একেই বলে কপালের ফের!

দুর্ঘটনার জেরে ট্রাউজার্সের পকেট থেকে রিভলভার পড়ে গিয়ে অস্ত্র আইনে কেউ ধরা পড়েছে, এমনটা খুব একটা শোনা যায় না। বুধবার এমন ঘটনাই ঘটল বি বি গাঙ্গুলি স্ট্রিট এবং আমহার্স্ট স্ট্রিটের মোড়ে। অস্ত্র-সহ গ্রেফতার হওয়া যুবকের নাম শরিয়া অধিকারী ওরফে সৈয়দ খান। তার কাছে মিলেছে একটি রিভলভার এবং চার রাউন্ড গুলি।

পুলিশ জানায়, রাত দশটার কিছু পরে শিয়ালদহ ট্র্যাফিক গার্ডের হোমগার্ড এম এ রহমান দেখেন একটি সাইকেলের সঙ্গে ধাক্কা লেগেছে একটি স্কুটারের। সাইকেল ও স্কুটারের আরোহীদের রাস্তায় ছিটকে পড়ে যেতে দেখে এগিয়ে যান তিনি। তবে সাইকেল আরোহী দ্রুত উঠে চলে গেলেও তখনও রাস্তা থেকে স্কুটার তুলছিলেন সৈয়দ। পুলিশকর্মীর দাবি, তিনি পৌঁছে দেখেন স্কুটারের পাশে একটি রিভলভার পড়ে রয়েছে। রহমানকে দেখেই অস্ত্রটি পা দিয়ে দূরে ঠেলার চেষ্টা করে সৈয়দ। সঙ্গে সঙ্গে সৈয়দকে আটকে শিয়ালদহ ট্র্যাফিক গার্ডে খবর দেন রহমান। পুলিশ এসে আগ্নেয়াস্ত্রটি বাজেয়াপ্ত করলেও সেটি নিজের নয় বলে দাবি করে সৈয়দ। কিন্তু সিসিটিভির ছবি দেখে তদন্তকারীরা জানান, দুর্ঘটনার পরে সৈয়দের পকেট থেকেই রিভলভারটি পড়ে যায়।

কী উদ্দেশ্য নিয়ে সৈয়দ আগ্নেয়াস্ত্রটি বহন করছিল তা স্পষ্ট নয়। পুলিশের দাবি, আগেও চুরির ঘটনায় গ্রেফতার হয়েছিল সৈয়দ। তবে পুলিশের একাংশের দাবি, অস্ত্র উদ্ধার নিয়ে লালবাজার বারবার কড়া হওয়ার নির্দেশ দিলেও দুষ্কৃতীদের হাতে যে আগ্নেয়াস্ত্র পৌঁছে যাচ্ছে এই ঘটনাতেই তা ফের প্রমাণ হল।