Advertisement
২৬ নভেম্বর ২০২২
Kolkata High Court

Suvendu Adhikari: শুভেন্দুর দরজা, জানালায় সিসিটিভি, নেতাইয়ে ঢুকতে বাধা, রাজ্যের কাছে রিপোর্ট চাইল হাই কোর্ট

বিল্বদল ভট্টাচার্য বলেন, ‘‘রাজ্যের বিরোধী দলনেতাকে নিয়ে উদাসীন রাজ্য। আদালতের নির্দেশের পরও অনেক ক্ষেত্রে তা মানা হচ্ছে না।"

গ্রাফিক: সৌভিক দেবনাথ

গ্রাফিক: সৌভিক দেবনাথ

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ১০ জানুয়ারি ২০২২ ১৩:৩৬
Share: Save:

কলকাতা হাই কোর্টের অনুমতি পরেও তাঁকে লালগড়ের নেতাইয়ে ঢুকতে দেয়নি পুলিশ। যথাযথ নিরাপত্তার ব্যবস্থাও করা হয়নি। এমনই অভিযোগ তুলে ফের কলকাতা হাই কোর্টের দ্বারস্থ হলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। একই সঙ্গে উচ্চ আদালতকে তিনি জানান, তাঁর বাড়ির উপর অতিরিক্ত নজরদারি চালাচ্ছে রাজ্য। সোমবার শুভেন্দুর এই অভিযোগের ভিত্তিতে রাজ্যের কাছে রিপোর্ট তলব করল উচ্চ আদালত। বিচারপতি রাজাশেখর মান্থার নির্দেশ, এক সপ্তাহের মধ্যে ওই বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য আদালতে জমা দিতে হবে। ১৯ জানুয়ারি এই মামলার পরবর্তী শুনানি রয়েছে।

Advertisement

কলকাতা হাই কোর্টের অনুমতি নিয়ে গত সপ্তাহে শহিদ স্মরণ কর্মসূচিতে নেতাই যান শুভেন্দু। তার পর শহিদ পরিবারগুলির সঙ্গে দেখা করতে চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু সেখানে পুলিশের বিরুদ্ধে বাধা দেওয়ার অভিযোগ তোলেন বিরোধী দলনেতা। আদালতের অনুমতির পরেও কেন ওই গ্রামে ঢুকতে দেওয়া হল না এই অভিযোগ তুলে ফের হাই কোর্টে আবেদন করেন তিনি। সোমবার ছিল ওই মামলার শুনানি। শুভেন্দুর আইনজীবী বিল্বদল ভট্টাচার্য বলেন, ‘‘রাজ্যের বিরোধী দলনেতাকে নিয়ে উদাসীন রাজ্য। আদালতের নির্দেশের পরও অনেক ক্ষেত্রে তা মানা হচ্ছে না।"

পাশাপাশি আদালতে তিনি জানান, শুভেন্দুর কাঁথির বাড়ির সামনে মাঝ রাত অবধি উচ্চস্বরে মাইক বাজানো হচ্ছে। নজরদারির জন্য বাড়ির দরজা, জানালা লক্ষ্য করে সিসিটিভি লাগানো হয়েছে। এর পরই রাজ্যের বক্তব্য জানতে চান বিচারপতি মান্থা। উত্তরে রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেল সৌমেন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায় জানান, বিরোধী দলনেতার নিরাপত্তা নিয়ে রাজ্য হলফনামা দিয়ে আদালতে জানাবে। এর পরই বিচারপতি এক সপ্তাহ সময় দেন রাজ্যকে।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.