Advertisement
২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২
Narendra Modi

শুধু মোদীই পারেন রাশিয়া এবং ইউক্রেনের মধ্যে শান্তি ফেরাতে! রাষ্ট্রপুঞ্জের সভায় বলল মেক্সিকো

নিউ ইয়র্কে রাষ্ট্রপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে মেক্সিকোর মন্ত্রী বলেন, “মেক্সিকো বিশ্বাস করে, শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য (রাশিয়া এবং ইউক্রেনের মধ্যে) আন্তর্জাতিক মহল উপযুক্ত পদক্ষেপ করবে।”

ইউক্রেন যুদ্ধের অবসান ঘটাতে পারে মোদীই, মনে করছে মেক্সিকো।

ইউক্রেন যুদ্ধের অবসান ঘটাতে পারে মোদীই, মনে করছে মেক্সিকো। ফাইল চিত্র।

সংবাদ সংস্থা
নিউ ইয়র্ক শেষ আপডেট: ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৮:১৯
Share: Save:

রাশিয়া এবং ইউক্রেনের মধ্যে বিরোধের অবসান ঘটাতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদীর শরণাপন্ন হওয়ার কথা বলল মেক্সিকো! মেক্সিকোর বিদেশমন্ত্রী মার্সেলো লুইস এবরার্ড ক্যাসুবোন রাষ্ট্রপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদের ইউক্রেন সংক্রান্ত আলোচনায় জানালেন, রাশিয়া এবং ইউক্রেনের মধ্যে চলতি দ্বন্দ্বের অবসান ঘটাতে পারেন মোদীই। তবে শুধু মোদী নন, যুযুধান দুই দেশের মধ্যে মধ্যস্থতা করতে পোপ ফ্রান্সিস এবং রাষ্ট্রপুঞ্জের মহাসচিব আন্তোনিয়ো গুতেরেসকেও এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

প্রসঙ্গত, কিছু দিন আগেই রাশিয়ার সমরখন্দে সাংহাই কোঅপারেশন অর্গানাইজেশনের সম্মেলনে পুতিনের সঙ্গে আলাদা পার্শ্ববৈঠক করেছিলেন নরেন্দ্র মোদী। বৈঠকে মোদী পুতিনকে বলেন, ‘‘এখন যুদ্ধের যুগ নয়।” পুতিন এবং রাশিয়ার প্রতি মোদীর এই ‘মনোভাব’ প্রকাশ্যে আসার পরেই আমেরিকা-সহ পশ্চিমী বিশ্বের দেশগুলি মোদীর এই বক্তব্যকে স্বাগত জানায়। সেই সূত্রেই মেক্সিকোর বিদেশমন্ত্রীর এই বক্তব্যকে তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করেছেন তথ্য অভিজ্ঞ মহলের একাংশ।

নিউ ইয়র্কে রাষ্ট্রপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে মেক্সিকোর মন্ত্রী বলেন, “মেক্সিকো বিশ্বাস করে, শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য (রাশিয়া এবং ইউক্রেনের মধ্যে) আন্তর্জাতিক মহল যথোপযুক্ত পদক্ষেপ নেবে।” পারস্পরিক কথাবার্তা এবং আলাপ-আলোচনার মাধ্যমেই যে শান্তিপ্রতিষ্ঠা সম্ভব, তা-ও স্পষ্ট করে দিয়েছেন তিনি। নিরাপত্তা পরিষদ শান্তিপ্রতিষ্ঠায় তার ভূমিকা পালন করতে ব্যর্থ হচ্ছে বলেও উষ্মাপ্রকাশ করেন মন্ত্রী। আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে শান্তিপ্রতিষ্ঠার কথা বলতে গিয়েই তিনি জানান, মোদী কিংবা পোপ ফ্রান্সিসের মতো মানুষজনই মধ্যস্থতা করে রাশিয়া এবং ইউক্রেনকে আলোচনার টেবিলে বসাতে পারেন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.