ডিজিটাল প্রযুক্তির হাত ধরে নগদহীন লেনদেন বাড়ানো নিয়ে যখন সওয়াল করছে কেন্দ্র, তখন বিষয়টি নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করলেন রাষ্ট্রপুঞ্জের বাণিজ্য ও উন্নয়ন বিভাগের প্রাক্তন শীর্ষ কর্তা।

কলকাতায় হোরাসিস-এশিয়ার শিল্প সম্মেলনে এসে ইউনাইটেড নেশনস কনফারেন্স অন ট্রেড অ্যান্ড ডেভেলপমেন্টের (ইউএনসিটিএডি) প্রাক্তন সেক্রেটারি জেনারেল সুপাচাই পানিচপাকডি-র দাবি, যথাযথ পরিকল্পনা ছাড়াই নগদহীন লেনদেন লাগামছাড়া কেনাকাটায় ইন্ধন জোগাতে পারে। এর ফলে ভারতের মতো দেশে ধাক্কা খেতে পারে সামাজিক সুর‌ক্ষার জন্য জরুরি সঞ্চয়। বিশ্ব জুড়ে ডিজিটাল সংস্থাগুলির উপর যথেষ্ট সরকারি নিয়ন্ত্রণ না-থাকায়, প্রতিযোগিতার বদলে বাজারে একচেটিয়া কারবার মাথাচাড়া দেওয়ার আশঙ্কা নিয়ে উদ্বেগও প্রকাশ করেন সুপাচাই।

তাঁর দাবি, ‘‘এই ব্যবস্থায় সহজে কেনাকাটা করা যায় বলে ক্রেতার পছন্দের তালিকাও লম্বা হয়। অথচ ভারতের মতো দেশে সঞ্চয়ের প্রয়োজন বেশি। মনে রাখতে হয় অবসর, সন্তানদের শিক্ষা নিয়ে পরিকল্পনার কথাও।’’

সম্প্রতি চিনা ই-কমার্স সংস্থা আলিবাবা তাইল্যান্ডে লগ্নির পরিকল্পনা করায় গুগ্‌ল, আলিবাবা, ফেসবুক, অ্যামাজন-সহ কিছু সংস্থার হাতে বিশ্বের ব্যবসা-বাণিজ্যের রাশ চলে যাওয়া নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেন তিনি। সওয়াল করেন, ওই সব সংস্থার জন্য ডব্লিউটিও এবং ইউএনসিটিএডি-র আচরণবিধি চালুর পক্ষেও। তাঁর অভিযোগ, কর দিতে না-হওয়ায় সংস্থাগুলি দাম কমিয়ে ব্যবসা করছে। তাই তাদের উপর কর চাপানোর দাবি তুলেছেন তিনি।

রাষ্ট্রপুঞ্জে আসার আগে বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার ডিরেক্টর জেনারেল ছিলেন সুপাচাই। এক সময়ে ছিলেন তাইল্যান্ডের উপ-প্রধানমন্ত্রীও।