Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৫ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

Bengal Polls: নতুন প্যারোডিতে ‘টুনি’র গল্প এ বার বামেদের ভোটপ্রচারে

কেবল গানের কথায় নয়, ছবির মাধ্যমেও বিজেপি ও তৃণমূলকে কটাক্ষ করা হয়েছে। পদ্মফুলে সাপ থাকার প্রসঙ্গ তুলে বিষধর সাপের সঙ্গে তুলনা করা হয়েছে বিজে

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ০৩ এপ্রিল ২০২১ ০১:৫০
বাংলাদেশের জনপ্রিয় গান ‘টুনির মা’ প্যারোডি নিয়ে নির্বাচনী প্রচারে সংযুক্ত মোর্চা।

বাংলাদেশের জনপ্রিয় গান ‘টুনির মা’ প্যারোডি নিয়ে নির্বাচনী প্রচারে সংযুক্ত মোর্চা।

গণসঙ্গীত নয়, আবারও জনপ্রিয় বাংলা গানের প্যারোডিই বামেদের অস্ত্র। নীলবাড়ির লড়াইয়ে নেটমাধ্যমের জনস্রোতে নিজেদের জায়গা তৈরি করার অভিনব পন্থা নিয়েছে লাল শিবির। প্রথম বার নয়। এই নিয়ে চতুর্থ বার প্যারোডি প্রকাশ করল সংযুক্ত মোর্চা। ‘টুম্পা সোনা’, ‘লুঙ্গি ডান্স’, ‘উরি উরি বাবা’-র পরে বাংলাদেশের জনপ্রিয় গান ‘টুনির মা’ প্যারোডি নিয়ে নির্বাচনী প্রচারে তারা।

তৃণমূল ও বিজেপি-কে কটাক্ষের সময়ে ব্যবহার করা হয়েছে বাছাই শব্দ। প্যারোডি-তে কেবল দুই বিরোধী দলের সমালোচনা করা হয়নি, সাধারণ মানুষকে আশ্বাসও দেওয়া হয়েছে। বলা হয়েছে, তাঁদের ভোটের বিনিময়ে মিলবে ‘কর্মসংস্থান’ ও ‘শিল্পোন্নতি’। হবে ‘দিনবদল’। গোটা প্যারোডির মূল বক্তব্য, ‘হাল ফেরাতে লাল ফেরানোর শপথ’ নিয়ে টুনি এ বার মোর্চাকে ভোট দিয়েছে। টুনির মতো আরও একাধিক মানুষের ভরসা ফিরেছে লালে। এমনটাই বলা হয়েছে প্যারোডিতে। তবে সাড়ে ৩ মিনিটের এই ভিডিয়োয় তৃণমূল ও বিজেপি-কে তুলোধনা করতে ছাড়েননি স্রষ্টা। গরিবের ত্রাণের চাল চুরি করার কথা, জাত-পাত ও ধর্মের রাজনীতি করার অভিযোগও রয়েছে সেখানে। প্রধানমন্ত্রীর ‘অচ্ছে দিন’-এর প্রতিজ্ঞা, গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি, রামনাম-বিতর্ক— এমনই সব প্রসঙ্গ তোলা হয়েছে ‘টুনির মা’ প্যারোডিতে। এসএসসি-র মেধা তালিকার ওয়েটিং লিস্টে থাকা চাকরিপ্রার্থীদের বিক্ষোভের কথাও মনে করিয়েছে এই গান। বলা হয়েছে, ‘টুনি এসএসসি দেবে, টুনি স্কুল পড়াবে, সুখে-দুখে একই সাথে ঘরও আগলাবে’।

Advertisement

গোটা ভিডিয়োয় বার বার বামেদের প্রতীক চিহ্ন ভেস‌ে উঠেছে কার্টুনের মধ্যে। কাস্তে হাতে দুই মহিলার ম্যাসকট নজরে এসেছে। সম্ভবত সেই দুই ম্যাসকটের মাধ্যমে ‘টুনি’ ও ‘টুনির মা’কে বোঝানো হয়েছে। বলা হয়েছে তাঁদের গল্প। ভিডিয়োটি বানানোও হয়েছে লাল প্রেক্ষাপটে। কেবল গানের কথায় নয়, ছবির মাধ্যমেও বিজেপি ও তৃণমূলকে কটাক্ষ করা হয়েছে। পদ্মফুলে সাপ থাকার প্রসঙ্গ তুলে বিষধর সাপের সঙ্গে তুলনা করা হয়েছে বিজেপি-কে।

প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালে ‘টুনির মা’ গানে মেতেছিল নেটমাধ্যম। বাংলাদেশের গায়ক প্রমিত এই গানটি গেয়েছিলেন। গানের কথা লিখেছিলেন প্রধূন কুমার। সুর দিয়েছিলেন আজমীর বাবু। ভৌগোলিক সীমানা পেরিয়ে দুই বাংলার মানুষই এই গানের কথা ও তালে মুগ্ধ হয়ে গিয়েছিল। সেই জনপ্রিয়তাকে কাজে লাগিয়ে ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে ফের ‘টুনি’ ও ‘টুনির মা’কে বাজারে নিয়ে এল সংযুক্ত মোর্চা।

আরও পড়ুন

Advertisement