• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

থানা অচল করে দাবি দৃষ্টিহীনদের

Student
থানায় দৃষ্টিহীন পড়ুয়ারা। বুধবার, হাওড়ায়। নিজস্ব চিত্র

দাবি আদায় করতে গিয়ে প্রায় তিন ঘণ্টা ধরে থানা অচল করে বিক্ষোভ দেখালেন এক দল দৃষ্টিহীন পড়ুয়া। থানার কোল্যাপসিবল গেট ঝাঁকিয়ে, পুলিশকর্মীদের ধাক্কা দিয়ে সরিয়ে থানার ভিতরে ঢুকে পড়েন তাঁরা। যে থানা অপরাধ নিজেদের এলাকায় হয়নি বলে দায় এড়িয়েছিল, বিক্ষোভকারীদের চাপে পড়ে তারাই বাধ্য হল অভিযোগ নথিভুক্ত করতে।

বুধবার দুপুরে এই ঘটনা ঘটেছে হাওড়া জিআরপি থানায়। দুপুর ২টো নাগাদ পুলিশি নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগে স্লোগান দিয়ে দৃষ্টিহীন পড়ুয়াদের একটি দল হাওড়া জিআরপি থানায় পৌঁছয়। ওই দলে রবীন্দ্র ভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা ছাড়াও যাদবপুর, কলকাতা ও বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের দৃষ্টিহীন পড়ুয়ারা ছিলেন। তাঁরা আসার আগে থানার কোল্যাপসিবল গেট পুরোটাই বন্ধ ছিল। ভিতরে পাহারায় ছিলেন দু’জন পুলিশকর্মী। রেলপুলিশের অভিযোগ, বিক্ষোভকারীরা প্রবল ঝাঁকুনি দিয়ে গেট খুলে ফেলেন। পুলিশকর্মীরা বাধা দিলে তাঁদের ধাক্কা দিয়ে ভিতরে ঢুকে পড়েন পড়ুয়ারা।

জীবন রক্ষিত নামে রবীন্দ্রভারতীর এক দৃষ্টিহীন ছাত্র গত শনিবার হাওড়ায় ট্রেন থেকে নামেন। অভিযোগ, সাহায্য করার নামে তাঁকে মাথায় মেরে, অজ্ঞান করে সঙ্গে থাকা জিনিসপত্র ও টাকা নিয়ে পালায় এক দুষ্কৃতী। ওই দিন বিকেলে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ৮-১০ জন দৃষ্টিহীন পড়ুয়া হাওড়া জিআরপি থানার সামনে বসে অপরাধীদের গ্রেফতার ও খোয়া যাওয়া জিনিস উদ্ধারের দাবিতে বিক্ষোভ দেখান। ওই রাতেই সিসি ক্যামেরা ফুটেজ দেখে রেলপুলিশ জানায়, জীবনকে দেখা গিয়েছে এক ব্যক্তির হাত ধরে স্টেশনের বাইরে যেতে। মারধর ও চুরি হয় স্টেশনের বাইরে। বাইরের এলাকা হাওড়া সিটি পুলিশের আওতাধীন, তাই অভিযোগ জানাতে হবে গোলাবাড়ি থানায়।

পড়ুয়াদের অভিযোগ, এ কথা জেনে জিআরপি থানার এক অফিসার জোর করে জীবনকে দিয়ে মিথ্যা বক্তব্য লিখিয়ে নিয়ে ঘটনাটি গোলাবাড়ি থানার উপরে চাপিয়ে দেন। এ দিন বিক্ষোভকারীদের পক্ষে শুভঙ্কর মান্না বলেন, ‘‘শনিবারের ঘটনাটি শুরু হয়েছে স্টেশনের ভিতরে। জিআরপি থানা দায় এড়াতে পারে না। এফআইআর নিয়ে তদন্ত করতে হবে।’’

এ দিন পরিস্থিতি সামাল দিতে থানায় ছুটে আসেন রেলপুলিশের ডিএসপি (সদর) শিশির মিত্র। ওই অফিসারের বিরুদ্ধে শিশিরবাবুর কাছে অভিযোগ জমা দেন পড়ুয়ারা। পাশাপাশি, শনিবারের ঘটনারও এফআইআর নিয়ে তদন্ত শুরু করার আশ্বাস দেয় পুলিশ। তার পরে অবরোধ ওঠে। এ দিন শিশিরবাবু বলেন, ‘‘আমরা অভিযোগ নিয়েছি। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন