• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

হলমার্কিং ব্যবস্থায় কমবে সোনার গ্রেড 

Gold

Advertisement

সোনার গয়নায় হলমার্কিং বাধ্যতামূলক করার পাশাপাশি সোনার মানের (গ্রেড) সংখ্যা কমানো হবে বলে জানালেন কেন্দ্রীয় ক্রেতাসুরক্ষামন্ত্রী রামবিলাস পাসোয়ান। যে দিন থেকে হলমার্কিং চালু হবে, সে দিন থেকে গ্রেড সংক্রান্ত নতুন নির্দেশও কার্যকর হবে।

দেশে সোনার গয়নায় হলমার্কিং বাধ্যতামূলক হচ্ছে ২০২১ সালের ১৫ জানুয়ারি থেকে। সোনা কতটা খাঁটি অর্থাৎ তার ক্যারাটের উপর ভিত্তি করে বর্তমানে ১০টি গ্রেড বাজারে চালু আছে। মঙ্গলবার পাসোয়ান জানান, ওই দিন থেকে শুধু ১৪, ১৮ এবং ২২ ক্যারাটের সোনার গয়নাই বিক্রি করা যাবে। উল্লেখ্য, ১৪ ও ১৮ ক্যারেটের সোনা সাধারণত হিরের গয়না তৈরিতে ব্যবহার করা হয়।

কোনও গয়নায় ব্যবহার করা সোনা কতটা খাঁটি, তার সার্টিফিকেটই হল হলমার্কিং। দেশে ২০০০ সাল থেকেই এই ব্যবস্থা চালু করেছে ব্যুরো অব ইন্ডিয়ান স্ট্যান্ডার্ড (বিআইএস)। তবে এত দিন তা বাধ্যতামূলক ছিল না। ক্রেতা স্বার্থে আগামী বছর থেকে সেই ব্যবস্থাই বাধ্যতামূলক করেছে কেন্দ্র। এ জন্য প্রস্তুতি নিতে গয়না বিক্রেতাদের ১ বছর সময় দেওয়া হয়েছে। এখনও পর্যন্ত যে সব বিক্রেতা হলমার্কিং করা গয়না বিক্রির জন্য বিআইএসের কাছে নাম নথিভুক্ত করাননি, আগামী এক বছরের মধ্যেই তাঁদের তা করতে হবে। কোনও বিক্রেতা নিয়ম না-মানলে শুধু চড়া জরিমানা নয়, ১ বছর পর্যন্ত জেলও হতে পারে তাঁর। জরিমানার অঙ্ক ১ লক্ষ টাকা বা গয়নার দামের পাঁচগুণ পর্যন্ত হতে পারে।

পাশাপাশি, ক্রেতা সচেতনতা বাড়াতে প্রচার চালানোরও সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিআইএস। হলমার্ক করা গয়না কেনার সময়ে ক্রেতাদের গয়নার উপরে চারটি ছাপ দেখে নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছে তারা। এগুলি হল বিআইএসের লোগো, সোনার ক্যারাটেজ, হলমার্ক কেন্দ্রের নাম বা লোগো এবং যে দোকান থেকে গয়না কেনা হচ্ছে তার নাম বা লোগো।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন