Advertisement
০৭ অক্টোবর ২০২২
london

মায়ের জন্মদিনে কাছাকাছি দুই ভাই, গলবে কি বরফ

রাজবাড়ির পারিবারিক শিল্পী আয়ান র্যাঙ্ক-ব্রডলের তৈরি ডায়ানার মূর্তিকে ঘিরে রয়েছে তিনটি শিশু।

ডায়ানার মূর্তি উন্মোচন করছেন উইলিয়াম ও হ্যারি। বৃহস্পতিবার কেনসিংটন প্রাসাদের সাঙ্কেন গার্ডেনে।

ডায়ানার মূর্তি উন্মোচন করছেন উইলিয়াম ও হ্যারি। বৃহস্পতিবার কেনসিংটন প্রাসাদের সাঙ্কেন গার্ডেনে। ছবি পিটিআই।

শ্রাবণী বসু
লন্ডন শেষ আপডেট: ০২ জুলাই ২০২১ ০৫:৩৯
Share: Save:

প্রায় সিকি শতাব্দী আগে প্যারিসের টানেলে সেই ভয়াবহ লিমুজ়িন দুর্ঘটনা না-ঘটলে আজ ষাট বছরে পা দিতেন তিনি। তবে জনপ্রিয়তায় আজও সমান অপ্রতিদ্বন্দ্বী যুবরানি ডায়ানা। দিনটিকে স্মরণীয় করে রেখে লন্ডনের কেনসিংটন প্রাসাদে আজ তাঁর মূর্তি উন্মোচন করলেন রাজপুত্র উইলিয়াম এবং হ্যারি।

রাজবাড়ির পারিবারিক শিল্পী আয়ান র্যাঙ্ক-ব্রডলের তৈরি ডায়ানার মূর্তিকে ঘিরে রয়েছে তিনটি শিশু। মূর্তিটি যেন ডায়ানার জনকল্যাণমূলক কাজের প্রতীক। সেবামূলক কাজে মায়ের অবদানকে স্মরণীয় করে রাখতে ২০১৭ সালে ডায়ানার ২০তম মৃত্যুবার্ষিকী এই মূর্তি তৈরির কথা ভাবেন উইলিয়াম-হ্যারি। স্থাপত্যের পাদদেশে ডায়ানার নাম ও মূর্তি উন্মোচনের তারিখ খোদাই করা রয়েছে। তার সামনে একটি পাথরে খোদাই করা রয়েছে ‘দ্য মেজ়ার অব আ ম্যান’ কবিতাটির সারমর্ম। ২০০৭ সালে যুবরানি স্মৃতিতেই লেখা হয়েছিল এই কবিতা। এ দিনের অনুষ্ঠানের শেষে এক যৌথ বিবৃতিতে উইলিয়াম-হ্যারি বলেছেন, ‘‘ভালবাসা, জীবনীশক্তি, দৃঢ়চেতা মনোভাব এবং আরও যা যা গুণ ছিল মায়ের, তার মধ্যে দিয়েই আশপাশের জীবনগুলিকে বদলে দিতে চাইতেন মা। আজ তাঁর ৬০তম জন্মদিন। রোজ মনে হয়, মা যদি আমাদের কাছে থাকতেন। এই মূর্তি তাঁর জীবন আর কাজের প্রতীক হয়ে উঠুক।’’

মায়ের মূর্তি উন্মোচনের অনুষ্ঠানকে ঘিরেই ফের কাছাকাছি এলেন দুই ভাই। মায়ের স্মৃতিচারণের মধ্যে দিয়েই কি তবে দুই ভাইয়ের সম্পর্কে উষ্ণতা ফিরবে, আশায় বুক বাঁধছেন ব্রিটেনবাসী। অনুষ্ঠান উপলক্ষে কয়েক দিন আগেই ব্রিটেনে ফিরেছেন হ্যারি। বাধ্যতামূলক কোয়রান্টিন কাটিয়ে যাতে নির্ধারিত দিনে অনুষ্ঠানে যোগ দিতে পারেন। বুধবার অবশ্য তাঁকে অসুস্থ শিশুদের জন্য একটি চ্যারিটি অনুষ্ঠানে দেখা গিয়েছিল।

বছর খানেক আগে ব্রিটেন ছেড়েছেন হ্যারি। রাজপরিবারের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি নিয়ে ক্যালিফর্নিয়ায় সপরিবার থিতু হয়েছেন। তবে প্রকাশ্যে কেউ কিছু না বললেও দুই ভাইয়ের সম্পর্কে যে চিড় ধরেছে তার নানা আভাস-ইঙ্গিত মিলেছে। দাদু ফিলিপের অন্ত্যেষ্টির অনুষ্ঠানের পরে দু’ভাইকে আর একসঙ্গে দেখা যায়নি। তাই আজকের অনুষ্ঠানে উইলিয়াম-হ্যারিকে নিয়ে সাংবাদিক আর চিত্রগ্রাহকদের উৎসাহ কম ছিল না।

এ দিনের অনুষ্ঠান উপলক্ষে চার হাজারেরও বেশি ফুল গাছে সেজে উঠেছিল প্রাসাদের সাঙ্কেন গার্ডেন। কেনসিংটন প্রাসাদে থাকার সময়ে এই বাগানে একান্ত সময় কাটাতে পছন্দ করতেন ডায়ানা। যুবরানির পছন্দের সাদা ও হালকা রঙের ফুলে সাজানো হয়েছে বাগানটি। সময় লেগেছে ৪০ দিনেরও বেশি। ফরগেট-মি-নট, সাদা গোলাপ, সাদা টিউলিপ, ব্যালেরিনা, ডালিয়া, নারসিসি, ডেইজ়ি কী নেই সেই সমারোহে!

তবে কোভিড-বিধি মেনে রাশ টানা হয়েছিল আমন্ত্রিতের তালিকায়। হ্যারি-উইলিয়াম ছাড়া ছিলেন ডায়ানার ভাই-বোনেরা। আমন্ত্রিত ছিলেন শিল্পী র্যাঙ্ক-ব্রডলে। আর ছিলেন সাঙ্কেন গার্ডেনে ফুলসজ্জার দায়িত্বে থাকা পিপ মরিসন। তবে সদ্যোজাত কন্যাকে নিয়ে ক্যালিফর্নিয়া থেকে আসতে পারেননি হ্যারির স্ত্রী মেগান। উইলিয়ামের স্ত্রী কেট আগেই তিন সন্তানকে নিয়ে ওই মূর্তি দেখে নিয়েছেন। ছিলেন না তিনিও। অনুষ্ঠানে থাকছেন না বলে আগেই জানিয়েছিলেন ডায়ানার স্বামী, প্রিন্স চার্লস। ঘনিষ্ঠ সূত্রের খবর, দিনটি শুধু ছেলেদের হোক— এই বার্তাই দিয়েছেন যুবরাজ। অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত ছিলেন রানিও। রাজ পরিবার সূত্রের খবর, আগামী দিনে সাধারণ দর্শনার্থীদের জন্য এই বাগান খুলে দেওয়া হবে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.