Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৫ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

WB Election: তরুণ প্রজন্মই ঘোরাবে মোড়, দাবি সিপিএমের

সাধারণ মানুষের রুটি-রুজির প্রশ্নে তরুণ প্রজন্মের লড়াইয়ের পক্ষেই সওয়াল করলেন সিপিএমের দুই পলিটবুরো সদস্য হান্নান মোল্লা ও মহম্মদ সেলিম।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১৭ মার্চ ২০২১ ০৬:৫৩
Save
Something isn't right! Please refresh.
সিঙ্গুরে সিপিম প্রার্থী সৃজন ভট্টাচার্য্য-র সমর্থনে প্রচারে কৃষক সভার নেতা হান্নান মোল্লা।

সিঙ্গুরে সিপিম প্রার্থী সৃজন ভট্টাচার্য্য-র সমর্থনে প্রচারে কৃষক সভার নেতা হান্নান মোল্লা।
নিজস্ব চিত্র।

Popup Close

যুব প্রজন্মকে সামনে রেখে এ বার বিধানসভা নির্বাচনে লড়তে নেমেছে সিপিএম। তারা মনে করছে, এ বারের ভোটের ময়দানে ফারাক গড়ে দেবে স্বচ্ছ ও তরুণ মুখই। তৃণমূল সরকারের ‘ব্যর্থতা’ এবং রাজ্যে প্রচারে এসে কেন্দ্রীয় বিজেপি নেতাদের গুচ্ছ গুচ্ছ প্রতিশ্রুতির বিপরীতে শিক্ষা ও কর্মসংস্থানের কথা বলে তরুণ প্রার্থীদের ঘরোয়া প্রচারে মানুষের সাড়া মিলছে বলে দাবি করছে সিপিএম। সাধারণ মানুষের রুটি-রুজির প্রশ্নে তরুণ প্রজন্মের লড়াইয়ের পক্ষেই সওয়াল করলেন সিপিএমের দুই পলিটবুরো সদস্য হান্নান মোল্লা ও মহম্মদ সেলিম। তাঁদের বক্তব্য, রাজনীতির মোড় ঘোরাতে পারবেন তরুণ সৈনিকেরাই।

সিপিএম প্রার্থী এবং এসএফআইয়ের রাজ্য সম্পাদক সৃজন ভট্টাচার্যের সমর্থনে প্রচারে মঙ্গলবার সিঙ্গুরে গিয়েছিলেন সর্বভারতীয় কৃষক সভার সাধারণ সম্পাদক হান্নান। কেন্দ্রীয় কৃষি আইনের প্রতিবাদে কৃষক আন্দোলনের প্রসঙ্গ টেনে হান্নান বুঝিয়েছেন, রাজ্যে এসে বিজেপি নেতারা যা-ই বলুন, কৃষক ও শ্রমিকদের প্রতি তাঁদের দলের মনোভাব স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে। আবার তৃণমূলও সিঙ্গুরে শিল্পের সম্ভাবনা বিনষ্ট করেছে, সেখানে কৃষকেরও কোনও উপকার হয়নি। পরিস্থিতির পরিবর্তন ঘটাতে বামেদের নবীন প্রজন্মকে সুযোগ দেওয়ার আবেদন জানিয়েছেন হান্নান।

একই ভাবে কলকাতায় এ দিন সেলিম বলেছেন, ‘‘রাজনীতিটা খেলা নয়! অতীতের মতো তৃণমূল নেত্রী আবার পালে বাঘ পড়েছে দেখানোর চেষ্টা করলেও তাঁর সরকারের বিদায় আসন্ন। বিজেপির ঘরে এত সমস্যা যে গৃহমন্ত্রীর ঘুম উড়ে গিয়েছে! ওঁদের প্রতিশ্রুতি মানুষ বিশ্বাসযোগ্য মনে করছেন না বলেই জঙ্গলমহলে শাহ, নড্ডাদের সভায় ভিড় হচ্ছে না। যে সব কথা বাংলায় এসে এখন বলছেন, কেন্দ্রে ৭ বছর সরকার চালিয়ে তার কিছুই করেননি কেন?’’ যুব প্রার্থীদের উদাহরণ দিয়ে সেলিমের দাবি, ‘‘আমাদের মীনাক্ষী, সায়নদীপ, সৃজন, ঐশী, দীপ্সিতা, প্রতীক-উর, সাদ্দামেরা শিক্ষা, কাজের দাবিতে লড়ছে। ওদের কথায় মানুষ সাড়া দিচ্ছেন, নতুন প্রজন্ম এ দিকে আসছে। যাঁরা আমাদের থেকে মুখ ফিরিয়েছিলেন, তাঁদেরও আবার দেখা যাচ্ছে।’’

Advertisement

বিজেপি ও তৃণমূলকে বিঁধে সেলিমের মন্তব্য, ‘‘আমরা বলছি কর্ম, ওরা বলছে ধর্ম! আমাদের দাবি কর্মসংস্থানের, ওরা যাচ্ছে ধর্মস্থানে। আমাদের ছেলেমেয়েরা যখন কাজের কথা বলছে, বিজেপি ও তৃণমূল তখন তরজায় ব্যস্ত।’’ প্রসঙ্গত, সেলিম নিজেও এ বার চণ্ডীতলা থেকে বিধানসভা ভোটে প্রার্থী। বাম সূত্রের খবর, ছাত্র আন্দোলনের মুখ ঐশী ঘোষ, দীপ্সিতা ধরদের সমর্থনে রাজ্যে প্রচারে দেখা যেতে পারে চিকিৎসক কাফিল খান, কৃষক সভার মহারাষ্ট্রের ও সর্বভারতীয় নেতা অশোক ধওয়লে, সিপিআইয়ের তরুণ নেতা কানহাইয়া কুমার প্রমুখকে। দীপ্সিতার প্রচারে যাচ্ছেন হান্নানও। ঝাড়গ্রামে মধুজা সেন রায়ের প্রচারে সাড়া দেখেও অঙ্ক বদলের আশা দেখছে বামেরা।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement