টানা ছ’দিন পড়ার পরে বুধবার এক ধাক্কায় অনেকটা উঠল শেয়ার বাজার। সেনসেক্স বাড়ল ৬৪৫.৯৭ পয়েন্ট।  থামল ৩৮,১৭৭.৯৫ অঙ্কে। নিফ্‌টি ১৮৬.৯০ পয়েন্ট বেড়ে শেষ হল ১১,৩১৩.৩০ অঙ্কে। মূলত পড়তি বাজারে শেয়ার কেনার হিড়িকই সূচককে টেনে তুলেছে বলে খবর। আগে টানা ছ’দিন বাজার পড়ায় বহু ভাল সংস্থার শেয়ার তুলনায় কম দামে কেনার সুযোগ তৈরি হয়েছিল। লগ্নিকারীরা তারই সদ্ব্যবহার করেছেন।

বিশেষজ্ঞদের মতে, এ দিন কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের ৫% মহার্ঘ ভাতা বৃদ্ধিতে মন্ত্রিসভার সায়ও সূচকের উত্থানে রসদ জুগিয়েছে। ধারণা, এতে উৎসবের মরসুমে বাজারে চাহিদা বাড়াবে। যা লগ্নিকারীদের এ দিন টাকা ঢালতে উৎসাহ জুগিয়েছে। তবে বুধবার ডলারের সাপেক্ষে টাকার দাম সামান্য কমেছে।

অনেকের মতে, সূচক উঠলেও বাজারের হাল ফিরেছে মনে করার কারণ নেই। বরং দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে সংস্থাগুলির আর্থিক ফলই আগামী দিনে সূচকের গতিপথ ঠিক করবে।

তা ছাড়া, কেন্দ্রের দাওয়াই সত্ত্বেও ভারতের বাজার নিয়ে সংশয়ে বিদেশি লগ্নিকারী সংস্থাগুলি। তাই টানা শেয়ার বিক্রি করছে তারা। চলতি মাসে ওই সব সংস্থা প্রায় ৩,৩০০ কোটি টাকার শেয়ার বিক্রি করেছে। এই দিন সেই অঙ্ক ৪৮৫.২৪ কোটি। তবে এর মধ্যেই সূচকের আরও বড় পতন রুখে দিচ্ছে মিউচুয়াল ফান্ড-সহ ভারতীয় আর্থিক সংস্থাগুলির লগ্নি। বিদেশি লগ্নিকারী সংস্থাগুলির উল্টো পথে হেঁটে শেয়ার বাজারে চলতি মাসে ওই সব সংস্থার বিনিয়োগের পরিমাণ ছাড়িয়ে গিয়েছে ৩,৯০০ কোটি টাকা।