Advertisement
Back to
Lok Sabha Election 2024

ভোটের আগে কত দূর প্রস্তুত থানা, নৈশ সফরে ঘুরে দেখলেন নগরপাল 

সূত্রের খবর, শনিবার রাতে শহরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা খতিয়ে দেখতে কড়েয়া, এন্টালি এবং বেনিয়াপুকুর থানায় যান নগরপাল। এর মধ্যে সব চেয়ে বেশি সময় তিনি ছিলেন কড়েয়া থানায়।

কলকাতার নগরপাল বিনীত গোয়েল।

কলকাতার নগরপাল বিনীত গোয়েল। —ফাইল চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৩ এপ্রিল ২০২৪ ০৭:১৯
Share: Save:

রাজ্যে প্রথম দফার ভোটগ্রহণ ইতিমধ্যেই সম্পূর্ণ। চলতি সপ্তাহে রয়েছে দ্বিতীয় দফার ভোট। তবে, শহর কলকাতায় ভোটের এখনও বাকি এক মাসের কিছু বেশি সময়। তারই মধ্যে রাতভর বিভিন্ন থানায় ঘুরে ভোটের প্রস্তুতি খতিয়ে দেখলেন কলকাতার নগরপাল বিনীত গোয়েল।

সূত্রের খবর, শনিবার রাতে শহরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা খতিয়ে দেখতে কড়েয়া, এন্টালি এবং বেনিয়াপুকুর থানায় যান নগরপাল। এর মধ্যে সব চেয়ে বেশি সময় তিনি ছিলেন কড়েয়া থানায়। ওই তিন থানায় গ্রেফতারি পরোয়ানা থাকা সত্ত্বেও ভোটের আগে কত জন অভিযুক্ত এখনও অধরা, সে ব্যাপারে খোঁজ নেন পুলিশের এই প্রধান কর্তা। কেন তাদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা কার্যকর করতে সময় লাগছে, সে বিষয়ে তদন্তকারীদের কাছে জানতে চান তিনি।

উল্লেখ্য, এ বার নির্বাচন কমিশন দাগি অপরাধীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বলেছে। বিশেষত, ওই দুষ্কৃতীরা যাতে স্থানীয় স্তরে কোনও রকম গোলমাল পাকাতে না পারে, তার জন্য তাদের কাছ থেকে ভারতীয় কার্যবিধির ধারা মেনে মুচলেকা লিখিয়ে নিতে বলা হয়েছে পুলিশকে। সেই কাজ কত দূর এগিয়েছে, তারও খোঁজ নেন নগরপাল।

প্রসঙ্গত, চলতি বছরের শুরু থেকেই দৈনিক ভিত্তিতে আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত রিপোর্ট নির্বাচন কমিশনের কাছে পাঠাচ্ছে বিভিন্ন থানা। তার মধ্যে যেমন রয়েছে অস্ত্র উদ্ধার থেকে শুরু করে দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ পদক্ষেপ করার বিষয়, তেমনই আছে জামিন-অযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা কার্যকর করার বিষয়টিও।

পুলিশের একটি সূত্রের দাবি, জামিন-অযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা কার্যকর করা নিয়ে রাজ্য পুলিশের উপরে সন্তুষ্ট নয় নির্বাচন কমিশন। তবে, কলকাতার থানাগুলি যাতে দ্রুত কমিশনের এই নির্দেশ কার্যকর করে, সে ব্যাপারে ইতিমধ্যেই তাদের বলা হয়েছে। পুলিশের একাংশের অনুমান, সেই সূত্রেই নগরপাল নিজে বিভিন্ন থানায় গিয়ে বিষয়টি সম্পর্কে খোঁজ নিয়েছেন। এর আগে তিনি কলকাতা পুলিশের বিভিন্ন ডিভিশনের উপ-নগরপালদের সঙ্গে বৈঠক করে নির্দেশ দিয়েছিলেন, কমিশনের কাছে প্রতিদিনের আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত রিপোর্ট পাঠাতে যেন থানাগুলি দেরি না করে।

এর পাশাপাশি, শনিবার নৈশ সফরের সময়ে শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে নাকা-তল্লাশি চালানোর উপরেও জোর দেন নগরপাল। লালবাজার সূত্রের খবর, সেই মতো রাতেই শহরের বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় একযোগে নাকা-তল্লাশি চালায় থানা এবং ট্র্যাফিক গার্ডগুলি।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE