অনুতপ্ত রবিনার ডিগবাজি। ডিলিট করে দিলেন জায়রা ওয়াসিমকে ‘অকৃতজ্ঞ’ বলা তাঁর টুইট-বার্তা। তাঁর মত পরিবর্তনের কারণ সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘুরতে থাকা একটি ভিডিও। সেখানে দাবি, স্বেচ্ছায় নয়, বর‌ং জায়রা নাকি অভিনয় ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন। এ বার রবিনার বক্তব্য, যদি এই দাবি সত্যি হয়, যদি সত্যিই জায়রা চাপের কারণে নতিস্বীকার করে থাকেন, তা হলে তিনি কিশোরীর জন্য দুঃখিত। রবিনার প্রশ্ন, জায়রাকে কি তাঁর দীর্ঘ বক্তব্য লিখতে বাধ্য করেছিল ম‌ৌলবাদীরা? দেশের যুব সম্প্রদায়ের কাছে জায়রা ছিলেন আদর্শ। মন্তব্য রবিনার।

এর আগে জায়রাকে এককথায় ‘অকৃতজ্ঞ’ বলেছিলেন রবিনা। তাঁর আপত্তি ছিল জায়রার অভিনয় ছাড়ার কারণ নিয়ে। সোশ্যাল মিডিয়ায় জায়রা জানিয়েছিলেন, তাঁর ইমান বা বিশ্বাস নষ্ট হচ্ছে বলে তিনি অভিনয় জগত থেকে বিদায় নিচ্ছেন। এই পথে থাকতে গিয়ে ঈশ্বরের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। রবিনার মনে হয়েছিল এই কারণ দেখানো জায়রার ঠিক হয়নি। নিজের পুরনো মনোভাব তিনি নিজের কাছেই রাখতে পারতেন। যে ইন্ডাস্ট্রি তাঁর সবকিছু দিয়েছে তার প্রতি জায়রা অকৃতজ্ঞ। মনে হয়েছিল রবিনার। নিজের সেই মন্তব্যের জন্য রবিনা এখন অনুতপ্ত। এখন মনে হচ্ছে, হয়তো জায়রা ওই কথাগুলো লিখতে বাধ্য হয়েছিলেন, যা নাকি তাঁর সিনেমাপ্রিয় মনকে আঘাত করেছে। কিন্তু এখন তাঁর নিজের মন্তব্যই নিজের কাছে কর্কশ বলে মনে হচ্ছে।

আরও পড়ুন: অভিনেতা না পরিচালক?

আরও পড়ুন:জীবনে সব সিদ্ধান্তই আমাকে কিছু না কিছু শিখিয়েছে

শনিবার জায়রা সোশ্যাল মিডিয়ায় লেখেন, ‘পাঁচ বছর আগে দৈবাৎ একটি সিদ্ধান্ত তাঁর জীবন পাল্টে দিয়েছিল। বলিউডে পা রাখায় তাঁর সামনে খুলে গিয়েছিল তুমুল জনপ্রিয়তার দরজা। জনসাধারণের আকর্ষণের কেন্দ্র বা নতুন প্রজন্মের আদর্শ যা-ই হয়ে ওঠেন, তা কোনওটাই তিনি হতে চাননি। ইন্ডাস্ট্রি তাঁকে দু’­ হাত ভরে দিলেও আজ পাঁচ বছর পরে তাঁর মনে হচ্ছে, এই পরিচয় তিনি চাননি। তাই ইন্ডাস্ট্রিকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বিদায় নিচ্ছেন।’

যে ভাবে আচমকা টিনসেল টাউনকে বিদায় জানালেন, তার থেকেও চমকপ্রদ ছিল তাঁর উত্থান। ২০১৬-য় আমির খানের ‘দঙ্গল’-এ গীতা ফোগতের বালিকাবেলার ভূমিকায় অভিনয়ে বাজিমাত। প্রথম ছবিতেই জাতীয় পুরস্কার। এরপর অদ্বৈত চহ্বানের ছবি ‘সিক্রেট সুপারস্টার’-ও কিশোরী ইনসিয়ার ভূমিকায় জায়রার কাজ মন জিতে নেয় দর্শক ও সমালোচক, দুই মহলেরই। তাঁর তৃতীয় ছবি ‘দ্য স্কাই ইজ পিঙ্ক’-এর মুক্তি অক্টোবরে। সোনালি বসুর এই ছবিতে তিনি স্ক্রিন শেয়ার করেছেন প্রিয়ঙ্কা চোপড়া, ফারহান আখতার, রোহিত শরাফের সঙ্গে। কিন্তু শোনা যাচ্ছে, ছবির প্রচারেও নাকি থাকছেন না জায়রা।