Advertisement
২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
BCKV Admission 2023

বিধানচন্দ্র কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতকোত্তর এবং পিএইচডির ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু, রইল বিস্তারিত

কোর্সগুলিতে ভর্তির জন্য বিবেচনা করা হবে পড়ুয়াদের শিক্ষাগত যোগ্যতা এবং প্রবেশিকা পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বর।

Bidhan Chandra Krishi Viswavidyalaya

বিধানচন্দ্র কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে সংগৃহীত ছবি।

আনন্দবাজার অনলাইন সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ১৬:১৭
Share: Save:

নদিয়ার বিধানচন্দ্র কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (বিসিকেভি)-এ শুরু হয়েছে স্নাতকোত্তর এবং পিএইচডি-র ভর্তি প্রক্রিয়া। ২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষের জন্য পড়ুয়ারা দু’টি কোর্সের বিভিন্ন বিষয়ে ভর্তির আবেদন জানাতে পারবেন। সম্প্রতি সেই মর্মে বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। অনলাইনে আবেদন জানাতে পারবেন পড়ুয়ারা। মঙ্গলবার থেকেই শুরু হয়ে গিয়েছে সেই প্রক্রিয়া।

বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতকোত্তরে (এমএসসি এবং এমটেক) এবং পিএইচডি প্রোগ্রামে যে তিনটি ফ্যাকাল্টিতে ভর্তির সুযোগ পাবেন পড়ুয়ারা, সেগুলি হল— ফ্যাকাল্টি অফ এগ্রিকালচার, ফ্যাকাল্টি অফ হর্টিকালচার এবং ফ্যাকাল্টি অফ এগ্রিকালচারাল ইঞ্জিনিয়ারিং। তিনটি ফ্যাকাল্টির যে বিষয়গুলিতে স্নাতকোত্তর পড়া যাবে, সেগুলি হল— বায়োকেমিস্ট্রি, মলিকিউলার বায়োলজি অ্যান্ড বায়োটেকনোলজি, প্ল্যান্ট ফিজিয়োলজি, ভেজিটেবেল সায়েন্স,ফ্রুট সায়েন্স, পোস্ট হারভেস্ট ম্যানেজমেন্ট, ফার্ম মেশিনারি অ্যান্ড পাওয়ার ইঞ্জিনিয়ারিং এবং অন্যান্য বিষয়। পিএইচডি-র ক্ষেত্রে যে বিষয়গুলিতে গবেষণার সুযোগ রয়েছে, সেগুলি হল— অ্যাগ্রোনমি, প্ল্যান্ট প্যাথোলজি, ভেজিটেবেল সায়েন্স,ফ্রুট সায়েন্স, পোস্ট হারভেস্ট ম্যানেজমেন্ট, ফার্ম মেশিনারি অ্যান্ড পাওয়ার ইঞ্জিনিয়ারিং ইত্যাদি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতকোত্তর এবং পিএইচডি প্রোগ্রামে মোট আসনের মধ্যে পড়ুয়াদের ৭০ শতাংশ এবং ৩০ শতাংশের অনুপাতে ভর্তি নেওয়া হবে। ৭০ শতাংশ আসনে ভর্তি হতে পারবেন শুধু মাত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারাই। বাকি ৩০ শতাংশ আসন সংরক্ষিত রাখা হবে ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ এগ্রিকালচারাল রিসার্চ (আইকার) কোটায় মনোনীত পড়ুয়াদের জন্য। কোর্সগুলিতে ভর্তির জন্য রয়েছে শিক্ষাগত যোগ্যতার আলাদা মাপকাঠি, যা মূল বিজ্ঞপ্তিতে বিস্তারিত জানানো হয়েছে।

কোর্সগুলিতে ভর্তির জন্য বিবেচনা করা হবে পড়ুয়াদের শিক্ষাগত যোগ্যতা এবং প্রবেশিকা পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বর। প্রবেশিকা পরীক্ষায় থাকবে বিষয়ভিত্তিক মাল্টিপ্‌ল চয়েস কোয়েশ্চেন (এমসিকিউ)। মোট নম্বর থাকবে ৬০। পরীক্ষা চলবে এক ঘণ্টা ধরে।

আগ্রহীদের বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে গিয়ে সমস্ত নথি-সহ ভর্তির আবেদন জানাতে হবে। স্নাতকোত্তর এবং পিএইচডিতে ভর্তির আবেদনের জন্য জেনারেল ক্যাটাগরিভুক্তদের জমা দিতে হবে যথাক্রমে ১৮০০ এবং ২০০০ টাকা। সংরক্ষিত শ্রেণিভুক্তদের স্নাতকোত্তর এবং পিএইচডিতে ভর্তির আবেদনমূল্য বাবদ জমা দিতে হবে যথাক্রমে ৯০০ এবং ১০০০ টাকা। অনলাইনে আবেদনের শেষ দিন আগামী ১৪ সেপ্টেম্বর। স্নাতকোত্তর এবং পিএইচডিতে ভর্তির প্রবেশিকা পরীক্ষা হবে যথাক্রমে ৩০ সেপ্টেম্বর এবং ১ অক্টোবর। ভর্তির বিষয়ে অন্যান্য তথ্য বিস্তারিত জানার জন্য পড়ুয়াদের বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট দেখতে হবে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE