Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০১ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

হাফ ইয়ারলি রেজাল্ট

নিজস্ব সংবাদদাতা ১৩ জুলাই ২০১৭ ০০:৩০
বাহুবলী ২

বাহুবলী ২

দেখতে দেখতে ২০১৭র ছ’মাস কেটে গেল। কোনও হিন্দি ছবি হিট, কোনওটা একেবারে চলল না বক্স অফিসে। কোনওটা আবার ব্যবসা করল আশাতীত।

বক্স অফিসের সব হিসাব ওলটপালট করে দেওয়ার মুখ্য ভূমিকা ‘বাহুবলী টু: দ্য কনক্লুশন’-এর। মাহিষ্মতী সাম্রাজ্যের গল্প নিয়ে দর্শকের মধ্যে উৎসাহ ছিলই। তবে তা যে বক্স অফিসে এমন ফল দেবে, সেটা হয়তো পরিচালক রাজামৌলি নিজেও ভাবেননি। অন্যান্য ভাষার হিসেব ছেড়ে দিলেও, শুধু হিন্দিতেই বক্স অফিস সংগ্রহ ছাড়িয়ে গিয়েছে ৫০০ কোটি টাকা। আশি কোটি টাকা খরচে বানানো ছবির এহেন ব্যবসা অবশ্যই রোজগারের নিরিখে ২০১৭র প্রথম স্থানে বসিয়ে দেবে।

বছরের গোড়ায় অবশ্য বক্স অফিসের বাইরে আর এক যুদ্ধ বেধেছিল ‘রইস’ আর ‘কাবিল’-এর মধ্যে। রিলিজের দিন পাল্টাতে চাইছিল না দু’পক্ষই। ফলে একই দিনে মুক্তি পায় ছবি দুটো। বক্স অফিসেও অব্যাহত থাকে যুদ্ধ। আর সে যুদ্ধে একটুর জন্য জিতে যায় শাহরুখ খান অভিনীত ‘রইস’। ৮৫ কোটি টাকায় বানানো ছবি ব্যবসা করে ১৩১ কোটি টাকার। ‘কাবিল’ টাকার অঙ্কে একটু পিছিয়ে থাকলেও রোজগার করে ফেলে ৯২ কোটি। ৬০ কোটি টাকায় বানানো ছবি হিসেবে বর‌ং বেশ ভালই বলতে হয় হৃত্বিক অভিনীত ছবিকে।

Advertisement



অবশ্য এই দু’টো ছবির থেকেও এগিয়ে রাখতে হবে ‘বদ্রীনাথ কী দুলহনিয়া’কে। ৪২ কোটির এই ছবি ব্যবসা করে ১১৪ কোটি টাকার। অালিয়া ভট্ট-বরুণ ধবন জুটির ম্যাজিক বলেই মনে করছে হিন্দি সিনেমামহল। ‘বদ্রী...’র সঙ্গে টেক্কা দিয়েছে ‘জলি এলএলবি টু’। ৪৫ কোটিতে বানানো এ সিনেমার বক্স অফিস সংগ্রহ ১০৭ কোটি। ছবির ইউএসপি অবশ্যই অক্ষয়কুমার।

ছবির ব্যবসায় বিদেশে একটা কথা খুব চলে। সেটা হল ‘স্লিপার হিট’। এমন সিনেমা, যেটা প্রথমে ব্যবসা না করলেও কিছু দিন পর থেকে ভাল রোজগার করতে থাকে। এ বছর ়তেমনটা ঘটেছে ‘হিন্দি মিডিয়াম’ ছবির ক্ষেত্রে। মাত্র ২৩ কোটি টাকায় বানানো এ ছবি শেষ পর্যন্ত ব্যবসা করে ৬০ কোটি টাকার। ইংরেজি মাধ্যমে ছেলে-মেয়েকে পড়ানো নিয়ে বাবা-মায়ের আকুলতা ছিল ছবির বিষয়বস্তু।

বক্স অফিস

সেরা তিন: বাহুবলী টু, রইস, বদ্রীনাথ কী দুলহনিয়া

আশাতীত সাফল্য: হিন্দি মিডিয়াম, জলি এলএলবি টু

মুখ থুবড়ে পড়ল: রেঙ্গুন, মেরি প্যায়ারি বিন্দু, রাবতা

মোটামুটি ব্যবসা করার মধ্যে পড়বে ‘হাফ গার্লফ্রেন্ড’ আর অবশ্যই সলমন খানের ‘টিউবলাইট’। দুটো ছবি খরচ তুলতে পেরেছে বক্স অফিস থেকে। খুব খারাপ ব্যবসা বলতে ‘রেঙ্গুন’। ৭০ কোটি টাকা খরচ করে বানানো সিনেমা ২০ কোটির ব্যবসাও করতে পারেনি! একই দলে পড়বে ‘নুর’ ও ‘সরকার থ্রি’। ‘মেরি প্যায়ারি বিন্দু’ বা ‘রাবতা’র অবস্থাও একই হয়। ২২ কোটির ‘...বিন্দু’ ঘরে তুলতে পেরেছিল মাত্র ১০ কোটি। তেমনই ধোনির বায়োপিকের সাফল্যে হাওয়ায় ভাসতে থাকা সুশান্ত সিংহ রাজপুতকে মুখ থুবড়ে ফেলেছে ‘রাবতা’। ৫০ কোটির সিনেমা ২০ কোটিও তুলতে পারেনি।

বছরের শেষ ভাগে রয়েছে ‘জগ্গা জাসুস’, ‘জব হ্যারি মেট সেজল’, ‘সিক্রেট সুপারস্টার’, ‘টয়লেট এক প্রেমকথা’র মতো হেভিওয়েট ছবি। দেখা যাক শেষ অঙ্কে কী হয়!

আরও পড়ুন

Advertisement