সংবাদদাতা
রায়গঞ্জ ২৬ নভেম্বর ২০১৭ ০২:৩৩
নির্মল মাজি।—ফাইল চিত্র।

নির্মল মাজি।—ফাইল চিত্র।

উত্তর দিনাজপুর জেলার বিভিন্ন সরকারি হাসপাতাল ও স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভাঙচুর ও চিকিত্সকদের উপর হামলার ঘটনায় বিরোধীদের প্ররোচনা ও মদত রয়েছে বলে অভিযোগ তুললেন বিধানসভার স্বাস্থ্য বিষয়ক স্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান নির্মল মাজি। তৃণমূল প্রভাবিত চিকিত্সক সংগঠন প্রোগ্রেসিভ ডক্টর অ্যাসোসিয়েশনের (পিডিএ) রাজ্য সভাপতির দায়িত্বেও রয়েছেন তিনি। ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসেসিয়েশনের একটি অনুষ্ঠান ও পিডিএর বৈঠকে যোগ দিতে শনিবার রায়গঞ্জে আসেন নির্মলবাবু।

এ দিন বিকালে রায়গঞ্জ জেলা ও সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতাল পরিদর্শন করেন তিনি। পরে সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালের সভাকক্ষে উত্তর দিনাজপুরের মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক প্রকাশ মৃধা, হাসপাতাল সুপার গৌতম মণ্ডল, পিডিএর জেলা সভাপতি কমল সরকার, সম্পাদক সোমনাথ চট্টোপাধ্যায় সহ হাসপাতালের চিকিত্সকদের একাংশের সঙ্গে বৈঠক করেন নির্মলবাবু। প্রসঙ্গত, গত একমাসে চিকিত্সায় গাফিলতির জেরে রোগী মৃত্যুর অভিযোগকে কেন্দ্র করে রায়গঞ্জ জেলা হাসপাতাল, ইসলামপুর মহকুমা হাসপাতাল, করণদিঘি গ্রামীণ হাসপাতাল ও ইটাহার ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভাঙচুর চালানোর অভিযোগ ওঠে মৃতদের পরিজন ও প্রতিবেশীদের বিরুদ্ধে। করণদিঘি গ্রামীণ হাসপাতাল ও ইটাহার ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রের দুই চিকিত্সককে মারধর করারও অভিযোগ ওঠে। এ দিন ওই স্বাস্থ্যকেন্দ্রে গিয়ে নিগৃহিত চিকিত্সক তণ্ময় পালের সঙ্গে কথা বলেন নির্মলবাবু। তাঁর দাবি, বাম আমলে এ রাজ্যে চিকিত্সা পরিষেবা ধ্বংস হতে বসেছিল। তৃণমূল রাজ্যে ক্ষমতায় আসার পর এ রাজ্যে চিকিত্সা পরিষেবার সার্বিক উন্নয়ন হয়েছে। বিরোধীরা এটা মেনে নিতে পারছে না। তাই বিভিন্ন হাসপাতাল ও স্বাস্থ্যকেন্দ্রে বিরোধীদের প্ররোচনা ও মদতে ভাঙচুর ও চিকিত্সকদের উপর হামলার ঘটনা ঘটছে। উত্তর দিনাজপুরের ক্ষেত্রেও একই ঘটনা ঘটেছে।

স্বাস্থ্য দফতরের কর্তাদের একাংশের বিরুদ্ধেও রাজনৈতিক ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তুলেছেন নির্মলবাবু। তিনি বলেন, দফতরের কিছু কর্তা রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র করে রাজ্যজুড়ে চিকিত্সকদের উপর দমন নীতি চালাচ্ছেন। চিকিত্সকদের অন্যায়ভাবে শো-কজ ও বদলি করা হচ্ছে। এ সব কর্তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সংগঠনের তরফে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে দাবি জানানো হচ্ছে। পাশাপাশি, সুষ্ঠ চিকিত্সা পরিষেবার স্বার্থে সংগঠনের তরফে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে রাজ্যের সমস্ত জেলার চিকিত্সকদের মহকুমা বা জেলার বিভিন্ন সরকারি হাসপাতাল বা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে বদলি করার দাবি জানানো হবে বলে দাবি নির্মলবাবু।

Advertisement

বিজেপির জেলা সহ সভাপতি পবিত্র চন্দ, জেলা বামফ্রন্টের চেয়ারম্যান অপূর্ব পাল ও কংগ্রেসের জেলা সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য তুষার গুহ পৃথকভাবে হলেও একই সুরে দাবি করেছেন, রাজ্যে চিকিত্সা পরিষেবা ভেঙে পড়েছে। ডেঙ্গিতে বহু মানুষ মারা গিয়েছেন। অথচ রাজ্য সরকার ডেঙ্গি ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। মানুষ সবই বোঝেন। পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে সরকারি ক্ষমতাকে কাজে লাগিয়ে রাজনৈতিক স্বার্থে নির্মলবাবু সাধারণ মানুষকে ভুল বোঝানোর চেষ্টা করছেন।



Tags:
State Government Nirmal Majiনির্মল মাজি

আরও পড়ুন

Advertisement