• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

করোনায় আক্রান্ত পুলিশ অফিসার

corona
প্রতীকী ছবি

এ বার করোনায় আক্রান্ত হলেন ভাঙড়ের একজন সার্কেল ইন্সপেক্টর। কাশীপুর থানার করোনায় আক্রান্ত এক পুলিশ অফিসারের সংস্পর্শে এসেছিলেন। তারপর থেকেই খাবারের কোনও স্বাদ পাচ্ছিলেন না। বেশ কয়েক দিন ধরে গলা খুসখুস ও ব্যথা অনুভব করছিলেন। চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে লালারসের পরীক্ষা করান। শুক্রবার রিপোর্ট এলে দেখা যায়, তিনি করোনায় আক্রান্ত। যদিও তাঁর অন্য কোনও উপসর্গ নেই। তিনি চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে নিভৃতবাসে রয়েছেন। ওই অফিসার বলেন, ‘‘আমার এমনিতে কোনও শারীরিক সমস্যা ছিল না। গত কয়েক দিন ধরে ডিউটি করতে গিয়ে বেশ কয়েকজন অফিসারের সংস্পর্শে এসেছিলাম, যাঁরা পরবর্তী সময়ে করোনায় আক্রান্ত হন। জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইন্দ্রজিৎ বসু বলেন, ‘‘নতুন করে আমাদের আমাদের আরও এক জন অফিসার করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। আমরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে সমস্ত রকম ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি। থানাগুলি জীবাণুমুক্ত করতে রাসায়নিক স্প্রে করা হচ্ছে। থানাগুলিতে মাস্ক, স্যানিটাইজ়ারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। যে সমস্ত পুলিশ কর্মীরা সুস্থ হয়ে উঠেছেন, তাঁরা সকলের সঙ্গে নিজেদের অভিজ্ঞতা ভাগ করে নিচ্ছেন।’’ 

হাবড়া স্টেট জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ৩ রোগী করোনা পজ়িটিভ হলেন। তাঁরা অবশ্য কেউই এখন হাসপাতালে ভর্তি নেই। আগেই সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গিয়েছেন। শনিবার তাঁদের রিপোর্ট আসে। তাঁদের বাড়ি হাবড়া, অশোকনগর এলাকায়। হাসপাতাল সুপার শঙ্করলাল ঘোষ বলেন, ‘‘ওই তিনজন রোগীকে আলাদা করে আইসোলেশন ওয়ার্ডে রাখা হয়েছিল। তাঁদের লালারস পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছিল। শনিবার রিপোর্ট এসেছে। তাঁরা করোনা পজ়িটিভ। সুস্থ হওয়ার শুক্রবারই তাঁদের ছুটি দেওয়া হয়েছিল।’’ হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ পুরুষ ও মেডিসিন ওয়ার্ডে ভর্তি থাকা রোগীদের হয় ছুটি দিয়ে দেওয়া হচ্ছে। নয় তো বারাসত জেলা হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হচ্ছে। ভর্তি থাকা অপেক্ষাকৃত সুস্থ রোগীদের বাড়ি পাঠানো হচ্ছে। রবিবার সকালের মধ্যে ওই প্রক্রিয়া শেষ হবে বলে জানানো হয়েছে। তারপর ওই দু’টি ওয়ার্ড-সহ গোটা হাসপাতাল স্যানিটাইজ় করা হবে।  হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, ২৪ ঘণ্টার মধ্যে স্যানিটাইজ় করার কাজ শেষ হবে। এই সময়ে রোগী ভর্তি বন্ধ থাকবে মেডিসিন ওয়ার্ডে। তারপরে ফের রোগী ভর্তি শুরু করা হবে মেডিসিন ওয়ার্ডে। হাসপাতাল সূত্রে জানানো হয়েছে, হাসপাতাল থেকে পাঠানো আরও কয়েকজনের লালারস পরীক্ষায় রিপোর্ট এসেছে। ৯ জনের পজ়িটিভ বেরিয়েছে। বাড়ি অশোকনগর এবং হাবড়া এলাকায়।  হিঙ্গলগঞ্জ থানা এলাকার দুলদুলি গ্রাম পঞ্চায়েতের মঠবাড়িতে ভিন্ রাজ্য ফেরত এক মহিলার করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। শুক্রবার তাঁর রিপোর্ট আসে। তাতে করোনা পজ়িটিভ বেরোয়। হিঙ্গলগঞ্জের বিএমওএইচ অঙ্কুর কর্মকার বলেন, ‘‘ওই মহিলার কোনও উপসর্গ লক্ষ্য করা যায়নি। তাঁকে শনিবার বসিরহাটের আলামিন কোভিড হাসপাতালে ভর্তি 

করা হয়েছে।’’                 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন