• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ভারতের রেটিং কমার প্রভাব ছয় সংস্থায়

Moody's
ছবি সংগৃহীত।

অর্থনীতি নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করে গত সপ্তাহের শুরুতেই ভারতের মূল্যায়ন ছাঁটাই করেছে মুডি’জ়। তা নেমে এসে দাঁড়িয়েছে লগ্নিযোগ্যতার মাপকাঠির শেষ ধাপে। কিন্তু এর জেরে শুধু ভারতের রেটিংই কমেনি। ধাক্কা খেয়েছে ছ’টি রাষ্ট্রায়ত্ত তেল-গ্যাস সংস্থার মূল্যায়নও। লগ্নিযোগ্যের তালিকা থেকে নেমে এসে সেগুলি জায়গা পেয়েছে অলগ্নিযোগ্য সংস্থার (জাঙ্ক) মাত্র এক ধাপ উপরে। সংস্থাগুলি হল ইন্ডিয়ান অয়েল, ভারত পেট্রোলিয়াম, হিন্দুস্তান পেট্রোলিয়াম, অয়েল ইন্ডিয়া, ওএনজিসি এবং পেট্রোনেট এলএনজি। উল্লেখ্য, সম্প্রতি ভারতের রেটিং এক ধাপ ছেঁটে ‘Baa2’ থেকে কমিয়ে ‘Baa3’ করেছে আন্তর্জাতিক মূল্যায়ন সংস্থাটি। যার অর্থ, ভারতের ঋণ পাওয়ার যোগ্যতা কমে যাওয়া।  

সাধারণত যে সব সংস্থা এক লাফে লগ্নিযোগ্য থেকে অলগ্নিযোগ্য সংস্থায় পরিণত হয়, তাদেরকে মূল্যায়নের পরিভাষায় ‘ফলেন এঞ্জেল’ বলে। এই ছ’টি সংস্থা সেই তালিকায় জায়গা করে নেওয়ায় সেখানে এশীয় সংস্থার সংখ্যা দাঁড়াল রেকর্ড ২১টিতে। ২০০৮ সালের বিশ্ব মন্দার পরে মূলত চিনের সংস্থাগুলি এতে জায়গা পেলেও, বর্তমানে বহু দক্ষিণ কোরীয় এবং ভারতীয় সংস্থা রয়েছে ‘ফলেন এঞ্জেল’-এর তালিকায়। যা আরও লম্বা হয়েছে করোনার জেরে আর্থিক কর্মকাণ্ড ধাক্কা খাওয়ায় ও ভারতের রেটিং কমে যাওয়ায়। 

মুডি’জ়ের মতে, এমনিতে ওই ছ’টি ভারতীয় সংস্থার আর্থিক হাল যথেষ্ট ভাল। যে কারণে তাদের নিজস্ব ঝুঁকির মূল্যায়নও রয়েছে উঁচুতে। ২০২১ সালের আগে তাদের রেটিংযুক্ত ১০০ কোটি ডলারের বন্ডের মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা। এই পরিস্থিতিতে শুধুমাত্র ভারতের মূল্যায়ন কমার প্রভাবই তাদের উপরে পড়েছে বলে আশ্বস্ত করেছে রেটিং সংস্থাটি। 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন