Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

ছবির জন্য অস্ট্রিয়ায় গিয়ে নাচ করতে চাই

স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায় মানেই স্পষ্টবাদী, বোল্ড। ‘আনন্দ প্লাস’-এর সামনেও অকপট তিনি প্র: ১৫ বছর ইন্ডাস্ট্রিতে। ভাল ছবি, নামকরা পরিচালক, যশ রাজ

স্রবন্তী বন্দ্যোপাধ্যায়
২৮ মার্চ ২০১৭ ০০:৪৪

প্র: ১৫ বছর ইন্ডাস্ট্রিতে। ভাল ছবি, নামকরা পরিচালক, যশ রাজ ব্যানার... তাও স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়ের নাম নায়িকাদের রেটিংয়ে অনেক পরে। কেন ?

উ: যাঁদের জিজ্ঞেস করে এই সব রেটিং হয় তাঁরা প্রকৃত বাংলা ছবির দর্শক কি? মানে আমি এখন যা কাজ করি, সেই ছবি যাঁরা দেখেন, তাঁদের মতামত কি এই রেটিংয়ে নেওয়া হয়? দেখুন, আমি বেড়াচাঁপার দর্শকের জন্য এখন ছবি করি না। এই নেটফ্লিক্সের যুগে নিউজিল্যান্ড থেকে অস্ট্রেলিয়া, লোকে বাংলা ছবি দেখছে। তাঁদের মতামত নিয়ে তো আর রেটিং তৈরি হচ্ছে না। তা হলে? ২০০৮ অবধি যা কমার্শিয়াল ছবি করেছি তাতে হাওড়া পেরিয়ে শ্যুট করতে গেলে আজও আমার সিকিওরিটি লাগে। আবার মুম্বইয়ে মদ খেতে গেলে বার টেন্ডাররা এসে বলে ম্যাডাম আমি মেদিনীপুরের। ‘টেক ওয়ান’দেখেছি। আচ্ছা, জিৎদার সঙ্গে বই করবেন না? বুম্বাদাও আমাদের দেখার মতো ছবি করছে না…মানে সকলেই কিন্তু এখন অন্য ধারার ছবি, আরবান ছবি করছে। আমি একা নই।

প্র: এখনও বাংলা ছবি সেই ভাগাভাগিতেই আছে তা হলে?

Advertisement

উ: অবশ্যই। দুর্গাপুরের মাল্টিপ্লেক্সে কেউ ‘টেক ওয়ান’ দেখবে না। ‘আওয়ারা’, ‘বস’ দেখবে। আবার ‘মন মানে না’ সাউথ সিটিতে দেখবে না। সেটা স্কিন শো-র জন্য দেখেছে নাকি গল্পের জন্য দেখেছে সেটা বলা শক্ত।

প্র: তা হলে ‘বেলাশেষে’র দর্শক কারা?

উ: শিবু-নন্দিতার ছবির নিজস্ব স্টাইল আছে। গ্রাম-শহর দুটোই দেখছে।

প্র: জিতের সঙ্গে কি ছবি করবেন?

উ: ‘কিরীটি’ রিলিজের সময় অশোক ধানুকা বললেন আপ কুছ করো...আমি বললাম, আমি তো সবসময় রেডি। অস্ট্রিয়াতে গিয়ে প্রচুর নাচতে চাই। মজা করে ছবি করতে চাই। জিতের সঙ্গে কাজ করতে তো চাই-ই। আর ওকে দিন দিন খুব ভাল দেখতে হয়ে যাচ্ছে। তবে আগের প্রশ্নের সূত্র ধরে বলি, অন্য ধরনের ছবি নিয়ে কথা বললে আমার কথা বলতেই হবে। আমি এটা নিয়ে মাথা ঘামাই না, যে অমুক নায়িকার কাগজে অনেক ছবি বেরল, আমার কেন বেরল না।

প্র: স্বস্তিকা মানেই স্কিন শো, আউটগোয়িং মহিলা। ক্লান্ত লাগে না?

উ: এখন কিন্তু ওই ধাঁচ থেকে বেরিয়ে এসেছি। আর শুনুন চুমুটা তো সম্পর্কের গল্পে খুব নর্মাল। এটা নিয়ে তো কোনও দ্বিমত নেই যে ‘সেক্স সেলস লাইক হট কেক’। শুধু আমি না, প্রিয়ঙ্কা চোপড়া বিকিনি পড়লেও সেই ছবি আগে ছাপা হবে। ইন্ডাস্ট্রিতে এমনিতেই অভিনেত্রী কম। তার উপর কেউ চুমু খাবে না। কেউ বউদির পার্ট করবে না। কেউ সিগারেট খাবে না। মাথায় পাকা চুল লাগাবে না...সেই সব ছবি করার জন্য লোক পাওয়া যাবে কোথা থেকে? থাকলে নিশ্চয়ই পরিচালকেরা ভাগাভাগি করে নিতেন। আমিও দেখতে পেতাম। আমি কোনও অ্যামেজিং স্ক্রিপ্টের অ্যামেজিং রোল চুমু খেতে হবে বলে হারাব না। প্লিজ! নেটফ্লিক্সে দেখে প্রচুর লোক এখনও সোশ্যাল মিডিয়ায় জানতে চায় পরের ছবি কী? বলে, খুব ভাল অভিনয় করেন আপনি। এরা যে আমায় মনে রেখেছে সেটা তো অভিনয়ের জন্য। চুমু খাওয়ার জন্য নয়। আচ্ছা, এগুলো কোথায় লেখা হয়?

প্র: সমালোচনা পছন্দ না হলে সোজা ফেসবুকে লিখে দেন। খুব মুডি আপনি!

উ: ১৫ বছর ধরে নিজের টার্মসে মাথা উঁচু করে কাজ করে যাচ্ছি। আর এ রকম কোনও ছবিও তো করছি না যার পোস্টার পড়ল, অথচ ছবি দেখা গেল না। অন্যায় মনে হলে নিশ্চয়ই ফেসবুকে লিখব। অন্য লোকেদের সঙ্গে অন্যায় হলেও বলব। আরও দশটা ছবি পাব বলে মুখ বুজে থাকব এ রকম মেয়ে নই আমি।

প্র: সাংবাদিকদের নিয়েও মন্তব্য করেন আপনি…

উ: করব না কেন? অনেক সাংবাদিক আছেন যাদের সঙ্গে কফি খেলে তারা ভাল লিখবে। ছবি ছাপাবে। আমি কফি খাই না। আমার ছবিও ছাপা হয় না।

প্র: ফেসবুকে আপনি ব্যাক্তিগত সম্পর্ক নিয়ে স্টেটাস দেন, সুমন মুখোপোধ্যায়ের সঙ্গে আপনার ছবি পোস্ট করেন। অথচ সেটা নিয়ে প্রশ্ন করলে রেগে যান কেন?

উ: রাগি না তো! ব্যক্তিগত জায়গা নিয়ে যে যা প্রশ্ন করেছে উত্তর দিয়েছি আমি। আমার ইমেজটা বাড়িতেও যেমন, রাস্তাতেও তেমন, কাগজের লোকের সামনেও তেমন। ফেসবুকেও তেমন। ফেসবুকের প্রসঙ্গ যখন উঠল আগের একটা কথা বলি। ‘‘হাও মেনি টাইমস্ ক্যান দ্য হার্ট ফল ইন লাভ ইটস অলসো নিডস্ টু রেস্ট’’ এটা একটা কোট। আমি ফেসবুকে দিয়েছিলাম। তার মানে কি এটা আমি আমার জীবনের সঙ্গে জড়িয়ে লিখেছি? এই পোস্টের তিন মাস পরে কোনও এক কাগজ এটা ব্যবহার করে আমার বিরুদ্ধে যা খুশি লিখল। এ বার তো আমাকে ফেসবুকে লিখতেই হত! বলিউডে টুইটারে লোকে নিজের মতামত দেয়। ঋষি কপূরকে দেখুন। যা মনে হচ্ছে সোজা বলছেন। তাতে কি আমার মনে হবে উনি খারাপ অভিনেতা? মুখেই বলে যাব ‘বি ইওরসেল্ফ’? আসলে থাকব না। আরে, আমি তো কাজে একশো ভাগ দিচ্ছি। আমি কটা প্রেম করলাম তাতে কার কী! কোনও দিন তো শুনিনি কেউ এসে বলল এই ছবিতে আপনার অভিনয় ভাল লাগল না।

প্র: ‘অসমাপ্ত’তে অন্য স্বস্তিকাকে দেখা গেল…

উ: আমি বরাবর ভেঙেছি নিজেকে। কোনও ছবির সঙ্গে চুল থেকে মুখ কোনও মিল পাবেন না। ‘মাইকেল’এও দেখবেন আলাদা।

প্র: সুমন মুখোপাধ্যাযের সঙ্গে থেকে কি বদল হল?

উ: অনেক বই পড়ি আজকাল। দারুন সব ছবি দেখি। অভিনেতা হিসেবে এনরিচড হই।

প্র: সুমন ভাল গল্পে অন্য কাউকে কাস্ট করলে রেগে যাবেন?

উ: নাহ। আমার থেকে বেটার অপশন পেলে নিশ্চয়ই নেবে। প্রযোজক, ডিস্ট্রিবিউটারদেরও চাহিদা থাকে।

প্র: কতদিন আর কলকাতা-মুম্বই ডেলিপ্যাসেঞ্জারি করবেন। বিয়ে…

উ: একটা বিয়ে থেকে আগে ছুটি পাই। তারপর যদি উৎসাহ থাকে। প্রেম থাকে…

প্র: প্রেম নাও থাকতে পারে?

উ: মা চলে যাওযার পরে এখন সব র‌্যাশনালি ভাবি। হঠাৎ করে যে কেউ চলে যেতে পারেন। ইমোশনালি নির্ভর হলেই আমি কেস খাই। এখন বদলাতে চাই।



Tags:
Swastika Mukherjee Austria Actress Bengali Actressস্বস্তিকা মুখোপাধ্যায় Celebrity Interview

আরও পড়ুন

Advertisement