Advertisement
Back to
Rohini Acharya

‘হিংসায় উস্কানি দিয়েছেন লালুর কন্যা রোহিণী’! সারণকাণ্ডে এফআইআর করল নীতীশের পুলিশ

বিজেপির অভিযোগ, বুথে জোর করে ঢুকে পড়েছিলেন রোহিণী। তাঁর সমর্থকেরা ভোটারদের সঙ্গে দুর্ব্যবহারও করেন। সেই ঘটনা থেকেই উত্তেজনা শুরু হয় সারণে।

(বাঁ দিক থেকে) লালুপ্রসাদ, রোহিণী এবং নীতীশ।

(বাঁ দিক থেকে) লালুপ্রসাদ, রোহিণী এবং নীতীশ। — ফাইল চিত্র।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৩ মে ২০২৪ ১৭:০৪
Share: Save:

সারণে মঙ্গলবারের ভোট পরবর্তী হিংসার ঘটনায় আরজেডি প্রধান লালুপ্রসাদের কন্যা রোহিণী আচার্যের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করল বিহার পুলিশ। মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারের প্রশাসন বৃহস্পতিবার জানিয়েছে, সারণ লোকসভা কেন্দ্রের আরজেডি প্রার্থী রোহিণীর বিরুদ্ধে হিংসায় উস্কানি দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে।

গত সোমবার পঞ্চম দফায় ভোট ছিল সারণে। সেখানে বিজেপির বিদায়ী সাংসদ তথা প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রাজীবপ্রতাপ রুডির সঙ্গে মূল লড়াই লালু-কন্যা রোহিণীর। ভোটগ্রহণ শেষ হওয়ার ঠিক আগে ওই দিন সন্ধ্যায় ছপরার একটি বুথে গিয়েছিলেন রোহিণী। সেই সময়েই বিজেপি এবং আরজেডির কর্মী-সমর্থকেরা পরস্পরের সঙ্গে ঝামেলায় জড়িয়ে পড়েছিলেন।

বিজেপির অভিযোগ, বুথে জোর করে ঢুকে পড়েছিলেন রোহিণী। শুধু তা-ই নয়, তাঁর সমর্থকেরা ভোটারদের সঙ্গে দুর্ব্যবহারও করেন। সেই ঘটনা থেকে ঝামেলা শুরু হতেই দ্রুত ওই জায়গা ছেড়ে চলে যান লালু-কন্যা। বিষয়টি তখনকার মতো থেমে গেলেও তলে তলে কিন্তু একটা ক্ষোভের আঁচ জ্বলছিল। মঙ্গলবার সকাল হতেই আবার দু’পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

সংঘর্ষে দু’পক্ষই আগ্নেয়াস্ত্র এবং ধারালো অস্ত্র ব্যবহার করে বলে অভিযোগ। গুলিতে এক ব্যক্তি নিহত হন। গুরুতর জখম হন দু’জন। সারণের ‘হিংসা’ যাতে ভোটের বিহারে অন্যত্র ছড়িয়ে না পড়ে, তাই দু’দিনের জন্য ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ করে দেয় নীতীশ প্রশাসন। কয়েকটি এলাকায় জারি হয় ১৪৪ ধারা।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE