• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সন্তান আসার খুশিতে আদরের ছবি পোস্ট করলেন রাজ-শুভশ্রী

Raj Subhashree
রাজ-শুভশ্রী। নিজস্ব চিত্র।

ইনস্টাগ্রামে ছবি পোস্ট করলেন পরিচালক রাজ চক্রবর্তী। সাদা পাঞ্জাবির রাজ জড়িয়ে আছেন স্লিভলেস ব্লাউজ আর ঘিয়ে রঙের শাড়ি পরা শুভশ্রীকে, তাঁর সন্তানের জননীকে। শুভশ্রীর হাত পেটের কাছে, যেন ছুঁয়ে আছেন সন্তানকে। শুভশ্রীর বেবি বাম্পের ছবি এ ভাবেই প্রকাশ করলেন রাজ।আর এক ছবিতে শুভশ্রী আর রাজ আসন্ন সন্তানের কথা ভেবেই আদর করছেন নিজেদের।

আনন্দবাজার ডিজিটালকে খানিক লাজুক স্বরেই বললেন রাজ, “শুভকে লুকিয়ে ইনস্টাতে ছবিটা পোস্ট করি।ও তো কিছুই করতে দেবে না আমায়। চারিদিকে এত খারাপ খবরের মধ্যে আমার মনে হয়েছিল একটু পজিটিভ কিছু দিই। তাই এই ছবি পোস্ট করলাম।” 

বেশ কিছু দিন আগে শুভশ্রী সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর সন্তানের জন্য লিখেছিলেন, ‘বছর চারেকের একটা বাচ্চা বুক সমান জল পেরিয়ে খাবার নিতে এসেছে ত্রাণ শিবিরে। এরপরেও তোর কথা ভেবে কী করে বেশি বেশি খাই বলতো?’ খোলা চিঠি লিখেছেন শুভশ্রী তাঁর শরীরের ভেতর বেড়ে ওঠা সন্তানকে। তিনি লিখেছিলেন, ‘মনটা বড্ড খারাপ। সারাক্ষণ চেষ্টা করছি মনটাকে ঠিক রাখার, কিছুতেই পারছি না। সবাই বলে প্রেগন্যান্ট হলে হাসিখুশি থাকতে হয়, কী করে থাকব বল তো! তোর কথা ভেবেই সব ভোলার চেষ্টা করছি। কিন্তু এত ধ্বংসস্তূপ আগে কখনও দেখিনি যে… কান্না চেপে রাখতে পারছি না। নিজের মনটাকে বোঝানোর চেষ্টা করছিযে, না না, এখন মন খারাপ করলে চলে না! ভাবছি তুই কি ভাববি… কিন্তু নিজেকে আটকে রাখতে পারছি না।তোকে গল্ফগ্রিন, সাদার্ন অ্যাভিনিউ, ময়দানের সবুজ দৃশ্যগুলো আর দেখানো হল না। সেই বড় বড় গাছগুলো…সেগুলো তো শুধু গাছ ছিল না। ছিল হাজার হাজার পাখির বাসা। তুই দেখতে পেলি না।’

আরও পড়ুন: বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম করোনা আক্রান্ত দেশে গাড়িতেই বিয়ে সেরে নিল ১৫ যুগল

শুভশ্রীর মন ভাল করার জন্যই হয়তো রাজ এই অন্যরকম ছবি পোস্ট করলেন। “আমি ঠিক করেছি সেপ্টেম্বরের আগে বাড়ি থেকে বেরব না। সে এসে বলবে, বাবা আমি এখন আছি, মাকে দেখছি। এ বার তুমি বেরতে পার, তখন বাইরে যাব”, আবেগে ভাসলেন রাজ।

আরও পড়ুন: হিমাচলের এই রাস্তা দুর্বল হৃদয়ের মানুষের জন্য নয়!

সেপ্টেম্বরের সেই উজ্জ্বল দিনের অপেক্ষায় এখন রাজ-শুভশ্রী।

রাজের পোস্ট করা ছবি:

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন