Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১২ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied

বিনোদন

Rakhi Sawant: জোর করে রাখির ঠোঁটে চুমু খেয়ে মিকার দাবি, ‘বদলা নিতে চেয়েছিলাম’

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ০১ সেপ্টেম্বর ২০২১ ২০:১২
বিতর্কের স্রষ্টা তিনি। তাঁকে ঘৃণা করা যায়, কিন্তু এড়িয়ে যাওয়া যায় না। আর এই ভাবেই বার বার তিনি খবরের শিরোনাম দখল করেন। তিনি রাখি সবন্ত। তিনি বিনোদনী— অভিনয়, সঞ্চালনা, মডেলিং, নাচ, গান ছাড়াও নানা অঙ্গভঙ্গির মাধ্যমে ভক্তদের মাতিয়ে রাখেন তিনি। তাঁর নতুন বন্ধু হল পাপারাৎজিরা। তিনি যেখানেই যান না কেন, মুম্বইয়ের পাপারাৎজিরা তাঁর ছায়াসঙ্গী হয়ে যান।

১৯৭৮ সালে ২৫ নভেম্বর মুম্বইয়ে জন্ম তাঁর। ১৯৯৭ সালে ‘অগ্নিচক্র’ ছবির মাধ্যমে প্রথম অভিনয় জগতে আসা। তার পর একে একে ‘জিস দেশ মেঁ গঙ্গা রহতে হ্যাঁয়’, ‘ইয়ে রাস্তে হ্যাঁয় পেয়ার কে’, ‘ম্যায় হুঁ না’ ইত্যাদি বহু ছবিতে ছোট বড় চরিত্রে অভিনয় করতে করতে খ্যাতি লাভ তাঁর।
Advertisement
২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে ল়ড়াই করার জন্য রাখি নিজে একটি রাজনৈতিক দল খুলেছিলেন, যার নাম, রাষ্ট্রীয় আম পার্টি (আরএপি)। কিন্তু নির্বাচনের পর রামদাস আঠাওয়ালের নেতৃত্বে রিপাব্লিকান পার্টি অব ইন্ডিয়ায় যোগদান করেন তিনি।

তা ছাড়া নিজেকে আমেরিকার প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বৌমা বলেও দাবি করেছিলেন ইন্ডাস্ট্রির ‘ড্রামা কুইন’। ২০১৯ সাল। রাখির ভাইয়ের ছবি লঞ্চের এক সাংবাদিক বৈঠকে তাঁকে জিজ্ঞাসা করা হয়, ‘বিয়ে করলেন, অথচ রিসেপশন পার্টি দিলেন না?’ রাখির উত্তর, ‘‘চারিদিকে এত মূল্যবৃদ্ধি। আর তা ছাড়া আমার রিসেপশন তো মোদীজি আয়োজন করবেন।’’ শুধু তা-ই নয়, যেহেতু তাঁর স্বামী প্রবাসী ভারতীয় তাই রাখির দাবি, সেই সুবাদে ট্রাম্প নাকি তাঁর শ্বশুরমশাই।
Advertisement
২০১৮ সালে তাঁর বিরুদ্ধে ৫ কোটি টাকার মানহানির মামলা করেছেন রাম রহিমের পালিতা কন্যা, হানিপ্রীত ইনসানের মা আশা তানিজা। রাম রহিমের উপর একটি ছবিতে হানিপ্রীতের চরিত্রে অভিনয় করছিলেন রাখি সবন্ত। আগেই রাখি হুমকি দিয়েছিলেন, ওই ছবিতে রাম রহিম এবং হানিপ্রীতের স্বরূপ দেখাবেন রাখি। তাঁদের মুখোশ খুলে দেবেন। আশার অভিযোগ, সিনেমার মাধ্যমে হানিপ্রীত ও তাঁদের পরিবারকে অসম্মান করা হচ্ছে।

২০১৮ সালের নভেম্বর মাসে রাখি নিজের বিয়ের কথা ঘোষণা করেন। তিনি জানান, টেলিভিশন জগতের পরিচিত মুখ দীপক কলালকে বিয়ে করবেন সেই বছর ডিসেম্বর মাসে। কিন্তু বিয়ের মাসেই রাখি নেটমাধ্যমে জানান, বিয়ে বাতিল হয়ে গিয়েছে। তারই মাঝে দীপক নাকি অন্য একটি মেয়ের সঙ্গে বাগদানও সেরে নিয়েছিলেন।

২০১৯ সালের মাঝামাঝি সময়ে রাখি বিয়ে করেন রীতেশ নামের এক ব্যবসায়ীকে। কিন্তু আজ পর্যন্ত রাখির সেই স্বামীকে কেউ চোখে দেখেননি। গত বছর ‘বিগ বস’-এ রাখি জানিয়েছিলেন অজান্তেই বিবাহিত রীতেশকে বিয়ে করেছিলেন তিনি। রাখির স্বামী নাকি বিচ্ছেদও চেয়েছেন তাঁর কাছ থেকে। এ দিকে একটি সংবাদসংস্থাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে রাখির স্বামী রীতেশ জানিয়েছেন, তিনি নিজে চাননি বলেই এত দিন তাঁর ছবি প্রকাশ করেননি রাখি। স্ত্রীকে নাকি খুব ভালবাসেন তিনি।

২০০৬ সালে তুমুল বিতর্কের মুখে পড়েন রাখি। গায়ক মিকা সিংহের জন্মদিনের পার্টিতে গিয়েছিলেন তিনি। সেখানে মিকা জোর করে চেপে ধরে রাখির ঠোঁটে চুম্বন করেন। সেই ছবি, ভিডিয়ো ক্লিপ ছড়িয়ে পড়ে চার দিকে। রাখি এই ঘটনার পরেই মিকার বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার মামলা দায়ের করেন। মিকাকে গ্রেফতার করা হলেও জামিনে তিনি মুক্তি পেয়ে যান।

মিকা যুক্তি দিয়েছিলেন, তিনি নাকি প্রত্যেককে বলেছিলেন যেন তাঁর মুখে কেক মাখানো না হয়। কিন্তু রাখি তাঁর কথায় অমান্য করায় তিনি রাখিকে ‘শিক্ষা দিতে’ তাঁকে জোর করে চুম্বন করেন। মিকা আরও জানিয়েছিলেন, রাখি নাকি তাঁকে প্রথম চুম্বন করেছিলেন। তাই বদলা নিতে রাখিকে চুমু খান তিনি।

রাখি পরে একটি সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, ‘বোন হিসেবে মিকার গালে চুমু খেয়ে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়েছিলাম । তা বলে জোর করে আমাকে ভিজে চুমু খাওয়ার ছাড়পত্র দেওয়া হয়নি তাঁকে।’

যদিও এই ঘটনার ১৫ বছর পর গত মে মাসে তাঁরা নিজেদের মধ্যে সব কিছু মিটমাট করে নেন। মুম্বইয়ের এক ক্যাফেতে পাপারাৎজিদের সঙ্গে গল্প করছিলেন রাখি। হঠাৎ সেখানে এসে দাঁড়ান মিকা। রাখি তাঁকে দেখে জড়িয়ে ধরেন। পাপারাৎজিদের উল্লাসধ্বনি শোনা যায় ক্যামেরার পিছন থেকে। তার পরে মিকার মুখে নিজের প্রশংসা শুনে তাঁকে প্রণাম করার ভঙ্গিতে নীচু হন রাখি।