Advertisement
০৮ ডিসেম্বর ২০২২
ANIMALS

পোলার বিয়ারের চামড়া কালো, বাঘের ডোরা দাগও ফিঙ্গারপ্রিন্টের মতো ইউনিক!

পশু-পাখিদের মধ্যেই লুকিয়ে আছে এমন কিছু রহস্য, যা জানলে চমকে উঠতে হয়। মনে হতেই পারে, আরে! তাই নাকি, এটা জানতাম না তো! রইল তেমনই কিছু বিস্ময়কর তথ্য।

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮ ১২:৪২
Share: Save:
০১ ১০
সারা দুনিয়া জুড়ে কত না বিস্ময় লুকিয়ে রয়েছে। আমাদের চারপাশের পশু-পাখিদের মধ্যেই লুকিয়ে আছে এমন কিছু রহস্য, যা জানলে চমকে উঠতে হয়। মনে হতেই পারে, আরে! তাই নাকি, এটা জানতাম না তো! রইল তেমনই কিছু বিস্ময়কর তথ্য। গ্রাফিক: তিয়াসা দাস।

সারা দুনিয়া জুড়ে কত না বিস্ময় লুকিয়ে রয়েছে। আমাদের চারপাশের পশু-পাখিদের মধ্যেই লুকিয়ে আছে এমন কিছু রহস্য, যা জানলে চমকে উঠতে হয়। মনে হতেই পারে, আরে! তাই নাকি, এটা জানতাম না তো! রইল তেমনই কিছু বিস্ময়কর তথ্য। গ্রাফিক: তিয়াসা দাস।

০২ ১০
জানেন কি, গিরগিটির জিভের দৈর্ঘ্য তার শরীরের দৈর্ঘ্যের চেয়ে দ্বিগুণ।নিজেদের জন্মগত ক্ষমতা অনুযায়ী, তাদের জিভ তারা গুটিয়ে মুখের মধ্যে রাখে। শিকার বা খাবার সামনে এলে তাদের জিভ ঘণ্টায় ৯৬.৫ কিলোমিটার বেগে মুখ থেকে বার করে আনে তারা, আর এই জিভ বার করতে তারা কত সময় নেয় জানেন? এক সেকেণ্ডের ১/১০০ ভাগ!

জানেন কি, গিরগিটির জিভের দৈর্ঘ্য তার শরীরের দৈর্ঘ্যের চেয়ে দ্বিগুণ।নিজেদের জন্মগত ক্ষমতা অনুযায়ী, তাদের জিভ তারা গুটিয়ে মুখের মধ্যে রাখে। শিকার বা খাবার সামনে এলে তাদের জিভ ঘণ্টায় ৯৬.৫ কিলোমিটার বেগে মুখ থেকে বার করে আনে তারা, আর এই জিভ বার করতে তারা কত সময় নেয় জানেন? এক সেকেণ্ডের ১/১০০ ভাগ!

০৩ ১০
মাত্র ৩-৫ বছরে পড়লেই নিজের জীবনসঙ্গী খোঁজার জন্য ব্যকুল হয়ে পড়ে আটলান্টিক পাফিনরা। সাধারণত, এক বার বেছে নেওয়া সঙ্গীর সঙ্গেই বাকি জীবনটা কাটাতে চায় তারা। নিজেদের পালকের রং ও ঔজ্জ্বল্য দিয়েই পুরুষ সঙ্গীকে আকৃষ্ট করে এরা। এই পাখিরা বিশ্বাস করে, যার পালক যত বেশি রংচঙে, তার প্রেমের ভাগ্য ততই প্রসন্ন!

মাত্র ৩-৫ বছরে পড়লেই নিজের জীবনসঙ্গী খোঁজার জন্য ব্যকুল হয়ে পড়ে আটলান্টিক পাফিনরা। সাধারণত, এক বার বেছে নেওয়া সঙ্গীর সঙ্গেই বাকি জীবনটা কাটাতে চায় তারা। নিজেদের পালকের রং ও ঔজ্জ্বল্য দিয়েই পুরুষ সঙ্গীকে আকৃষ্ট করে এরা। এই পাখিরা বিশ্বাস করে, যার পালক যত বেশি রংচঙে, তার প্রেমের ভাগ্য ততই প্রসন্ন!

০৪ ১০
পোলার বিয়ারের পালকের রং সাদা— এ আর কে না জানে? কিন্তু জানেন কি, সাদা রোমের নিচে তাদের চামড়ার রং আদতে মিশকালো। এই কালো চামড়াই তাদের সূর্যের আলো শোষণ করতে সাহায্য করে। তাদের রোমে সূর্যের আলো পড়লে আলোক বিকিরণের কারণে তাদের গায়ের লোমকে আরও সাদা ও চকচকে দেখায়।

পোলার বিয়ারের পালকের রং সাদা— এ আর কে না জানে? কিন্তু জানেন কি, সাদা রোমের নিচে তাদের চামড়ার রং আদতে মিশকালো। এই কালো চামড়াই তাদের সূর্যের আলো শোষণ করতে সাহায্য করে। তাদের রোমে সূর্যের আলো পড়লে আলোক বিকিরণের কারণে তাদের গায়ের লোমকে আরও সাদা ও চকচকে দেখায়।

০৫ ১০
ঘুমনোর সময় আপনি কী ভাবে ঘুমোন? সামুদ্রিক ভোঁদড়রা কিন্তু একে অন্যের হাত ছুঁয়ে ঘুমোয়। তার কারণ জানলেও অবাক লাগতে পারে। ঘুমনোর সময় সমুদ্রের জল এসে যাতে তাদের ভাসিয়ে নিয়ে গিয়ে দলছুট না করতে পারে, তাই একে অন্যের হাত ছুঁয়ে ঘুমোয় এরা। ঘুমের মাঝে হাত শিথিল হলেও তাদের নখ একে অন্যকে ভাল করেই আঁকড়ে থাকতে পারে।

ঘুমনোর সময় আপনি কী ভাবে ঘুমোন? সামুদ্রিক ভোঁদড়রা কিন্তু একে অন্যের হাত ছুঁয়ে ঘুমোয়। তার কারণ জানলেও অবাক লাগতে পারে। ঘুমনোর সময় সমুদ্রের জল এসে যাতে তাদের ভাসিয়ে নিয়ে গিয়ে দলছুট না করতে পারে, তাই একে অন্যের হাত ছুঁয়ে ঘুমোয় এরা। ঘুমের মাঝে হাত শিথিল হলেও তাদের নখ একে অন্যকে ভাল করেই আঁকড়ে থাকতে পারে।

০৬ ১০
এক জীবনে একটি হাঙরের ৩০ হাজার দাঁত থাকে! এদের চোয়ালের সঙ্গে দাঁতগুলি যুক্ত থাকে না, তাদের দাঁতগুলি নানা সংযুক্তকারী টিস্যুর সঙ্গে যুক্ত থাকে ও সারা জীবন ধরেই এই দাঁত পড়ে গিয়ে তার তার জায়গায় নতুন দাঁতও ওঠে।

এক জীবনে একটি হাঙরের ৩০ হাজার দাঁত থাকে! এদের চোয়ালের সঙ্গে দাঁতগুলি যুক্ত থাকে না, তাদের দাঁতগুলি নানা সংযুক্তকারী টিস্যুর সঙ্গে যুক্ত থাকে ও সারা জীবন ধরেই এই দাঁত পড়ে গিয়ে তার তার জায়গায় নতুন দাঁতও ওঠে।

০৭ ১০
গলার জোরে নিজেদের নামকে যথার্থতা দিয়েছে এই হুঙ্কারী বানররা। ‘হাউলার মাংকি’নামে পৃথিবীর কাছে পরিচিত এই বানরদের দলবদ্ধ চিৎকারের শব্দ স্থলভাগের সবচেয়ে বেশি হুঙ্কারকারী প্রাণীদের মধ্যে অন্যতম। প্রায় ২.৮ কিলোমিটার দূর থেকেই এদের চিৎকারের শব্দ শোনা যায়।

গলার জোরে নিজেদের নামকে যথার্থতা দিয়েছে এই হুঙ্কারী বানররা। ‘হাউলার মাংকি’নামে পৃথিবীর কাছে পরিচিত এই বানরদের দলবদ্ধ চিৎকারের শব্দ স্থলভাগের সবচেয়ে বেশি হুঙ্কারকারী প্রাণীদের মধ্যে অন্যতম। প্রায় ২.৮ কিলোমিটার দূর থেকেই এদের চিৎকারের শব্দ শোনা যায়।

০৮ ১০
সব পতঙ্গের মতোই ছ’ছটি পা আছে, তবু হাঁটতে পারে না ড্রাগনফ্লাই। বরং তাদের পায়ের গঠন ও শারীরিক বিন্যাস অনুযায়ী, কোথাও বসতে গেলে বা কিছু আঁকড়ে ধরতে সাহায্য করে তাদের পা।

সব পতঙ্গের মতোই ছ’ছটি পা আছে, তবু হাঁটতে পারে না ড্রাগনফ্লাই। বরং তাদের পায়ের গঠন ও শারীরিক বিন্যাস অনুযায়ী, কোথাও বসতে গেলে বা কিছু আঁকড়ে ধরতে সাহায্য করে তাদের পা।

০৯ ১০
মানুষের মধ্যে ডানহাতি-বাঁহাতি ভাগ আছে সে তো সবাই জানেন, কিন্তু হাতিদের মধ্যেও এমন অদ্ভুত ভাগ আছে, তা জানেন কি? না তবে হাত নয়, হাতিদের বেলায় তা দাঁত। কোন দাঁত বেশি ব্যবহার করছে হাতি, তার উপর নির্ভর করে সে ডানদাঁতি না বাঁদাতি। যে দিকের দাঁত আকারে ছোট, সে দাঁতই হাতি বেশি ব্যবহার করে। তাই তা ক্ষয়ে ছোট হয়ে যায়।

মানুষের মধ্যে ডানহাতি-বাঁহাতি ভাগ আছে সে তো সবাই জানেন, কিন্তু হাতিদের মধ্যেও এমন অদ্ভুত ভাগ আছে, তা জানেন কি? না তবে হাত নয়, হাতিদের বেলায় তা দাঁত। কোন দাঁত বেশি ব্যবহার করছে হাতি, তার উপর নির্ভর করে সে ডানদাঁতি না বাঁদাতি। যে দিকের দাঁত আকারে ছোট, সে দাঁতই হাতি বেশি ব্যবহার করে। তাই তা ক্ষয়ে ছোট হয়ে যায়।

১০ ১০
মানুষের হাতের ছাপের মতোই বাঘের গায়ের ডোরা দাগও এক ও অদ্বিতীয়। একটি বাঘের সঙ্গে অন্য আর একটি বাঘের ডোরা দাগ কখনও মিলবে না। প্রকৃতির নিয়মে এটাই তাদের প্রত্যেককে পৃথক করে চিনতে পারার অন্যতম উপায়। ওস্তাদ বনকর্মী অনেকেই এই ডোরা দাগ দেখেই চিনে ফেলেন পরিচিত বাঘদের! ছবি: পিক্সঅ্যাবে ও আইস্টক।

মানুষের হাতের ছাপের মতোই বাঘের গায়ের ডোরা দাগও এক ও অদ্বিতীয়। একটি বাঘের সঙ্গে অন্য আর একটি বাঘের ডোরা দাগ কখনও মিলবে না। প্রকৃতির নিয়মে এটাই তাদের প্রত্যেককে পৃথক করে চিনতে পারার অন্যতম উপায়। ওস্তাদ বনকর্মী অনেকেই এই ডোরা দাগ দেখেই চিনে ফেলেন পরিচিত বাঘদের! ছবি: পিক্সঅ্যাবে ও আইস্টক।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
আরও গ্যালারি

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.