• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

২৮ দিনে করোনায় আক্রান্ত ৭৩, সুস্থ হয়েছেন ৩৫ জন

Corona
প্রতীকী ছবি।

মুর্শিদাবাদে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। বুধবার রাতে জেলা জুড়ে ৭জন করোনা আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে। তাঁদের বৃহস্পতিবার বহরমপুরে মাতৃসদন করোনা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ওই সাত জনের মধ্যে দু’জন মুর্শিদাবাদ-জিয়াগঞ্জ ব্লকের, শক্তিপুরের দু’জন, সাগরদিঘি, বেলডাঙা এবং ভগবানগোলা-২ ব্লকের এক জন করে রয়েছে। সাত জনের মধ্যে পাঁচ জন মহারাষ্ট্র, এক জনের হায়দরাবাদের যোগ রয়েছে। অন্য এক জন ভিন্ রাজ্য ফেরত করোনা আক্রান্তের শাশুড়ি রয়েছেন। তিনি অবশ্য মুর্শিদাবাদের বাইরে যাননি। বুধবার রাতের আক্রান্ত ৭ জনকে নিয়ে জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৭৪ জনে। তাঁদের মধ্যে দু’জনের মৃত্যু হয়েছে।

১ মে জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছিল এক জন। ২৮ মে, বৃহস্পতিবার সেই সংখ্যা ৭৪। জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক প্রশান্ত বিশ্বাস বলেন, ‘‘অনেকে সেরেও উঠছেন। বৃহস্পতিবারই ১৯ জন করোনা আক্রান্ত সুস্থ হয়ে মুক্তি পেয়েছেন। সব মিলিয়ে ৩৫ জন সুস্থ হয়েছেন।’’  

বৃহস্পতিবার প্রশান্তবাবু বলেন, ‘‘বুধবার রাতে জেলায় ৭ জনের করোনা পজ়িটিভ হয়েছে। তাঁদের সকলকে বহরমপুরে করোনা হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। তাঁরা যাঁদের সংস্পর্শে এসেছিলেন তাঁদের চিহ্নিত করে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করা হচ্ছে।’’

বুধবার রানিতলার জীবনপুরের এক মহিলার করোনা পজ়িটিভ হয়েছে। ওই মহিলার মহারাষ্ট্র ফেরত জামাই আগেই করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। আদতে রানিতলার কোলানের বাসিন্দা ওই জামাই ভিন্ রাজ্য থেকে ফিরে শ্বশুরবাড়ি উঠেছিলেন। লালারস পরীক্ষায় গত ২১মে রাতে রিপোর্ট পজ়িটিভ আসে। গত ২২ মে আক্রান্ত ওই শ্রমিকের পরিবারের মোট ১২জনের লালরস সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। ওই ১২ জনের মধ্যে আক্রান্ত শ্রমিকের শাশুড়ির করোনা পজ়িটিভ হয়েছে। বাকি ১১ জনের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে।

মুর্শিদাবাদ-জিয়াগঞ্জের তেঁতুলিয়ার এক যুবক করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। ওই যুবক নিজের উদ্যোগে লরি ভাড়া করে গত ২০ মে মহারাষ্ট্র থেকে তেঁতুলিয়ায় ফিরেছেন। দু’দিন পরে লালবাগ মহকুমা হাসপাতালে তাঁর লালারস সংগ্রহ করা হয়। বুধবার রাতে দেখা যায় তাঁর করোনা পজ়িটিভ হয়েছে।

মুর্শিদাবাদ-জিয়াগঞ্জের চুনাখালি নিমতলাতে মহারাষ্ট্র ফেরত আর এক যুবক করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তিনি প্রথমে বাস ভাড়া করে বহরমপুরে ফেরেন। পরে একটি ছোট গাড়ি করে গত ২২ মে রাতে বাড়ি পৌঁছন। সে দিন রাতে গ্রামে ফিরতে স্থানীয়রা বাড়িতে ঢুকতে বাধা দেন। সেদিন ওই যুবক রাতে লালবাগের নতুনগ্রামে বোনের বাড়িতে রাত কাটান। ২৩ মে লালবাগ মহকুমা হাসপাতালে তাঁর লালারস সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য মুর্শিদাবাদ মেডিক্যালে পাঠানো হয়। লালবাগের তেঁতুলিয়া ও চুনাখালিতে আক্রান্ত দু’জনের বাড়ির আশপাশ কন্টেনমেন্ট জোন হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে।

হায়দরাবাদ ফেরত সাগরদিঘির মালিয়াডাঙার এক যুবক করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। গত ১৮মে তিনি হায়দরাবাদ থেকে ফিরেছেন। পরের দিন তাঁর লালারস সংগ্রহ করা হয়েছিল। বুধবার করোনা পজ়িটিভ এসেছে। আক্রান্তের গ্রামকে কন্টেনমেন্ট জোন করা হয়েছে। বেলডাঙা শহরের সুরুলিয়ার এক যুবক গত ২২মে মুম্বই থেকে বাড়ি ফিরেছেন। সেদিনই তাঁর লালারস সংগ্রহ করা হয়েছিল। বুধবার তাঁর রিপোর্ট পজ়িটিভ আসতেই ওই রাতে মাতৃসদন করোনা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শক্তিপুরের বাছড়া এলাকার মহারাষ্ট্র ফেরত দুই যুবকের করোনা পজ়িটিভ হয়েছে। তাঁরা গত ২১মে বাসে করে মহারাষ্ট্র থেকে ফিরেছেন। পরের দিন তাঁদের লালারস সংগ্রহ করে মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল পাঠানো হয়েছিল। বুধবার রাতেই তাঁদের করোনা পজ়িটিভ এসেছে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন