Advertisement
০৩ ডিসেম্বর ২০২২

সিবিআই তদন্তে, তবে কেন আদালত

সিবিআইয়ের মতো তদন্তকারী সংস্থা ও আদালত একই সঙ্গে একই ঘটনার সমান্তরাল ভাবে খোঁজখবর ও নজরদারি করতে পারে না বলে দাবি করল কেন্দ্র। শুক্রবার সুপ্রিম কোর্টে পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কে নীরব মোদী কাণ্ড নিয়ে আনা এক জনস্বার্থ মামলায় এই দাবি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল কে কে বেণুগোপাল।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ও মুম্বই শেষ আপডেট: ১৭ মার্চ ২০১৮ ০২:৫৬
Share: Save:

সিবিআইয়ের মতো তদন্তকারী সংস্থা ও আদালত একই সঙ্গে একই ঘটনার সমান্তরাল ভাবে খোঁজখবর ও নজরদারি করতে পারে না বলে দাবি করল কেন্দ্র। শুক্রবার সুপ্রিম কোর্টে পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কে নীরব মোদী কাণ্ড নিয়ে আনা এক জনস্বার্থ মামলায় এই দাবি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল কে কে বেণুগোপাল।

Advertisement

তিনি বলেন, তদন্ত শুরুর আগেই এ নিয়ে জনস্বার্থ মামলা হয়েছে। এখন যদি সেই মামলায় তদন্ত কী অবস্থায় রয়েছে তা জানানোর নির্দেশ দেয় আদালত, তাতে তদন্তকারী সংস্থার মনোবল নষ্ট হবে। কোনও আদালত সরকারকে ডেকে এই ধরনের নির্দেশ দিতে পারে কি না, তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন বেণুগোপাল। এই মামলায় সিবিআই মুখবন্ধ খামে তদন্তের গতিপ্রকৃতি আদালতে জমা দিক বলে পরামর্শ দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট।

প্রসঙ্গত, পিএনবি কেলেঙ্কারির মূল অভিযুক্ত নীরব ও মেহুল চোক্সীকে দু’মাসের মধ্যে দেশে ফেরানো, তদন্তের জন্য সিট গঠন, বড় অঙ্কের ঋণ দেওয়া নিয়ে অর্থ মন্ত্রকের নির্দিষ্ট নীতি তৈরি ও সেই ঋণ উদ্ধারের ব্যবস্থা করা-সহ নানা দাবি নিয়ে ওই জনস্বার্থ মামলা করেছিলেন আইনজীবী বিনীত ধান্ডা। দাবি করেছিলেন, দেশে ব্যাঙ্কগুলিতে অনুৎপাদক সম্পদের সমস্যা মেটাতে বিশেষজ্ঞদের সাহায্য নেওয়ার কথা।

দুশ্চিন্তা

Advertisement

ঘরে


রাজনৈতিক অস্থিরতার আশঙ্কা


শরিক টিডিপি-র এনডিএ ত্যাগ। মোদী সরকারের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব


উত্তরপ্রদেশে উপনির্বাচনে বিজেপির হার


পিএনবি-সহ বিভিন্ন রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কে প্রতারণায় উদ্বেগ

বাইরে


ইস্পাত, অ্যালুমিনিয়ামে আমেরিকার চড়া আমদানি শুল্কে বাণিজ্য-যুদ্ধের আশঙ্কা


পরিস্থিতি ঘোরালো একগুচ্ছ চিনা পণ্য চড়া করের ইঙ্গিতে


বাণিজ্য-যুদ্ধে ক্ষতি আমেরিকারও, হুঁশিয়ারি সে দেশের শিল্পমহলেরই

বিশ্বব্যাঙ্কের মত: পিএনবি কেলেঙ্কারি সামগ্রিক ভাবে দেশের ব্যাঙ্কিং শিল্পের সমস্যা নয় বলেই জানাল বিশ্বব্যাঙ্ক। এ দিন ভারতে বিশ্বব্যাঙ্কের ডিরেক্টর জুনেইদ কামাল অহমেদ বলেন, একটি কেলেঙ্কারি দেখেই পুরো ব্যবস্থায় গলদ রয়েছে বলা যায় না। তবে এই ধরনের কাণ্ড নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা খতিয়ে দেখার কথা মনে করায়। অহমেদ বলেন, ভারতে সরকারই নীতি তৈরি করে, তা নিয়ন্ত্রণ করে ও পরিষেবা দেয়। এগুলি আলাদা করা গেলে পুরো বিষয়টিতে স্বচ্ছতা আসে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.