ধাক্কা খেল জেট এয়ারওয়েজ ঘুরিয়ে দাঁড় করানোর সম্ভাবনা। বকেয়া উদ্ধারের জন্য সোমবার পরিষেবা বন্ধ রাখা বিমান সংস্থাটির বিরুদ্ধে জাতীয় কোম্পানি আইন ট্রাইবুনালে (এনসিএলটি) গেল দুই পাওনাদার সংস্থা। দাবি, দেউলিয়া আইনে জেটের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হোক। শমন হুইলস এবং গগ্গর এন্টারপ্রাইজের করা ওই মামলায় জেট এবং ঋণদাতা ব্যাঙ্কগুলিকে নোটিস পাঠিয়েছে এনসিএলটি। ১৩ জুন শুনানির দিন ধার্য করেছে তারা। সেই দিনই ট্রাইবুনাল জানাবে যে দেউলিয়া ঘোষণার আর্জি গ্রহণ করা হবে কি না। 

স্টেট ব্যাঙ্কের নেতৃত্বাধীন ঋণদাতাদের জোটের কাছে জেটের বকেয়া প্রায় ৮,০০০ কোটি টাকা। ১০,০০০ কোটি টাকা পায় পাওনাদারেরা। পুঁজির অভাবে গত ১৭ এপ্রিল পরিষেবা বন্ধ করেছে জেট। সংস্থাটির রাশ হাতে নিয়েছে ঋণদাতারা। দেউলিয়া আইনের বাইরে সংস্থা ঘুরে দাঁড় করানোর চেষ্টা চলছে। সে জন্য জেটের ৭৫% পর্যন্ত অংশীদারি বিক্রি করতে আগ্রহী ক্রেতাদের থেকে দরপত্রও চেয়েছে ব্যাঙ্কগুলি। বেশ কয়েকটি সংস্থা আগ্রহ দেখালেও, শেষ পর্যন্ত অবশ্য কেউই দরপত্র দেয়নি। এই অবস্থায় সংস্থাটির পাওনাদারদের এই সিদ্ধান্ত ঋণদাতাদের সেই প্রক্রিয়ায় ধাক্কা দেবে বলেই মনে করছে সংশ্লিষ্ট মহল।