মুক্তি পেতে চলেছে ২৬/১১ মুম্বই হামলার অন্যতম অভিযুক্ত জাকিউর রহমান লকভি। বৃহস্পতিবার লাহৌর হাইকোর্ট এই আদেশ দেয়। একই সঙ্গে লকভিকে এক মাস আটকে রাখার ওকারা-র ডিস্ট্রিক কোঅর্ডিনেশন অফিস (ডিসিও)-এর অধ্যাদেশটিও খারিজ করে দেয় লাহৌর হাইকোর্ট। ১৪ মার্চ জারি করা এই অধ্যাদেশটির বিরুদ্ধে লাহৌর হাইকোর্টে আবেদন করেছিল লকভি।

এ দিন লাহৌর হাইকোর্ট জানতে চায় কেন বিশেষ অধ্যাদেশ প্রয়োগ করে লকভিকে আটকে রাখা হয়েছে। আদালতে পঞ্জাব সরকার জানায়, লকভির বিরুদ্ধে গোপন সংবেদনশীন গোয়েন্দা তথ্য থাকায় তাকে আটকে রাখা হয়েছে। আদালত পঞ্জাব সরকারকে সেই তথ্য পেশ করতে বলে। কিন্তু দেখা যায় এই তথ্য দেখার পরেও এর আগে ইসলামাবাদ হাইকোর্ট লকভির জামিন মঞ্জুর করেছে। লাহৌর হাইকোর্ট জানায়, এই গোয়েন্দা তথ্য বিশ্বস্ত নয়। তাই লকভিকে আটকে রাখার কোনও কারণ নেই। তবে লকভিকে আদিয়ালা জেল কর্তৃপক্ষকে ২০ লক্ষ টাকার বন্ড দেওয়ার আদেশও দেয় আদালত। আদিয়ালা জেলে লকভি ছাড়া মুম্বই হামলায় অভিযুক্ত আরও ছ’জন বন্দি আছে।

জারার শা এবং লকভি মুম্বই হামলার অন্যতম দুই চক্রী। হামলা চলাকালীন সন্ত্রাসবাদীদের নিয়ন্ত্রণের দায়িত্বও ছিল এই দু’জনের উপরে। সন্ত্রাসবাদীদের সঙ্গে লকভি এবং জারার শা-র সেই কথোপকথন ভারতীয় এবং বিদেশি গোয়েন্দা সংস্থাগুলি রেকর্ড করে। ২০০৮-এর এই হামলায় মোট ১৬৬ জনের মৃত্যু হয়। ভারত, আমেরিকা-সহ বেশ কয়েকটি দেশের চাপে লকভি-সহ এই ষড়যন্ত্রে লিপ্ত বেশ কয়েক জনকে বন্দি করে পাকিস্তান। শুরু হয় বিচার। তার পরে নানা কারণে এই বিচার প্রক্রিয়া বিলম্বিত হতে থাকে।