সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

চিনে তুফান ‘পিকে’-র

PK

ভোজপুরি বুলি আওড়ানো ভিনগ্রহের জীবটিকে বেজায় ভালবেসে ফেলেছেন চিন দেশের বাসিন্দারা। আমির খান অভিনীত রাজকুমার হিরানির ‘পিকে’ এই মুহূর্তে চিনেও বিপুল হিট। ইতিমধ্যেই ১৩.৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের ব্যবসা করে চিনের বক্স অফিসে তুফান তুলেছে ‘পিকে’। সেই সঙ্গে ফিল্ম-সমালোচকরাও প্রশংসায় পঞ্চমুখ। গত ২২ মে রিলিজ হওয়ার পর থেকে এখনও পর্যন্ত চিনের বৃহত্তম ফিল্ম রিভিউয়িং ওয়েব-সাইট ‘দৌবান’-এ ‘পিকে’-র স্কোর ৮.৩!

অবশ্য ভেবে দেখলে চিনে ছবির সাফল্য আমির-রাজুর কাছে নতুন কিছু নয়। এর আগে এই জুটির ২০০৯-এর ছবি ‘থ্রি ইডিয়টস’-ও চিনে ভালই সমাদর কুড়িয়েছিল। কিন্তু ‘পিকে’ সেই সাফল্যকে ছাড়িয়ে গিয়েছে। চিনের সংবাদমাধ্যম এমন কথাও বলছে যে, ‘পিকে’ থেকে অনেক কিছুই শেখার রয়েছে সে দেশের ফিল্ম-মেকারদের। এখনও পর্যন্ত চিনের পাঁচ হাজার স্ক্রিনে দেখানো হয়েছে ‘পিকে’। সে দেশে নন-ইংলিশ ফরেন মুভির ব্যবসাতেও ‘পিকে’ নতুন রেকর্ড তৈরি করেছে। ‘পিকে’-র এই সাফল্য চিনে ভারতীয় ছবির নতুন বাজার-সম্ভাবনা খুলে দিল— মন্তব্য করেছেন চাইনিজ ফার্ম স্ট্র্যাটেজিক অ্যালায়েন্সের পার্টনার প্রসাদ শেটি।


ছবির প্রচারে। প্রযোজক বিধু বিনোদ চোপড়ার সঙ্গে অমিতাভ বচ্চন।
বুধবার মুম্বইয়ে। ছবি: পিটিআই।

 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন