শেষমেশ আশঙ্কাই সত্যি হল! স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য চিংড়িঘাটা উড়ালপুল বন্ধ রাখার জেরে সোমবার, সপ্তাহের প্রথম কাজের দিনেই সকালে দীর্ঘ যানজটে অবরুদ্ধ হয়ে পড়ল ই এম বাইপাস। উত্তরে বেলেঘাটা বিল্ডিং মোড় থেকে দক্ষিণে মুকুন্দপুর পর্যন্ত তৈরি হয় যানজট। সেই সঙ্গে গাড়ির গতি প্রায় স্তব্ধ হয়ে গিয়েছিল বেলেঘাটা মেন রোড ও চাউলপট্টি রোডেও। অবস্থা সামাল দিতে পার্ক সার্কাস থেকে মা উড়ালপুলে উঠতে দেওয়া হয়নি বাইপাসমুখী কোনও গাড়িকে। ফলে দুর্ভোগ বেড়েছে মানুষের।

লালবাজার জানিয়েছে, বেলা সাড়ে ১১টা নাগাদ উড়ালপুলটি যান চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হলে ধীরে ধীরে অবস্থার উন্নতি হয়। তবে পুরো স্বাভাবিক হতে বেলা গড়িয়ে দুপুর হয়ে যায়।

পুলিশ জানিয়েছে, চিংড়িঘাটা উড়ালপুল বন্ধ থাকায় সমস্ত গাড়ি বেলেঘাটা বিল্ডিং মোড় দিয়ে সল্টলেকের ব্রডওয়ে দিয়ে পাঠানো হচ্ছিল। সেই কারণে চিংড়িঘাটা উড়ালপুলের কাছে এবং বেলেঘাটা মোড়ে গাড়ির গতি থমকে যাচ্ছিল। আর তাতেই তৈরি হচ্ছিল যানজট।

গত শুক্রবার রাত ন’টা থেকে চিংড়িঘাটা উড়ালপুল বন্ধ রাখা হয়েছিল। সোমবার সকাল আটটা পর্যন্ত ওই উড়ালপুল বন্ধ রাখার কথা থাকলেও এ দিন সময় বাড়িয়ে তা সাড়ে ১১টা পর্যন্ত বন্ধ রাখা হয়। অতিরিক্ত সেই সাড়ে তিন ঘণ্টার জেরেই শনিবারের মতো এ দিনও যানজটে জেরবার হয় বাইপাস।

ট্র্যাফিক পুলিশকর্মীদের একাংশ জানিয়েছেন, যানজট মুকুন্দপুর পর্যন্ত ছড়িয়ে যাওয়ায় পুলিশ গাড়িচালকদের কালিকাপুর ও রুবি মোড় থেকে গাড়ি ঘুরিয়ে বিকল্প পথে যেতে অনুরোধ করেন। পাঁচ নম্বর সেক্টরের অফিসে যাবেন বলে সকাল ন’টা নাগাদ টালিগঞ্জ থেকে বেরিয়েছিলেন সৌরভ দাস। যানজটের বাধা পেরিয়ে তিনি যখন অফিসে পৌঁছন, তখন ১২টা বেজে গিয়েছে। একই অবস্থার সম্মুখীন হতে হয় আরও অগণিত যাত্রীকে।

শুধু বাইপাস নয়, এ দিন যানজটের কবলে পড়েছিল শহরের অন্যান্য এলাকাও। এক কলেজছাত্রী জানিয়েছেন, হাওড়া ব্রিজ থেকে পার্ক স্ট্রিট পৌঁছতে তাঁর প্রায় এক ঘণ্টা সময় লেগেছে। দুর্গাপুর ব্রিজের জন্য দক্ষিণ কলকাতার একটি বড় অংশে যান চলাচল ব্যাহত হয়। তার উপরে আলিপুর রোডে পুরসভার পাইপলাইনের কাজ চলায় পরিস্থিতি আরও জটিল হয়েছে। আলিপুর ও নিউ আলিপুরের অন্যান্য রাস্তাতেও সমস্যা হয়েছে। বিশেষ করে সাহাপুর রোড, চেতলা সেন্ট্রাল রোডে দীর্ঘক্ষণ গাড়ি দাঁড়িয়ে ছিল। সেই ধাক্কা এসে পড়ে টালিগঞ্জের দেশপ্রাণ শাসমল রোড, টালিগঞ্জ সার্কুলার রোডেও। পুলিশ সূত্রের খবর, ধর্মীয় মিছিলের জেরে এ দিন দুপুরে মধ্য কলকাতার মহাত্মা গাঁধী রোড ও চিত্তরঞ্জন অ্যাভিনিউয়ে যান চলাচল ব্যাহত হয়েছে। একটি লরি খারাপ হওয়ায় বন্দর এলাকার সত্য ডাক্তার রোডেও যান চলাচল ব্যাহত হয়। স্কুল ছুটির কারণে গড়িয়াহাট রোড, সৈয়দ আমির আলি অ্যাভিনিউ, শেক্সপিয়র সরণি এবং হরিশ মুখার্জি রোড যানজটের কবলে পড়েছিল।