Advertisement
২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২
suri

Online Fraud: ২ টাকার পুরনো নোট মোটা টাকায় বেচতে গিয়ে ৫০ হাজার খোয়ালেন সিউড়ির তরু‌ণী

সৃজনীর দাবি, নোটটির ছবি আপলোড করার সঙ্গে সঙ্গে তা কেনার জন্য ইমেল পান। একটি ব্যাঙ্কের মাধ্যমে তাঁকে ১ লক্ষ টাকাও দিতে রাজি ওই ইমেল প্রেরক।

প্রতারণার শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ সিউড়ির সৃজনী বিশ্বাস।

প্রতারণার শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ সিউড়ির সৃজনী বিশ্বাস। —নিজস্ব চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
সিউড়ি শেষ আপডেট: ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১৯:২২
Share: Save:

২ টাকার পুরনো একটি নোট ১ লক্ষ টাকায় বেচতে চেয়েছিলেন। উল্টে প্রতারকদের খপ্পরে পড়ে খোয়া গেল ৫০ হাজার টাকা। অনলাইনে এমনই প্রতারণার শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ বীরভূমের সিউড়ির এক তরুণীর।

অনলাইনে হাজার হাজার টাকা খুইয়ে পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছেন সিউড়ির মল্লিকগুনা পাড়ার বাসিন্দা সৃজনী বিশ্বাস। ওই কলেজপড়ুয়া জানিয়েছেন, পুরনো নোট কেনাবেচা করা হয়, এমন একটি ওয়েবসাইটে ওই ২ টাকার নোটের ছবি আপলোড করেছিলেন। তার দাম রেখেছিলেন ১ লক্ষ টাকা।

সৃজনীর দাবি, নোটটির ছবি আপলোড করার প্রায় সঙ্গে সঙ্গে তা কেনার জন্য একটি ইমেল পান। আমেরিকার একটি ব্যাঙ্কের মাধ্যমে তাঁকে ১ লক্ষ টাকাও দিতে রাজি বলে জানান ওই ইমেল প্রেরক। তবে শর্ত ছিল, ১ লক্ষ টাকা পেতে সৃজনীকে পাঁচ হাজার টাকা দিতে হবে। আমেরিকান ডলারকে ভারতীয় মুদ্রায় বদল করার মূল্য হিসাবেই ওই টাকা চাওয়া হয় জানিয়েছিল ইমেল প্রেরক। এমনকি, সৃজনীর সঙ্গে মোবাইলে যোগাযোগ করে একটি হোয়াটসঅ্যাপ নম্বরে ওই ২ টাকার নোটটির ছবি তুলেও পাঠাতে বলা হয়। তাতে রাজি হয়ে ইমেল প্রেরককে নোটটির ছবি তুলে হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে পাঠিয়ে দেন সৃজনী। এর পর পাঁচ হাজার টাকাও অনলাইনে পাঠিয়ে দেন তিনি। যদিও ১ লক্ষ টাকা কখনই হাতে পাননি বলে তাঁর অভিযোগ। উল্টে সৃজনীর কাছ থেকে দফায় দফায় ৫০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেওয়া হয় বলেও দাবি।

প্রতারণার শিকার হয়েছেন বুঝতে পেরে অবশেষে সোমবার সিউড়ি থানার দ্বারস্থ হন সৃজনীর বাবা। তবে তত দিনে নিজের পকেট থেকে খোয়া গিয়েছে হাজার হাজার টাকা। সোমবার এই প্রতারণার অভিযোগ পেয়ে তদন্তে নেমেছে সিউড়ি থানার পুলিশ। যদিও এখনও পর্যন্ত ওই প্রতারকের হদিশ পাননি তদন্তকারীরা।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.