×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২২ জুন ২০২১ ই-পেপার

‘শকুন্তলা দেবী’, ‘গুঞ্জন সাক্সেনা’কে পিছনে ফেলে অস্কারের দৌড়ে মালয়ালি ছবি ‘জাল্লিকাট্টু’

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ২৫ নভেম্বর ২০২০ ১৮:১৯
—ফাইল চিত্র।

—ফাইল চিত্র।

অস্কারের দৌড়ে এ বার মালয়ালি ছবি ‘জাল্লিকাট্টু’। ৯৩তম অস্কারের সেরা বিদেশি ছবি বিভাগের জন্য ভারতের তরফে ‘জাল্লিকাট্টু’-কে বেছে নেওয়া হয়েছে। লেখক এস হরীশের লেখা ছোট গল্প ‘মাওইস্ট’-এর উপর ভিত্তি করে ছবিটি তৈরি করেছেন পরিচালক লিজো জোস পেল্লিসারি। ছবিতে মুখ্য ভূমিকায় রয়েছে অ্যান্টনি ভার্গিজ, চেম্বন বিনোদ জোস, সবুমন আবদুসামাদ এবং শান্তি বলচন্দ্রণ।

‘ভোঁসলে’, ‘দ্য ডিসাইপল’, ‘ছলাঙ্গ’, ‘শকুন্তলা দেবী’, ‘গুঞ্জন সাক্সেনা’, ‘ছপাক’, ‘গুলাবো সিতাবো’, ‘চেক পোস্ট’, ‘সিরিয়াস মেন’, ‘দ্য স্কাই ইজ পিঙ্ক’-এর মতো ২৭টি ছবির মধ্যে থেকে ‘জাল্লিকাট্টু’-কে অস্কারে পাঠানোর জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে। ছুটন্ত ষাঁড়কে কৌশলে কাবু করার খেলা তামিলনাড়ুতে জাল্লিকাট্টু হিসেবে পরিচিত। ছবির বিষয়বস্তুও তাই। খেলা চলাকালীন একটি উন্মত্ত ষাঁড় গ্রামে ঢুকে পড়ার পর পরিস্থিতি কী দাঁড়ায়, মানুষ ও পশুর মধ্যেকার পার্থক্য কী ভাবে ম্লান হয়ে যেতে থাকে, ছবির মাধ্যমে তা-ই তুলে ধরেছেন পরিচালক।

ফিল্ম ফেডারেশন অব ইন্ডিয়া জুরি বোর্ডের চেয়ারম্যান রাহুল রাওয়েল সংবাদমাধ্যমে বলেন, ‘‘২৭টি ছবির মধ্যে থেকে জাল্লিকাট্টুকে অস্কারে পাঠানোর জন্য মনোনীত করেছেন জুরি সদস্যরা। এই ছবিতে মানুষের চরিত্রের এমন দিকগুলো তুলে ধরা হয়েছে, যাতে বোঝা যায় আমরা পশুরও অধম।’’ পেল্লিসারিকে অত্যন্ত পারদর্শী পরিচালক বলেও উল্লেখ করেন রাহুল।

আরও পড়ুন: ফের প্রথা ভাঙলেন মেগান, প্রকাশ্যে আনলেন গর্ভপাতের অভিজ্ঞতা​

আরও পড়ুন: এত সুখ নেই কর্ণ-স্বস্তিকার কপালে, কোনও দিনই এক ভাবে জীবন কাটবে না ওদের: স্বস্তিকা​

Advertisement

এর আগে ‘আঙ্গামলি ডায়েরিজ’, ‘ইয়া মা ইয়াউ’-এর মতো ছবি তৈরি করেছেন পেল্লিসারি, যা সমালোচকদের প্রশংসা কুড়িয়েছে। ২০১৯ সালের ৬ সেপ্টেম্বর ‘জাল্লিকাট্টু’ ছবিটি টরন্টো ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে প্রদর্শিত হয়। ৫০তম ভারতীয় চলচ্চিত্র উৎসবে সেরা পরিচালকের পুরস্কার পান তিনি।

Advertisement