দিনের বেলায় বেরলে চোখে রোদচশমা না থাকলেই নয়। আবার  রাস্তায় এখন অনেকেরই সঙ্গী হেডফোন। তবে এখন আর চোখে চশমা, কানে হেডফোন দিয়ে তারে তালগোল পাকবে না। চোখে থাকা সানগ্লাস শুধু রোদ থেকে আপনার চোখকে রক্ষাই করবে না, একইসঙ্গে কাজ করবে হেডফোনেরও। এমনই চমক নিয়ে বাজারে এসেছে বিখ্যাত গ্যাজেট প্রস্তুতকারক সংস্থা বোস।

স্পিকার, হেডফোনের জগতে বোস বরাবরই এক সম্ভ্রান্ত নাম। নিত্যনতুন প্রযুক্তি নিয়ে তাদের তৈরি পণ্যও তাই চাহিদার শীর্ষে থাকে। গ্রাহকদের ফের একবার চমকে দিতে এল এই রোদচশমা। দেখতে বাকি আর পাঁচটা সানগ্লাসের মতোই। তবে আপনি চাইলেই চোখের রোদচশমা হয়ে যাবে ওয়্যারলেস হেডফোন। রোদ থেকে রক্ষা করার সঙ্গে সঙ্গে শুনতে পাবেন নিজের পছন্দের গান, কথা বলতে পারবেন প্রিয়জন বা বন্ধুর সঙ্গে। তবে এখানেই থামেনি বোস কোম্পানি, ব্যবহারকারীর সুবিধার জন্য ইন্টারনেটের সংযোগও থাকবে এই রোদচশমায়, গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট বা সিরিকে নির্দেশ দিতে পারবেন এই অত্যাধুনিক চশমায়। তবে নানা ফিচারযুক্ত এই সানগ্লাসের দামও একটু চড়া। চোখে এই আধুনিক রোদচশমা পরতে গেলে খরচ হবে ২১ হাজার ৯০০ টাকা।

দাম শুনে কেউ কেউ আঁতকে উঠলেও শৌখিন এবং 'টেক-স্যাভি' মানুষদের জন্য আদর্শ এই রোদচশমা। গোল ও চৌকো- দুটি আকারে পাওয়া যাবে এই হেডফোনযুক্ত সানগ্লাস। গোলাকার ও ছোট আকারের সানগ্লাসটির নাম 'রোন্ডো' এবং চৌক বড় আকারের সানগ্লাসটির নাম 'অল্টো'। দুটি রোদচশমাই আপনার চোখকে ইউভি এ ও ইউভি বি থেকে ৯৯ শতাংশ রক্ষা করবে বলে দাবি করা হচ্ছে সং স্থার তরফ থেকে। পড়ে গেলেও ভাঙ্গবে না এর গ্লাস,  না কোনও আঁচড়ও। নীল রঙে পাওয়া যাবে দুটি সানগ্লাসই, এ ছাড়াও 'মিরর সিলভার' রঙে অল্টো এবং 'মিরর রোজ গোল্ড' রঙে পাওয়া যাবে রোন্ডো। প্রতিটির হাতলেই থাকবে স্টিলের ছোঁয়া।

আরও পড়ুন: আশা, আশঙ্কায় দুলছে বাজার

রোদচশমার সঙ্গে সঙ্গে হেডফোন হিসাবে কাজ করার জন্য এই সানগ্লাসে দেওয়া হয়েছে "ওয়েফার থিন অ্যাকুইস্টিক প্যাকেজ"-র, যা যুক্ত থাকবে সানগ্লাসটির দুই দণ্ডে ।  গান শোনা বা কথা বলার জন্য  থাকবে অতি ক্ষুদ্র একটি স্পিকার, সরাসরি কানের ভিতর এই স্পিকার না ঢুকলেও হবে না কোনও 'সাউন্ড লিক'। গান মাঝপথে থামাতে, স্কিপ করতে বা গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট কিংবা সিরিকে কোনও নির্দেশ দেওয়ার জন্য রয়েছে একটি মাল্টি ফাংশন বাটন।

 

কী ভাবে কাজ করবে রোদচশমার হেডফোন-

  • সানগ্লাসে হেডফোনের ফিচারগুলি চালু করার জন্য আগে আপনার ফোনে ডাউনলোড করতে হবে বোসের 'কানেক্ট' অ্যাপ।
  • অ্যাপটি চালু রেখেই রোদচশমার ডানদিকের ডাঁটিতে থাকা বাটনে চাপ দিতে হবে,যাতে অ্যাপটি আপনার সানগ্লাসটি ডিটেক্ট করতে পারে।
  • সানগ্লাসের অবস্থান ডিটেক্ট করে ফোনের সঙ্গে একবার কানেক্ট হয়ে গেলেই সানগ্লাসটি ওয়্যারলেস হেডফোনের কাজ করবে।

ক্লাসিক ডিজাইনে অত্যাধুনিক ফিচার যুক্ত এই হেডফোনের সাউন্ড কোয়ালিটি পরীক্ষা করে দেখা গিয়েছে ভীড় বা কোলাহলের মাঝেও এই হেডফোনে গান বা কথা শোনা যায় স্পষ্ট ভাবে।

আরও পড়ুনস্বচ্ছতা কই, কেব্‌লে ক্ষিপ্ত ট্রাই