×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০২ অগস্ট ২০২১ ই-পেপার

বিনোদন

এই ভাইবোনদের বয়সের ফারাক শুনলে চমকে উঠবেন!

নিজস্ব প্রতিবেদন
০৮ অক্টোবর ২০১৮ ১৯:০০
স্বামী-স্ত্রী’র বয়সের বিস্তর ফারাকের কথা শুনলেই চমকে উঠি আমরা। কিন্তু সন্তানদেরই যদি বয়সের তফাৎটা অনেক হয়ে যায়, তাহলে? ঠিক যে রকমটা আমাদের বলিউডেও কখনও সখনও হয়ে থাকে।আজ চোখ থাকবে বলিউডের এমনই কিছু ভাইবোনদের দিকে, আদতে যাঁদের বয়সের আকাশ-পাতাল ফারাক।

সইফ আলি খান আর অমৃতা সিংহের কন্যা সারা আলি খান। আবার সইফ আলি এবং করিনা কপূরের পুত্র তৈমুর আলি খান। কিন্তু সারা আর তৈমুরের বয়সের ফারাক শুনলে যে কারও চোখ কপালে উঠবে। তৈমুরের থেকে ২৩ বছরের বড় সারা আলি খান।
Advertisement
আমির খান ও তাঁর প্রথম পক্ষের স্ত্রী রিনার পুত্র জুনেইদ খান। আর আমির এবং কিরণ রাওয়ের পুত্র আজাদ খান। এই আজাদের থেকে জুনেইদ প্রায় ১৮ বছরের বড়।

সঞ্জয় দত্ত এবং রিচা শর্মার কন্যা ত্রিশালা দত্ত। আর মান্যতা ও সঞ্জয় দত্তের কন্যা ইক্রা দত্ত। ত্রিশালার থেকে ইক্রা প্রায় ২২ বছরের ছোট।
Advertisement
অর্জুন কপূর আর তাঁর দুই বোন জাহ্ণবী এবং খুশির মধ্যে সম্পর্ক নিয়ে বেশ জলঘোলা হয়েছিল এক সময়ে। অর্জুন কপূর আসলে বনি কপূরের প্রথম পক্ষের স্ত্রীর পুত্র। সে পক্ষের একটি কন্যাও আছে বনি কপূরের। তবে জাহ্নবী আর অর্জুনের মধ্যে বয়সের ফারাক প্রায় ১২ বছরের।

বিরাট বয়সের ফারাক শাহরুখ খানের ছোট ছেলে এবং বড় ছেলের মধ্যে। আব্রাম খানের থেকে আরিয়ান খান প্রায় ২০ বছরের বড়।