Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied

আন্তর্জাতিক

স্কটল্যান্ডে রয়েছে আরও একটি পটনা, জানতেন?

নিজস্ব প্রতিবেদন
০১ এপ্রিল ২০১৮ ১৫:৫১
পটনা কোথায় অবস্থিত? এক বাক্যে সকলে উত্তর দেবেন বিহার। আর যদি ইউরোপবাসীদের জিজ্ঞাসা করা হয়? উত্তর কিন্তু ভিন্ন হতে পারে। তাঁরা হয়ত উত্তর দিলেন স্কটল্যান্ড! কী ভাবছেন, ভুল উত্তর। এর মধ্যে কিন্তু কোনও ভুল নেই। কারণ স্কটল্যান্ডেরও রয়েছে আরও একটা পটনা। সম্প্রতি সেখানে বিহার দিবসও পালিত হয়েছে। স্কটল্যান্ডে পটনা এল কী ভাবে? কী রহস্য লুকিয়ে রয়েছে এই নামের মধ্যে?

এই দুই পটনার মধ্যে ভৌগোলিক দূরত্ব ৭,৬১৬ কিলোমিটার। কিন্তু ভৌগোলিক দূরত্ব অনেকটা হলেও বেশ মিল রয়েছে এই দুই পটনার মধ্যে। গ্লাসগো থেকে ৭২ কিলোমিটার দূরে আয়ারশায়ারের দুন নদীর তীরে অবস্থিত স্কটল্যান্ডের পটনা। ঠিক যেমন গঙ্গা নদীর তীরে অবস্থিত বিহারের পটনা। তবে বিহারের মতো একেবারেই ঘিঞ্জি নয় এই স্কটিশ গ্রাম। মাত্র ২১৭৯ জন লোকের বাস এই গ্রামে। যেখানে বিহারের পটনার জনসংখ্যা ২০ লক্ষের মতো।
Advertisement
ভারত থেকে এত দূরে কী ভাবে প্রতিষ্ঠা হল আর একটা পটনার? ১৯৭২ সালে প্রকাশিত ঐতিহাসিক জন মুরে-র বই ‘জেন্টলি ফ্লোস দ্য দুন’-এ এর উল্লেখ রয়েছে। সেই তথ্য অনুসারে, স্কটিশ পটনার প্রতিষ্ঠাতা উইলিয়াম ফুলারটন। উইলিয়ামের বাবা জন ফুলারটন ব্রিটিশ ইস্ট-ইন্ডিয়া কোম্পানির সেনা ছিলেন। বিহারে তিনি কাজ করতেন। উইলিয়ামের কাকা ছিলেন কলকাতার ফোর্ট উইলিয়ামের সেনাকর্তা।

১৭৭৪ সালে বিহারের পটনায় জন্ম হয় উইলিয়ামের। ছেলেবেলা, পড়াশোনা সবটাই তাঁর এখানেই। ১৮০২ সালে তিনি ব্যবসার তাগিদে স্কটল্যান্ডে চলে আসেন। দুন নদীর ধারে খনির ব্যবসা শুরু করেন। দুন নদীর তীরে প্রচুর কয়লা এবং চুনাপাথরের সম্ভার ছিল। যে সমস্ত শ্রমিক এই খনিতে কাজ করতেন, তাঁদের থাকার ব্যবস্থা করার জন্য গ্রাম গড়ে তোলেন উইলিয়াম। জানা যায়, উইলিয়াম পটনার সংস্কৃতির সঙ্গে এতটাই মিশে গিয়েছিলেন যে তিনি স্কটল্যান্ডে ওই গ্রামটার নাম রাখেন পটনা।
Advertisement
তবে শুধু নাম রেখেই ক্ষান্ত হননি তিনি। পটনার সংস্কৃতিও শেখাতে শুরু করেন গ্রামবাসীদের। তার জন্য পটনা প্রাইমারি স্কুল গড়ে তোলেন। সেখানে বিহারের পটনা সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য শেখানো হয় পড়ুয়াদের। তাই বিহারের পটনার বাসিন্দারা স্কটল্যান্ডের পটনার কথা না জানলেও, স্কটল্যান্ডের পটনাবাসীরা কিন্তু বিহারের পটনার কথা খুব ভালভাবে জানেন।

এ ছাড়াও তিনি পটনা অল্ড নামে একটি সেতু তৈরি করেছিলেন। ১৫৫ বছর ধরে যা চালু ছিল। ১৯৬০ সালে নতুন সেতু তৈরি হলে পুরনো সেতুটিকে বন্ধ রাখা হয়েছে। পটনা চার্চ, পটনা গল্ফ ক্লাব, পটনা কমিউনিটি সেন্টার, পটনা ইউথ গ্রুপ গড়ে উঠেছে।

Tags: পটনা