• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ধরা দিলেন বাপি-খুনে অভিযুক্ত

Surrender
প্রতীকী ছবি।

Advertisement

বাপি পণ্ডিত খুনের ঘটনার মূল অভিযুক্ত বিপ্লব বসাক সোমবার আত্মসমর্পণ করলেন। পুলিশ জানিয়েছে, অভিযুক্ত বিপ্লব এ দিন আলিপুরদুয়ার এসিজেএম আদালতে আত্মসমর্পণ করার পর তাঁকে ১০ দিনের পুলিশ হেফাজত দেওয়া হয়েছে। 

গত বৃহস্পতিবার রাতে আলিপুরদুয়ারের উত্তর অরবিন্দনগরে একটি জমি বিবাদকে কেন্দ্র করে খুন হন বাপি। অভিযোগের আঙুল ওঠে তাঁরই খুড়তুতো দাদা বিপ্লবের দিকে। বিপ্লবই নিজের লাইসেন্সড পিস্তল থেকে গুলি করে বাপিকে রাগের বশে খুন করেছেন বলে অভিযোগ। ঘটনার রাত থেকেই বিপ্লবের খোঁজ পাচ্ছিল না পুলিশ। চারদিনের মাথায় অভিযুক্ত আত্মসমর্পণ করায় স্বস্তি জেলা পুলিশে।

পুলিশের দাবি, আর বেশিদিন লুকিয়ে থাকা সম্ভব নয় বুঝেই বিপ্লব আত্মসমর্পণ করতে বাধ্য হয়েছেন। আলিপুরদুয়ারের পুলিশ সুপার অমিতাভ মাইতি বলেন, ‘‘আমরা অভিযুক্তের খোঁজে বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালাচ্ছিলাম। চাপে পড়েই আত্মসমর্পণ করেছেন অভিযুক্ত।’’ তিনি জানান, অভিযুক্তকে ১০ দিনের পুলিশি হেফাজতে নেওয়া হচ্ছে। তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করা হবে।

পুলিশের দাবি, অভিযুক্ত বিপ্লব ঘটনার পর পুলিশকে ফোন করে গুলি চালানোর কথা স্বীকার করে নেন। সেই সময় বিপ্লব দাবি করেন, আত্মরক্ষার জন্যেই তিনি গুলি চালাতে বাধ্য হন। যদিও এর পর থেকেই বিপ্লব গা ঢাকা দেন।

এই ঘটনা নিয়ে রাজনৈতিক তরজা শুরু হয়েছিল আলিপুরদুয়ার জেলায়। তৃণমূল কংগ্রেসের অভিযোগ, বিপ্লব বিজেপির নেতা। যদিও এই বক্তব্য সম্পূর্ণ মিথ্যে রাজনৈতিক অভিসন্ধি বলে দাবি করেন বিজেপির আলিপুরদুয়ার জেলা সভাপতি গঙ্গাপ্রসাদ শর্মা। তবে দুই দলের পক্ষ থেকেই অভিযুক্তের শাস্তির দাবি জানানো হয়।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন