পাঁচ রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনের বুথ ফেরত সমীক্ষাই মূলত কাঁপন ধরাল শেয়ার বাজারে। ভোটে বিজেপি ধাক্কা খেতে পারে বলে সমীক্ষায় দেওয়া ইঙ্গিতে সোমবার অর্থনীতি নিয়ে উদ্বেগ বাড়ে লগ্নিকারীদের। তাঁদের শেয়ার বিক্রির জেরে সেনসেক্স ৭১৩.৫৩ পয়েন্ট নেমে চলে যায় ৩৪ হাজারের ঘরে। দাঁড়ায় ৩৪,৯৫৯.৭২ অঙ্কে। নিফ্‌টিও ২০৫.২৫ পড়ে হয় ১০,৪৮৮.৪৫।

এ দিন ডলারের সাপেক্ষে টাকার দামও কমেছে বিপুল। ৫০ পয়সা উঠে ডলার হয়েছে ৭১.৩২ টাকা।

বিশেষজ্ঞদের অনেকের অবশ্য দাবি, বাজারকে টেনে নামিয়েছে বিশ্ব জুড়ে প্রায় সব দেশে শেয়ার সূচকের পতনও। যার মূল কারণ ছিল, চিন-মার্কিন সন্ধির আকাশে মেঘ জমার আঁচ। আর বিশ্ব বাজারে ফের মাথা তোলা তেলের দর। ডলারে টাকার দাম পড়তে থাকায় ঘাটতি নিয়েও আশঙ্কা তৈরি হয়েছে ফের। বিশেষত জুলাই-সেপ্টেম্বরে চলতি খাতে ঘাটতি যেখানে ইতিমধ্যেই বেড়েছে।

স্টুয়ার্ট সিকিউরিটিজের চেয়ারম্যান কমল পারেখের দাবি, ‘‘এই পতন বিজেপির মন্দ ফলের আশঙ্কায়। চরমে অনিশ্চয়তা। রিজার্ভ ব্যাঙ্ক গভর্নরের পদ থেকে উর্জিত পটেলের পদত্যাগ মঙ্গলবারের বাজারে প্রভাব ফেলতে পারে।’’ তবে পটেলের সিদ্ধান্তের জের সূচককে তেমন বইতে হবে বলে মনে করছেন না দেকো সিকিউরিটিজের কর্ণধার অজিত দে। তাঁর দাবি, ‘‘বাজার আন্তর্জাতিক দুনিয়ার উপর বেশি নির্ভরশীল। সোমবার পতনেরও মূল কারণ ছিল বিশ্ব বাজারে বিভিন্ন সূচকের পতন। বুথ ফেরত সমীক্ষা তাতে কিছুটা ইন্ধন জুগিয়েছে মাত্র।’’