ইঞ্জিনিয়ারিং পাশ করেও পারিবারিক ব্যবসায় যোগ না দিয়ে সাইকেল নিয়ে পথে নেমে পড়েছেন অন্ধ্রপ্রদেশের ওঙ্গলের বাসিন্দা তেইশ বছরের সুভাষচন্দ্র বসু। লক্ষ্য, সাড়ে সাত হাজার কিলোমিটার পাড়ি দিয়ে সারা দেশ ঘুরে সবুজ ধ্বংস, মহিলাদের উপরে অত্যাচার, ভ্রূণহত্যা, নাবালিকা বিবাহের বিরুদ্ধে বার্তা ছড়িয়ে দেওয়া। 

তেরো দিন আগে ওঙ্গল থেকে যাত্রা শুরু করে দেড় হাজার কিলোমিটার পাড়ি দিয়ে শনিবার সকালে পেট্রাপোল সীমান্তে পৌঁছেছেন তিনি। এরপরে পটনা, উত্তরাখণ্ড, দিল্লি হয়ে ওয়াঘা সীমান্ত ছুঁয়ে কন্যাকুমারী যাবেন। সেখান থেকে তামিলনাড়ু, কর্ণাটক হয়ে আগামী জানুয়ারি মাসের প্রথম সপ্তাহে ফিরবেন। অভিযানের খরচ নিজেই বহন করছেন বলে জানিয়েছেন তিনি। তবে নানান জায়গার মানুষ ব্যক্তিগত ভাবে তাঁকে সাহায্য করছেন। কলকাতায় একটি ক্লাবের কাছ থেকে সাইকেলের দু’টি টায়ার পেয়েছেন বলে জানালেন সুভাষ। 

বিভিন্ন এলাকার থানা বা পেট্রলপাম্পে রাত কাটিয়ে সকালে বেরিয়ে পড়ছেন। সন্ধে পর্যন্ত সাইকেল চালাচ্ছেন। সুভাষ বলেন, ‘‘আমার নাম ছিল সুভাষ মালোকন্ড্যা। বাবা নেতাজি সুভাষচন্দ্রের ভক্ত ছিলেন বলে পঞ্চম শ্রেণিতে স্কুলে ভর্তির সময়ে আমার নাম বদলে সুভাষচন্দ্র বসু করে দেন। শুনেছি, নেতাজিও ভারতভ্রমণে বেরিয়েছিলেন। আমিও তাঁর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে সচেতনতার বার্তা দিতে বেরিয়ে পড়েছি।’’