×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২১ জুন ২০২১ ই-পেপার

হোটেলে কিমকে বন্দুক দেখিয়ে লুঠ

সংবাদ সংস্থা
প্যারিস ০৪ অক্টোবর ২০১৬ ০২:৫৯

হোটেলের ঘরের দরজায় টোকা। আর খোলা মাত্রই ঘরের ভিতর ঢুকে মাথায় বন্দুক ঠেকাল পুলিশের পোশাক পরা দুই যুবক।

সুপরিকল্পিত কোনও ছবির দৃশ্য নয়। রবিবার রাতে এই ঘটনাই ঘটল প্যারিসের একটি হোটেলে। সেখানে ডাকাতি করার উদ্দেশ্যে এ ভাবেই আমেরিকার জনপ্রিয় তারকা কিম কার্দাশিয়ানের ঘরে ঢুকে পড়ে দুই আততায়ী। টাকা ও বেশ কিছু গয়না মিলিয়ে কয়েক লক্ষ ইউরো (১০ কোটি টাকার কাছাকাছি) লুঠ হয়েছে। আঘাত না পেলেও এই ঘটনায় প্রচণ্ড ভয় পেয়ে যান তিনি।

কিমের মুখপাত্র জানান, ফ্যাশন উইক উপলক্ষে এখন প্যারিসেই রয়েছেন তারকা। সঙ্গে রয়েছেন তাঁর মা ও বোন। সোমবার সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে ওই মুখপাত্র জানান, রবিবার রাতে ওই হোটেলে নিজের ঘরেই ছিলেন কিম। দরজায় কড়া নাড়ার আওয়াজ পেয়েই খুলে দেন তিনি। আর সঙ্গে সঙ্গেই হুড়মুড়িয়ে ঘরের ভিতর ঢুকে পড়ে পুলিশের পোশাক পরা দুই যুবক। আগ্নেয়াস্ত্র বের করে চেপে ধরে কিমের কপালে। ভয়ে ততক্ষণে আড়ষ্ট হয়ে গিয়েছেন তারকা। ঘরের কোথায় টাকা ও গয়না রাখা আছে, কিমের কাছে বার বার জানতে চায় তারা। এর পরেই ঘরময় তাণ্ডব শুরু। কিছু ক্ষণ লুঠপাট চালিয়ে টাকা-গয়না হাতিয়ে হোটেলের ঘর থেকে পালিয়ে যায় তারা। ঘটনার আকস্মিকতায় প্রথমে হকচকিয়ে যান কিম। পরে সম্বিৎ ফিরলে চিৎকার করে লোকজনকে ডাকাডাকি করতে থাকেন। ছুটে আসেন হোটেলের কর্মীরা।

Advertisement

ওই রাতে নিউ ইয়র্কে গানের অনুষ্ঠান ছিল কিমের স্বামী কেনি ওয়েস্টের। অনুষ্ঠান চলাকালীন লুঠের খবর জানতে পেরেই মঞ্চ ছেড়ে নেমে যান তিনি। তত ক্ষণে ফেসবুক টুইটারে একের পর এক পোস্ট আসতে শুরু করেছে: প্যারিসে কিম কার্দাশিয়ানের মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে লুঠ করা হয়েছে! কেনি পরে জানান, দুই অজ্ঞাতপরিচয় যুবকের বিরুদ্ধে লুঠের অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। খতিয়ে দেখা হচ্ছে হোটেলের সমস্ত সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ। কিন্তু পুলিশের ভুয়ো পরিচয় দিয়ে কী ভাবে দু’জন কিমের ঘর পর্যন্ত পৌঁছে গেল, এই প্রশ্নের সদুত্তর হোটেল কর্তৃপক্ষ দিতে পারেননি বলেই জানিয়েছেন কিমের মুখপাত্র।

Advertisement