নানা টানাপড়েনের পরে শেষ পর্যন্ত ‘টেকো’ মুক্তিতে স্থগিতাদেশ দিল আদালত। বৃহস্পতিবার আলিপুর কমার্শিয়াল আদালতে বিচারক শ্রীকুমার গোস্বামী ‘টেকো’ মুক্তির প্রসঙ্গে এই নির্দেশ দেন। আদালত সূত্রে জানা গিয়েছে, একটি বিশেষ তেল প্রস্তুতকারী সংস্থা ‘টেকো’র বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে। তাদের অভিযোগ ছিল, ছবির মুখ্য চরিত্র ঋত্বিক চক্রবর্তীর মাথায় যে তেল মেখে চুল গজানোর দৃশ্য দেখানো হয়েছে, সেই তেলের বোতলটি হুবহু ওই তেল প্রস্তুতকারী সংস্থার একটি প্রডাক্টের মতো দেখতে। যদিও সেই বোতলের গায়ে কোনও সংস্থার নাম দেখানো হয়নি। অভিযোগ দায়ের হওয়ার পরে বিচারক ছবির মুক্তি স্থগিত রাখার পক্ষে রায় দেন।

কমার্শিয়াল আদালতের আইনজীবী সুসন্দীপ পাঠকের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘‘বিষয়টি নিয়ে মন্তব্য না করার নির্দেশ রয়েছে।’’ ‘টেকো’র পরিচালক অভিমন্যু মুখোপাধ্যায় বললেন, ‘‘বিষয়টি আইনি পদ্ধতির মধ্যে রয়েছে। এটুকু বলতে পারি, ছবির গল্প বা সাবজেক্ট ম্যাটার নিয়ে বিষয়টা নয়। ব্যাপারটা অন্য। আর এ প্রসঙ্গে প্রযোজনা সংস্থা সুরিন্দর ফিল্মসের তরফের আইনজীবীই বলতে পারবেন।’’ সূত্রের খবর, শুধু ছবিই নয়, ইউটিউব ও অন্যান্য মাধ্যম থেকে ‘টেকো’র যাবতীয় দৃশ্য, যাতে ওই তেলের বোতল দেখানো হয়েছে, তা তুলে ফেলার নির্দেশ দিয়েছে আদালত। আজ আদালতের নির্দেশটি লিখিত ভাবে আপলোড করা হবে।

অকালে চুল পড়ে যাওয়া, চুল গজানোর সমস্যা নিয়ে ইদানীং ছবি তৈরি হয়েছে বেশ ক’টি। এর আগে একই বিষয় নিয়ে তৈরি ‘বালা’র সঙ্গে ‘টেকো’র মিল নিয়েও কিন্তু হয়েছিল বিতর্ক।