×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৪ জুন ২০২১ ই-পেপার

দেব এবং এসভিএফ-এর বন্ধুত্বের কারণ কি আপস?

২৪ অক্টোবর ২০১৯ ০০:০১
দেব

দেব

অতি বড় জুয়াড়িও বোধহয় ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির সম্পর্কের উপর বাজি ধরবে না। এই ইন্ডাস্ট্রিতে কোনও সম্পর্কই চিরস্থায়ী নয়। আজ যে বন্ধু, কাল সে শত্রু। বুধবার ভেঙ্কটেশ ফিল্মসের অন্যতম কর্ণধার মহেন্দ্র সোনির টুইট সে কথাই প্রমাণ করল। এসভিএফ ক্যাম্পে ফের কাজ করতে চলেছেন দেব। ধ্রুব বন্দ্যোপাধ্যায়ের পরিচালনায় পিরিয়ড ছবিতে অভিনয় করবেন অভিনেতা।

এসভিএফ-এর হাত ধরেই দেবের উত্থান। অভিনেতা নিজেও স্বীকার করেন সে কথা। কিন্তু ‘চাঁদের পাহাড়’ এবং দেবের লোকসভা নির্বাচনে দাঁড়ানোর পর থেকেই সম্পর্কের হাওয়া বদলাতে থাকে। বলা হয়, প্রযোজনা সংস্থার অতিরিক্ত ‘নিয়ন্ত্রণ’ই নাকি দু’পক্ষের মাঝের অন্তরায় হয়ে দাঁড়িয়েছিল। এর পর দেব নিজের প্রযোজনা সংস্থা খোলেন এবং যে ধরনের কনটেন্টে তিনি বিশ্বাসী, সেই ছবিই করতে থাকেন। যদিও তাতে লক্ষ্মীলাভ হয়নি। দেব পাঁচটি ছবি প্রযোজনা করেছেন, একটিও বক্স অফিসে হিট নয়। পুজোয় মুক্তি পাওয়া তাঁর শেষ ছবি ‘পাসওয়র্ড’ও সফল নয়। দেব এসভিএফ-এর সঙ্গে ২০১৭ সালে ‘আমাজন অভিযান’ করেছিলেন। এক অর্থে সেটিই তাঁর শেষ হিট ছবি।

অন্য দিকে দেবের মতো তারকা ক্যাম্প থেকে বেরিয়ে যাওয়ায় মাসুল দিতে হয়েছে এসভিএফকেও। তাদের একের পর এক বাণিজ্যিক ছবি ব্যর্থ হয়েছে। দেবের এসভিএফ ক্যাম্পে ফেরত আসা বলে দিচ্ছে, এই জোট বাঁধার তাগিদ দু’পক্ষেরই ছিল। যতই দু’পক্ষ একাধিক বার ঘনিষ্ঠমহলে পরস্পরের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করুক, বক্স অফিসের কারণে এটি হয়তো এক রকমের সমঝোতাই।

Advertisement

এই মহাজোটের কারণে কিন্তু বদলে যাচ্ছে ইন্ডাস্ট্রির অনেক সমীকরণই। যে সব অভিনেতা এসভিএফ-এ মোটামুটি নিয়মিত হয়ে গিয়েছিলেন, তাঁদের কাছে এটা ‘থ্রেট’ও হতে পারে। বিশেষত, যখন কমার্শিয়াল ছবির বদলে দেব ফিরছেন আরবান ছবি দিয়ে। এর ফলে প্রযোজনা সংস্থার সঙ্গে মনোমালিন্য রয়েছে এমন আর এক তারকার কপালেও ভাঁজ অস্বাভাবিক নয়। দেব-এসভিএফ ভাঙনে তিনি বেশ খুশি হয়েছিলেন বলেই শোনা যায়। সম্প্রতি দেব নিজের সংস্থার বাইরে বেরিয়ে অন্য এক প্রযোজকের সঙ্গে বাণিজ্যিক ছবি করেন। যদিও সে ছবি বক্স অফিসে ব্যর্থ। কিন্তু এই মহাজোট কি তাঁদেরও চিন্তিত করবে না?

ধ্রুব বন্দ্যোপাধ্যায়ের গুপ্তধন সিরিজ় সুপারহিট। তবে নতুন ছবিটি এই সিরিজ়ের নয়। যদিও এ বারেও বাংলার ইতিহাসকেই তুলে ধরবেন পরিচালক। বাকি কাস্ট এখনও নাকি চূড়ান্ত হয়নি। এ বছরের শেষেই শুটিং শুরু হবে। এই প্রথম ধ্রুবর পরিচালনায় অভিনয় করবেন দেব। ধ্রুব যে এসভিএফ-এর অন্যতম কান্ডারি হয়ে উঠছেন, বলাই বাহুল্য। অনেক পরিচালকই এই ক্যাম্প থেকে বেরিয়ে গিয়েছেন। যাঁরা আছেন, তাঁরা অন্যত্রও চেষ্টা করছেন। শোনা যায়, ধ্রুবও বাইরে কথাবার্তা চালিয়েছেন। কারণ, এসভিএফ-এর সঙ্গে তাঁর তিনটি ছবিরই চুক্তি হয়েছিল। তৃতীয়টিই দেবের সঙ্গে।

তবে ওই যে, এই ইন্ডাস্ট্রির কোনও সম্পর্কই চিরস্থায়ী নয়।

Advertisement